নোট বাতিলের পরে ডিজিটাল লেনদেনে উৎসাহ জোগাতে বিভিন্ন পরিষেবায় এক গুচ্ছ সুবিধা দেওয়ার কথা জানিয়েছিল কেন্দ্র। সেই সুত্রে তেলের পাম্পে পেট্রল বা ডিজেল কেনার সময়ও ডিজিটাল লেনদেনে যে আর্থিক সুবিধা (ক্যাশব্যাক) মিলত, এ বার তাতে কোপ পড়ছে। 

ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড, ই-ওয়ালেট, মোবাইল ওয়ালেটের মতো ডিজিটাল পরিষেবায় পেট্রল-ডিজেল কিনলে ২০১৬ সালের ১৩ ডিসেম্বর থেকে ০.৭৫% টাকা ফেরত (ক্যাশব্যাক) পেতেন গ্রাহকেরা। লেনদেনের তিন দিনের মধ্যে ক্রেতার অ্যাকাউন্টে তা জমা পড়ত। কেন্দ্র তেল সংস্থাগুলির মাধ্যমে ওই সুবিধা দিত। কিন্তু পাম্প মালিকদের দাবি, এসএমএস বার্তায় তেল সংস্থাগুলি জানিয়েছে, অগস্ট মাস থেকে ওই সুবিধা কমে ০.২৫% হচ্ছে। দিল্লির দরের হিসেবে এর ফলে লিটার প্রতি পেট্রলে ওই সুবিধা ৫৭ পয়সা থেকে কমে ১৯ পয়সা ও লিটার প্রতি ডিজেলে ৫০ পয়সা থেকে কমে ১৭ পয়সা হবে। 

এক সময় বলা হয়েছিল, প্রায় ৪.৫ কোটি ক্রেতা রোজ ১৮০০ কোটি টাকার তেল কেনেন। নোট বাতিলের পরের এক মাসে ডিজিটাল লেনদেন ৪০% বেড়েছিল। তা আরও বাড়াতে ওই আর্থিক সুবিধার কথা ঘোষণা করা হয়েছিল। এখনও ডিজিটাল লেনদেনের পক্ষেই সওয়াল করছে কেন্দ্র। তাহলে কেন এই উল্টো পথে হেঁটে আর্থিক সুবিধা কমছে? তার স্পষ্ট কোনও ব্যাখ্যা অবশ্য মেলেনি। সংশ্লিষ্ট সূত্রের খবর, বাজারে ফের নগদের জোগান বেড়েছে।

 অন্যান্য পরিষেবার ক্ষেত্রেও ডিজিটাল লেনদেনে তাই আর্থিক সুবিধায় কোপ পড়তে পারে।