Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪

বাড়তি নগদ এনবিএফসি-কে

ব্যাঙ্ক নয় এমন আর্থিক সংস্থায় (এনবিএফসি) নগদের জোগানে টান পড়ার আশঙ্কায় মুখ ভার ছিল শেয়ার বাজারের।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০১৮ ০১:০৬
Share: Save:

ব্যাঙ্ক নয় এমন আর্থিক সংস্থায় (এনবিএফসি) নগদের জোগানে টান পড়ার আশঙ্কায় মুখ ভার ছিল শেয়ার বাজারের। সেই জোগান বাড়াতে ব্যবস্থা নিল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। সম্প্রতি এক বিবৃতিতে শীর্ষ ব্যাঙ্ক জানিয়েছে, যে সমস্ত এনবিএফসি পরিকাঠামোয় ঋণ দেয় না, তাদেরকে নিজেদের দেওয়া মোট ধারের ১৫% পর্যন্ত দিতে পারবে ব্যাঙ্কগুলি। আগে এই সীমা ছিল ১০%। এই নির্দেশ কার্যকর থাকবে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

বাজারে ঋণপত্র বা বন্ড ছাড়ার পাশাপাশি ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ নিয়েও তহবিল তৈরি করে এনবিএফসিগুলি। সেই টাকাই বিভিন্ন ক্ষেত্রে ঋণ দেয় তারা। কিন্তু সম্প্রতি আইএল অ্যান্ড এফএস-সহ বেশ কয়েকটি এনবিএফসি বাজার থেকে নেওয়া ঋণের টাকা মেটাতে না পারায় মূলধনী বাজারে সমস্যা দেখা দিয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, ঋণ নেওয়া ও দেওয়ার সময়ের মধ্যে সামঞ্জস্য না থাকাই আইএল অ্যান্ড এফএসের সমস্যার শিকড়। দেখা গিয়েছে, স্বল্প মেয়াদি ঋণ নিয়ে তহবিল তৈরি করে তারা ধার দিয়েছে বিভিন্ন দীর্ঘ মেয়াদি প্রকল্পে। ফলে সময়ে ঋণের টাকা মেটাতে হিমশিম এনবিএফসিটি।

এই সমস্যা সামাল দিতে এনবিএফসিগুলিকে ঋণ দেওয়ার ব্যাপারে ব্যাঙ্কগুলির উপর নানা বিধিনিষেধ জারি হয়। এখন মূলধনী বাজারের আশা, এই পদক্ষেপে সেই অবস্থার উন্নতি হবে। কিন্তু এতে আসল সমস্যা মেটা নিয়ে সন্দিহান ব্যাঙ্কিং বিশেষজ্ঞ বি কে দত্ত। তিনি বলেন, ‘‘এখন হাতে বেশি টাকা পেলেও তা ঋণ হিসেবে বণ্টনের সুযোগ কম। কারণ, ঋণের চাহিদাই তেমন নেই।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Capital Economy NBFC Banking Service
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE