মার্কিন-চিন শুল্ক যুদ্ধের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কায় বিশ্বের বৃদ্ধির পূর্বাভাস ছাঁটাই করল ওইসিডি (অর্গানাইজেশন ফর ইকনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট)। চলতি অর্থবর্ষে বৃদ্ধি ৩.৩% থাকবে বলে আগে তাদের পূর্বাভাস ছিল। কিন্তু শুল্ক যুদ্ধ ফের শুরু হওয়ায় তা ৩.২% করল তারা।

গত বছর চিনের বিরুদ্ধে মার্কিন শুল্ক যুদ্ধ ও বেজিংয়ের প্রত্যাঘাতের জের এখনও চলছে। যার জেরে বিশ্ব জুড়ে মন্দার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন কেউ কেউ। দু’পক্ষের বৈঠকে বিতর্ক মেটার আশা দেখা দিলেও, সম্প্রতি নতুন করে দুই দেশ পরস্পরের উপরে শুল্ক বাড়ানোয় তার উত্তাপ বেড়েছে।

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

ট্রাম্প ফের চিনের বিরুদ্ধে তোপ দেগে অভিযোগ করেছেন, দশকের পর দশক চিন আমেরিকাকে কার্যত ধোঁকা দিয়ে বাড়তি আয় করেছে। অতীতে মার্কিন নেতারা চিনকে সেই বেআইনি সুবিধা দিয়েছেন বলেও তাঁর অভিযোগ। চিনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র লু কাং-এর অবশ্য দাবি, এই অভিযোগ অপেশাদার মনোভাবের পরিচয়। তাঁদের দাবি, দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যে উভয় পক্ষই উপকৃত হয়।

বেজিং-ওয়াশিংটনের এই হুমকি ও হুঙ্কারের জেরে বিশ্বের বৃদ্ধির হার নিয়ে উদ্বিগ্ন ওইসিডি। তাদের দাবি, বিতর্ক মিটিয়ে আন্তর্জাতিক সহযোগিতায় জোর দেওয়া হোক। পরিকাঠামো, ডিজিটাল প্রযুক্তি ও দক্ষতা বৃদ্ধির মতো ক্ষেত্রে লগ্নি করে ভবিষ্যতের চ্যালেঞ্জগুলির মোকাবিলা করুক বিভিন্ন দেশের সরকার।