ডলারের সাপেক্ষে ফের বাড়ল টাকার দাম। শুক্রবার মার্কিন মুদ্রাটির দাম কমেছে ৫০ পয়সা। এক ডলারের দাম দাঁড়িয়েছে ৭২.৫০ টাকা। এ নিয়ে গত দু’দিনের লেনদেনেই ডলার ৬২ পয়সা পড়ল। রফতানিকারীদের পাশাপাশি ব্যাঙ্কগুলিও এ দিন ডলার বিক্রি করেছে বলে বিদেশি মুদ্রার বাজার সূত্রের খবর। এতে মার্কিন মুদ্রাটির জোগান বেড়েছে। পড়েছে তার দাম।

শুক্রবার সকালের দিকে ডলারের দাম দ্রুত কমছিল। তবে মার্কিন শীর্ষ ব্যাঙ্ক ফেডারেল রিজার্ভের সুদের হার অপরিবর্তিত রাখার খবর তাকে কিছুটা উপরের দিকে উঠতে সাহায্য করেছে বলে বাজার সূত্রের খবর।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, ডলারের দাম আরও পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বিশেষত আমেরিকার মধ্যবর্তী নির্বাচনে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভের রাশ ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান পার্টির হাত থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে ডেমোক্র্যাটরা। ফলে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে বিভিন্ন বিষয়ে বিরোধীরা বাধা দিতে পারেন। তাই তাঁর ক্ষমতা আগের থেকে কিছুটা সীমিত হতে পারে বলে তৈরি হওয়া ধারণার প্রভাব মার্কিন মুদ্রার উপর পড়ছে বলেই মনে করছেন তাঁরা। 

অনেকের মতে, টাকার দাম বা়ড়া ও বিশ্ব বাজারে অশোধিত তেলের দর কমার প্রভাবে ভারতের চলতি খাতে ঘাটতি কমতে পারে। যার ইতিবাচক প্রভাব দেশের শেয়ার বাজারেও পড়ার সম্ভাবনা। ডলারের দাম আরও নামলে কমবে সোনার দামও।