Advertisement
০২ মার্চ ২০২৪
Business News

সরলেন গুগলের প্রতিষ্ঠাতা পেজ-ব্রিন জুটি, সর্বময় কর্তা হচ্ছেন সুন্দর পিচাই

বুধবার সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই ইস্তফা দিয়েছেন পেজ। ব্রিনও আর সভাপতি পদে নেই।

গ্রাফিক: তিয়াসা দাস

গ্রাফিক: তিয়াসা দাস

সংবাদ সংস্থা
সানফ্রান্সিসকো শেষ আপডেট: ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৭:২৫
Share: Save:

গুগুল-এ ল্যারি পেজ-সের্গেই ব্রিন যুগের অবসান। এ বার কার্যত গুগুলের সর্বেসর্বা হচ্ছেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত সুন্দর পিচাই। গুগলের মূল সংস্থা ‘অ্যালফাবেট’-এর এগজিকিউটিভি পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন সংস্থার দুই প্রতিষ্ঠাতা সদস্য পেজ ও ব্রিন। মঙ্গলবারই সংস্থার তরফে এই ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে এ বার অ্যালফাবেটেরও সর্বোচ্চ পদে বসছেন পিচাই।

এ যাবৎ ল্যারি পেজ ছিলেন ‘অ্যালফাবেট’-এর সিইও, সের্গেই ব্রিন প্রেসিডেন্ট। বুধবার সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই ইস্তফা দিয়েছেন পেজ। ব্রিনও আর সভাপতি পদে নেই। তাঁদের জায়গায় দায়িত্ব নিচ্ছেন সুন্দর পিচাই। অর্থাৎ নতুন এই দায়িত্ব পাওয়ার পর সংস্থার সর্বময় কর্তা হয়ে উঠলেন পিচাই।

প্রায় ২০ বছর আগে মূল সংস্থা ‘অ্যালফাবেট’ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই স্নাতক ল্যারি পেজ এবং সের্গেই ব্রিন। সেই অ্যালফাবেটের অধীনেই তৈরি হয় ‘গুগল’। প্রতিষ্ঠার পর থেকে সময় যত এগিয়েছে, জনপ্রিয়তা ও বিশ্বাসযোগ্যতার দিক থেকে নতুন নতুন মাইলফলক পার করেছে গুগল। পাশাপাশি গুগলের নামের সঙ্গে সমার্থক হয়ে উঠেছিল পেজ-ব্রিন জুটি। তাঁদের তুলনা করা হত মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস এবং অ্যাপলের প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জোবসের সঙ্গে।

আরও পডু়ন: যে কোনও পরিস্থিতির মোকাবিলায় তৈরি সেনাবাহিনী, চিন প্রশ্নে সংসদে জবাব রাজনাথের

পেজ-ব্রিন জুটির তৈরি গুগল সার্চ ইঞ্জিন কার্যত ইন্টারনেট দুনিয়ায় বিপ্লব এনে দিয়েছিল। কোটি কোটি তথ্যভাণ্ডারের মধ্যে নির্দিষ্ট তথ্য খুঁজে পাওয়ার ক্ষেত্রে এই সার্চ ইঞ্জিনের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় কার্যত অন্য সংস্থাগুলি টিকতেই পারেনি। প্রযুক্তিগত এই বিপ্লবের পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পে কর্মীদের স্বাচ্ছন্দ্য এবং কর্মক্ষেত্রের পরিবেশের ক্ষেত্রেও বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটিয়েছে গুগল। কর্মীদের জন্য বিনা পয়সায় বাস, অফিসে কাজের ফাঁকে শরীরচর্চা, বিনোদনের মতো উপকরণ যোগ করেছিলেন এই জুটি। তাঁদের তৈরি করা এই সব কর্মীবান্ধব পরিবেশ ও সুযোগ-সুবিধাই বর্তমানে সিলিকন ভ্যালিতে নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। বাকি বিশ্বের তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলিও সেই নিয়ম সাধ্যমতো পালনের চেষ্টা করে। এই জুটির ইস্তফার সঙ্গে সঙ্গেই সারা বিশ্বে তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের দুই দশকের সেই বিপ্লবে ইতি পড়ল বলেই মনে করছে তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পমহল।

আরও পড়ুন: নাগরিকত্ব বিলে সায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার, আগামী সপ্তাহেই পেশ হবে সংসদে

তামিলনাড়ুর মাদুরাইয়ের বাসিন্দা ৪৭ বছরের সুন্দর পিচাই খড়গপুর আইআইটি থেকে মেটালার্জিতে ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেছেন। তার পর ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতকোত্তর হন স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। এমবিএ করেছেন হোয়ারটন স্কুল অব ইউনিভার্সিটি থেকে। প্রায় ১৫ বছর চাকরি করছেন গুগলে। ২০১৫ সালে হয়েছিলেন গুগলের সিইও। এ বার গুগলের মূল সংস্থা অ্যালফাবেটেরও শীর্ষপদে বসে কার্যত মার্কিন এই সংস্থার সর্বেসর্বা হয়ে উঠলেন পিচাই।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE