• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নাগপুরে বিমান যন্ত্রাংশ তৈরির কারখানা

প্রতিরক্ষায় অনিল গোষ্ঠী ঢালবে ৬৫০০ কোটি

1
অনিলের হাতে কারখানার জমির কাগজপত্র তুলে দিচ্ছেন ফডণবীশ। রয়েছেন গডকড়ীও। শুক্রবার নাগপুরে। ছবি: পিটিআই।

প্রতিরক্ষা বিমানের যন্ত্রাংশ তৈরিতে ৬৫০০ কোটি টাকার লগ্নির ঝাঁপি নিয়ে হাজির রিলায়্যান্স অনিল ধীরুভাই অম্বানী গোষ্ঠী। মহারাষ্ট্রের নাগপুরে প্রথম কারখানাটি গড়তে শুক্রবারই বিশেষ আর্থিক অঞ্চলে ২৮৯ একর জমি পেল তারা।

অনিল গোষ্ঠীরই প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত শাখা রিলায়্যান্স এরোস্ট্রাকচার লিমিটেড-কে এ দিনই ওই জমি বরাদ্দ করে মহারাষ্ট্র সরকার। সেই উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে গোষ্ঠীর কর্ণধার অনিল অম্বানীর হাতে জমি সংক্রান্ত কাগজপত্র তুলে দেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফডণবীশ। হাজির ছিলেন কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ ও জাহাজমন্ত্রী নিতিন গডকড়ী। মহারাষ্ট্র সরকারের প্রশংসা করে অনিল অম্বানীর মন্তব্য: ‘‘প্রকল্পটি প্রথম সরকারের সামনে তুলে ধরি ১৬ জুন। আর, জমি পেলাম ১০ সপ্তাহেরও কম সময়ে। এটা নিঃসন্দেহে রেকর্ড।’’ মাল্টি-মোডাল ইন্টারন্যাশনাল কার্গো হাব অ্যান্ড এয়ারপোর্ট অ্যাট নাগপুর (মিহান) বিশেষ আর্থিক অঞ্চলে বরাদ্দ ওই জমিতে তৈরি হবে ধীরুভাই অম্বানী এরোস্পেশ পার্ক। সেখানেই কারখানাটি গড়ে তোলা হবে। পরিকাঠামো ও অবস্থানগত সুবিধার কারণেই এই বিশেষ আর্থিক অঞ্চল বা এসইজেড-কে বেছে নেওয়া হয়েছে। বিমানবন্দরও নাগালের মধ্যে, ফলে যন্ত্রাংশ তৈরির পরে তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে সুবিধা হবে বলে মনে করছে সংস্থা। এখানে বিমান ও হেলিকপ্টারের ইঞ্জিনের নকশা, কাঠামো, প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে তা যুক্ত করার কাজ হবে। ভারতে বিমান তৈরিতে এক লপ্তে এই ব্যবস্থা নেই বলেই দাবি সংস্থার। বাণিজ্যিক বিমানও তৈরি করবে গোষ্ঠী।

উৎপাদন ক্ষেত্রে ১৫০০ কর্মসংস্থান তৈরি করবে এই কারখানা। পরোক্ষ ভাবে ৩৫০০ ও পরিষেবায় তৈরি হবে ৫ হাজার চাকরি।  প্রতিরক্ষায় লগ্নিতে বেশ কিছু দিন ধরেই আগ্রহী অনিল গোষ্ঠী। এই লক্ষ্যেই তারা সম্প্রতি হাতে নেয় পিপাভব ডিফেন্স অ্যান্ড অফশোর ইঞ্জিনিয়ারিংকে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন