• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

তেলের দামে আগুন, দাবি সেই জিএসটির

FUEL
প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমের দাবি, অবিলম্বে জ্বালানিকে জিএসটির আওতায় আনুক মোদী সরকার।

ডলারের সাপেক্ষে রোজ পতনে তল পাচ্ছে না টাকা। লক্ষণ নেই বিশ্ব বাজারে অশোধিত তেলের দাম কমারও। তাই দেশে পেট্রল, ডিজেলের দরে সাধারণ মানুষকে কিছুটা অন্তত স্বস্তি দিতে ফের দাবি উঠল উৎপাদন শুল্ক ছাঁটাইয়ের। একই সঙ্গে কেন্দ্রকে বাড়তি চাপে রাখতে প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমের দাবি, অবিলম্বে ওই দুই জ্বালানিকে জিএসটির আওতায় আনুক মোদী সরকার। যদিও এখনই তেমন কোনও সম্ভাবনা নেই বলেই দিল্লির দরবার সূত্রে দাবি।

মঙ্গলবারই ৩৭ পয়সা উঠে ডলার পৌঁছেছে রেকর্ড ৭১.৫৮ টাকায়। আর ডলারের গুঁতোয় কলকাতায় লিটারে ৭৪ টাকা ছাড়িয়েছে ডিজেল। পেট্রলও পৌঁছেছে ৮২.২২ টাকায়। এই অবস্থায় টুইটে চিদম্বরমের দাবি, চড়া শুল্কের জন্যই পেট্রল, ডিজেলের দর এত বেশি। তাদের জিএসটিতে আনতে উদ্যোগী হওয়া জরুরি। যদিও আদৌ ক’টি রাজ্য তা মানতে রাজি, তাতে সংশয় যথেষ্ট।

অর্থ মন্ত্রকের এক কর্তার কথায়, অশোধিত তেলের চড়া দর ও টাকার পতনে চলতি খাতে ঘাটতি বাড়বে। তা জেনেশুনে উৎপাদন শুল্ক কমাতে নারাজ তাঁরা। তাঁর মতে, ভোটের মুখে খরচে রাশ টানা শক্ত।

পেট্রল ও ডিজেলে উৎপাদন শুল্ক লিটারে যথাক্রমে ১৯.৪৮ ও ১৫.৩৩ টাকা। এ দিন কলকাতায় রাজ্যের কর ও সেস পেট্রলে প্রায় সাড়ে ১৬ টাকা। ডিজেলে প্রায় ১১ টাকা। সঙ্গে আছে ডিলারদের কমিশন। অনেকের প্রশ্ন, বিশ্ব বাজারে অশোধিত তেলের দর কম থাকাকালীন কেন্দ্র যদি উৎপাদন শুল্ক বাড়িয়ে থাকে, তবে এখন কমাবে না কেন? প্রশ্নের মুখে রাজ্যের করও।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন