সপ্তম দফা ভোটের মুখে শহরে ফের হিসাব বহির্ভূত প্রায় এক কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করল কলকাতা পুলিশ। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় তিন জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে দু’জন বিহারের বাসিন্দা।

তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে প্রায়ই শোনা যাচ্ছে, ভোটের সময় বাইরে থেকে লোকজন এসে টাকা ছড়াচ্ছে। এমনকি হাওলার টাকাও উড়ছে বলে অভিযোগ তৃণমূলের। হিসাব বহির্ভূত টাকা বাজেয়াপ্তের লক্ষ্যে শহর জুড়েই চলছে তল্লাশি। সম্প্রতি বিজেপি নেতা মুকুল রায়, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় টামটার গাড়িও ছাড় পায়নি।

মঙ্গলবার স্ট্র্যান্ড রোডে তল্লাশির সময় বিহারের বাসিন্দা কুণাল কুমার (২৯) এবং রাহুল কুমারকে (২৭) ঘোরাঘুরি করতে দেখে সন্দেহ হয় বড়বাজার থানার টহলরত পুলিশকর্মীদের। তাঁদের আটক করে ব্যাগ তল্লাশি করার সময়ে দু’টি ব্যাগে ৬৫ লাখ টাকা পাওয়া যায়। ওই টাকার উৎসের বিষয়ে কোনও প্রমাণ দিতে না পারায় সেই টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। পরে তাঁদের গ্রেফতারও করা হয়। 

আটক হওয়া ব্যক্তিরা। নিজস্ব চিত্র।

এ দিন দুপুরেই ওই এলাকা থেকে ৩৫ লক্ষ টাকা-সহ আরও এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়। নাম মোহন আগরওয়াল। বাড়ি বৌবাজার থানা এলাকাতেই। কী কারণে তিনি ওই টাকা নিয়ে স্ট্র্যান্ড রোডে দাঁড়িয়েছিলেন? ওই টাকার উৎসই বা কী? সে বিষয়ে কোনও সদুত্তর দিতে পারেননি মোহন। পুলিশ সূত্রে খবর, এই টাকা ভোটের কাজে ব্যবহার করার তথ্য রয়েছে। সে বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। 

আরও পড়ুন: কোটি টাকার স্থাবর সম্পত্তি, দু’টি গাড়ি, গয়না...সম্পত্তির হিসাব দিলেন মিমি