Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
India Lockdown

মজুরি নিয়ে উল্টো কথা সংসদীয় কমিটির প্রস্তাবে

শিল্পে শ্রমিক-মালিক সম্পর্ক কেমন হওয়া উচিত, সেই সংক্রান্ত খসড়া বিধি পাঠানো হয়েছিল বিজেডি সাংসদ ভার্ত্রুহরি মহতাবের নেতৃত্বাধীন সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে।

—ফাইল ছবি

—ফাইল ছবি

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৫ এপ্রিল ২০২০ ০৫:৫৭
Share: Save:

করোনা-সঙ্কটের এই কঠিন সময়ে এক জন কর্মীকেও ছাঁটাই না-করার আর্জি বার বার জানিয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বলেছেন তাঁদের বেতন বা মজুরিও না-কমানোর কথা। সেই অনুযায়ী নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র। অথচ খসড়া শিল্প-সম্পর্ক বিধি খতিয়ে দেখে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সুপারিশ, কর্মী সংখ্যা ৩০০-র কম হলে, সরকারি অনুমতি ছাড়াই কর্মী ছাঁটাই বা ব্যবসা গোটানোর স্বাধীনতা দেওয়া উচিত সেই সংস্থাকে! করোনার মতো প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কারণে এই লকডাউনের সময়ে দীর্ঘ দিন কল-কারখানা বন্ধ রাখতে বাধ্য হওয়া শিল্পকে মজুরি দিতে বাধ্য করা যায় না বলেও দাবি কমিটির চেয়ারম্যানের।

শিল্পে শ্রমিক-মালিক সম্পর্ক কেমন হওয়া উচিত, সেই সংক্রান্ত খসড়া বিধি পাঠানো হয়েছিল বিজেডি সাংসদ ভার্ত্রুহরি মহতাবের নেতৃত্বাধীন সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে। অনলাইনে সেই কমিটির রিপোর্ট লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লার কাছে পেশ করেছেন তিনি। ওই সুপারিশেই ৩০০-র কম কর্মী থাকা সংস্থায় সরকারি অনুমতি ছাড়া কর্মী ছাঁটাই বা ব্যবসায় তালা ঝোলানোর পক্ষে মত দেওয়া হয়েছে। এখন যে সংখ্যা ১০০।

অথচ গোড়া থেকেই এই বিষয়টি নিয়ে সরব প্রায় সমস্ত সর্ব ভারতীয় ট্রেড ইউনিয়ন। সুপারিশে আপত্তি জানিয়ে ‘ডিসেন্ট নোটও’ দিয়েছেন সিপিএমের রাজ্যসভার সাংসদ এলামরম করিম, সিপিআইয়ের লোকসভা সদস্য কে সুব্রয়ন এবং ডিএমকে-র এন শন্মুগম।

পাশাপাশি মহতাবেরর কথায়, করোনার জেরে লকডাউনে শিল্প স্তব্ধ। এই পরিস্থিতিতে এই সময়ে মজুরি দিতে তাদের বাধ্য করা যায় না।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE