রিজার্ভ ব্যাঙ্কের অনুমোদন না থাকা সত্ত্বেও, গুগ্‌লের লেনদেন পরিষেবা অ্যাপ গুগ্‌ল পে (জি-পে) কী ভাবে ভারতে কাজ করছে, শীর্ষ ব্যাঙ্কের কাছে তা জানতে চাইল দিল্লি হাইকোর্ট। এ নিয়ে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছিলেন অভিজিৎ মিশ্র নামে এক ব্যক্তি। তাঁর দাবি, ২০ মার্চে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক যে অনুমোদিত লেনদেনকারী সংস্থার তালিকা প্রকাশ করেছে, তার মধ্যে জি-পের নাম নেই। আবার এই পরিষেবার জেরে সাধারণ  মানুষের আধার, প্যান, লেনদেনের তথ্যও সুরক্ষিত থাকছে না। বুধবার এই মামলাতেই রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ও গুগ্‌ল ইন্ডিয়ার মতামত জানতে চেয়েছে বিচারপতি রাজেন্দ্র মেনন এবং বিচারপতি এ জে ভাম্ভানির বেঞ্চ।

অবিলম্বে গুগ্‌ল-পের পরিষেবা বন্ধ করতে রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে নির্দেশ দিতেও আর্জি জানিয়েছিলেন মিশ্র। তাঁর দাবি, এই ধরনের পরিষেবা দিতে শীর্ষ ব্যাঙ্কের অনুমোদন বাধ্যতামূলক বলেই জানিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। তা ছাড়া, ৩০ মার্চ পর্যন্ত জি-পে ভীম অ্যাপের নথিভুক্ত সহযোগী নয়। ফলে কী করে তারা এ দেশে মোবাইল লেনদেন পরিষেবা দিচ্ছে, তা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। পুরো বিষয়টিই খতিয়ে দেখে রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে উত্তর দিতে বলেছে হাইকোর্ট। এই মামলার পরবর্তী শুনানি ২৯ এপ্রিল।