অর্থনীতি হোঁচট খাওয়া নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি ও অর্থমন্ত্রী প্রণব মুখোপাধ্যায়। তবে তাঁর মতে, বৃদ্ধি ধাক্কা খেলেও ২০২৫ অর্থবর্ষের মধ্যে ভারতকে ৫ লক্ষ কোটি ডলারের অর্থনীতিতে পরিণত করা সম্ভব, যদি দু’টি শর্ত পূরণ করা যায়। এক, বিশ্ব বাজারে মুদ্রার বিনিময়মূল্য ওঠানামা করলেও, অন্তত টাকার বর্তমান দর ধরে রাখতে হবে। দুই, মূল্যবৃদ্ধি বাদ দিয়ে প্রকৃত জিডিপির ফিতেয় ৫ লক্ষ কোটির লক্ষ্য ছুঁতে হবে।

শনিবার শহরে অ্যাসোসিয়েশন অব কর্পোরেট অ্যাডভাইজ়র অ্যান্ড এগ্‌জ়িকিউটিভসের সভার মূল বক্তা ছিলেন প্রণববাবু। সভার শুরুতে প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির মৃত্যুতে শোকও প্রকাশ করেন তিনি।

গত অর্থবর্ষে বৃদ্ধি ৬.৮ শতাংশে নামায় দেশের অর্থনীতি নিয়ে সংশয় প্রকাশ করছে নানা মহল। প্রণববাবুর মতে, বিশ্ব অর্থনীতির আঁচ বাঁচিয়ে চলা ভারতের পক্ষে সম্ভব নয়। ২০০৮ সালের মন্দার সময়েও টানা ১১ মাস কমেছিল রফতানি। ২০১০ সালের প্রথম ত্রৈমাসিকের ৯.৩% থেকে গত অর্থবর্ষের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে ৫.৮ শতাংশে নেমেছে বৃদ্ধি। ২০১৭-১৮ সালের চেয়ে গত অর্থবর্ষে প্রকৃত জিডিপি কমেছে। তিনি বলেন, ‘‘গত বছর থেকে মন্দার চিহ্ন ফুটে উঠতে শুরু করেছে। এটা সকলেই জানেন, আর্থিক ব্যবস্থা দক্ষ ভাবে সামলাতে না পারলে দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি বা জিডিপির লক্ষ্য পূরণ সম্ভব নয়।’’

পাশাপাশি এ দিন বিভিন্ন ব্যাঙ্ক, কর্পোরেট সংস্থায় অনিয়মের কথাও তোলেন প্রণববাবু। বলেন, ভাবা হয়েছিল সত্যম কাণ্ড থেকে সকলে শিক্ষা নেবেন। কিন্তু তার পরেও পিএনবি, আইএল অ্যান্ড এফএসে অনিয়ম হয়েছে।