• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিনোদনেও কি শুরু রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ

mukesh
রিলায়্যান্স ইন্ডাস্ট্রিজ়ের বার্ষিক সাধারণ সভায় কর্ণধার মুকেশ অম্বানী। সঙ্গে স্ত্রী নীতা (মাঝে) এবং মা কোকিলাবেন। পিটিআই

Advertisement

সিনেমা হলে নয়। ড্রইং রুমে বসেই ফার্স্ট ডে, ফার্স্ট শো— রিলায়্যান্স ইন্ডাস্ট্রিজ়ের কর্ণধার মুকেশ অম্বানীর দেখানো স্বপ্নে অনেকের চোখ চকচক করে উঠতেই পারে। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের প্রশ্ন, ‘সস্তা’ পরিষেবার ধাক্কায় টেলিকমের পরে এ বার কেব্‌ল, ব্রডব্যান্ড-সহ বিনোদনের দুনিয়াতেও কি শুরু হবে মাসুলের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ?

রিলায়্যান্স ইন্ডাস্ট্রিজ়ের ৪২তম বার্ষিক সাধারণ সভায় মুকেশ সোমবার জানিয়েছেন, অল্প খরচে তারযুক্ত ব্রডব্যান্ড পরিষেবায় নিখরচায় দেশের মধ্যে ভয়েস কল, যৎসামান্য খরচে আন্তর্জাতিক কল, এমনকি এক বছরের জন্য গ্রাহক হলে বিনা খরচে এইচডি কিংবা এলইডি টিভি দেওয়ার কথা। বাণিজ্যিক ভাবে পরিষেবা চালু হবে ৫ সেপ্টেম্বর। আবার মুক্তির দিনেই ঘরে বসে সিনেমা দেখার পরিষেবা চালু হবে পরের বছর থেকে। ক্লাউড পরিষেবার জন্য মাইক্রোসফ্‌টের সঙ্গে গাঁটছড়াও বাঁধতে চলেছে রিলায়্যান্স।

বিশেষজ্ঞদের অনেকে বলছেন, মুকেশের নতুন উদ্যোগে বিনোদনের দুনিয়ার সংজ্ঞাই হয়তো ভবিষ্যতে পাল্টে যাবে। কিন্তু পাশাপাশি বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে হতে পারে বড় রকমের ওলটপালট। যার মধ্যে রয়েছে কেব্‌ল, ইন্টারনেট এবং মাল্টিপ্লেক্স। তাঁরা মনে করিয়ে দিচ্ছেন, মাত্র তিন বছর আগে মোবাইল পরিষেবা দিয়ে যাত্রা শুরু করেছিল জিয়ো। প্রতিশ্রুতি ছিল নিখরচায় ভয়েস কল এবং সস্তার ইন্টারনেট পরিষেবার। সেই মাসুল যুদ্ধের ডাক দিয়েই গ্রাহক সংখ্যার (৩৪ কোটি) নিরিখে জিয়ো এখন দেশে পয়লা নম্বর।। কিন্তু সেই ধাক্কায় ত্রৈমাসিকের পর ত্রৈমাসিক ক্ষতি গুনতে হচ্ছে অধিকাংশ প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থাকে। কয়েকটিকে আবার ঝাঁপও বন্ধ করতে হয়েছে।

অস্ত্র ব্রডব্যান্ড

• তারযুক্ত ব্রডব্যান্ড পরিষেবা। নাম ‘জিয়ো ফাইবার’।

• পরীক্ষামূলক ভাবে আগেই চালু হয়েছে। পৌঁছেছে প্রায় ৫ লক্ষ ঘরে।

• ৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু বাণিজ্যিক পরিষেবা।

বাজার দখলে ‘টোপ’

• ল্যান্ডলাইন ফোনে নিখরচায় ভয়েস কল।

• সস্তায় আন্তর্জাতিক কল।

• ন্যূনতম ব্রডব্যান্ড স্পিড ১০০ এমবিপিএস।

• শর্তসাপেক্ষে এইচডি বা এলইডি টিভি বিনামূল্যে। সঙ্গে সেট টপ বক্সও।

• নির্দিষ্ট কিছু প্যাকেজে মিলবে মুক্তির দিনই নতুন সিনেমা দেখার সুযোগ। এই পরিষেবা আসতে পারে আগামী বছর।

• তিন কেব্‌ল এমএসও-র (হ্যাথওয়ে, ডিএএন, জিটিপিএল) সিংহভাগ শেয়ার ইতিমধ্যেই পকেটে।

প্রশ্ন যেখানে

• টেলিকম ব্যবসায় রিলায়্যান্স জিয়ো পা রাখার পরে শুরু হয়েছে মাসুলের তীব্র লড়াই। নাভিশ্বাস প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থাগুলির।

• ওই লড়াইয়ে যুঝতে গিয়ে ঘাড়ে বিপুল দেনার বোঝা অধিকাংশ টেলি সংস্থার। ত্রৈমাসিকের পর ত্রৈমাসিক বইতে হচ্ছে বিপুল অঙ্কের ক্ষতিও।

• আশঙ্কা, এ বার কি একই রকম ছবি দেখা যাবে বিনোদনের ব্যবসায়?

• মুকেশের সংস্থার সঙ্গে এঁটে ওঠার রসদ পাবে ছোট কেব্‌ল সংস্থা?

• বাড়িতে বসেই রিলিজের দিনে সিনেমা দেখা গেলে হলমুখী দর্শকের সংখ্যা অনেক কমে যাবে না কি?

• টেলিকম শিল্পের মতো ওই সব ব্যবসাতেও কি তখন কাজ হারানোর মুখে দাঁড়াবেন বহু মানুষ?

সামান্য স্বস্তি

• প্রতিদ্বন্দ্বীদের কারও কারও অবশ্য দাবি, টেলিকম পরিষেবায় পা রাখার সময়ের মতো এ বার অন্তত একেবারে নিখরচায় পরিষেবা দেওয়ার কথা বলেনি রিলায়্যান্স। মাসুল যা বলেছে, তা চালু দরের থেকে খুব আলাদা নয়।

• বক্তব্য, এ বার যুঝতে হচ্ছে না শূন্য মাসুলের সঙ্গে।  

‘মেঘে’র আড়ালে

• স্টার্ট-আপ ও ছোট-মাঝারি সংস্থাগুলিকে ক্লাউড ও ব্রডব্যান্ড পরিষেবা।

• এ জন্য ডেটা সেন্টার তৈরি করবে রিলায়্যান্স। ক্লাউড পরিষেবার জন্য গাঁটছড়া মাইক্রোসফ্‌টের সঙ্গে।

নথিভুক্তি

• পাঁচ বছরের মধ্যে শেয়ার বাজারে নথিভুক্ত হবে জিয়ো এবং রিলায়্যান্স রিটেল।

অনেকের অবশ্য বক্তব্য, ব্রডব্যান্ড পরিষেবার পরিকাঠামো তৈরি করতে ইতিমধ্যেই বড় লগ্নি করেছে জিয়ো। সে কারণেই এ দফায় নিখরচায় পরিষেবা দিচ্ছে না তারা। সিটি কেব্‌লের কর্তা সুরেশ শেঠিয়া বলেন, ‘‘তীব্র মাসুল যুদ্ধের সম্ভাবনা এখনই দেখছি না। পরিষেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে পুরনো সংস্থাগুলিও যথেষ্ট দক্ষ।’’

পাশাপাশি ক্লাউড পরিষেবায় পা রাখছে জিয়ো। দেশে ডেটা সেন্টার গড়তে মাইক্রোসফ্‌টের সঙ্গে দীর্ঘ মেয়াদি গাঁটছড়া বাঁধছে। মুকেশের দাবি, ছোট-মাঝারি সংস্থা এবং স্টার্ট-আপের বড় খরচ হয় তথ্য সংরক্ষণে। তা-ই তিনি কমাতে চান। সে জন্য ডেটা সেন্টার গড়বেন তাঁরা। ক্লাউড দেবে মাইক্রোসফ্‌ট। সংশ্লিষ্ট সূত্রের মতে, এতে ভারতে গুগ্‌ল, অ্যামাজনের মতো সংস্থাও চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন