Advertisement
Back to
Presents
Associate Partners
Lok Sabha Election 2024

‘হাতে চুড়ি পরে বসে নেই পাকিস্তানও’! অধিকৃত কাশ্মীর ‘দখল’ নিয়ে ফারুক আবদুল্লার মন্তব্যে বিতর্ক

প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, “পাক অধিকৃত কাশ্মীর ভারতের সঙ্গে জুড়ে যাবে।” রাজনাথের দাবি নিয়ে ফারুককে প্রশ্ন করা হলে বিতর্কিত মন্তব্য করেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

ফারুক আবদুল্লা।

ফারুক আবদুল্লা। —ফাইল চিত্র

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৬ মে ২০২৪ ১৩:৩৭
Share: Save:

পাক অধিকৃত কাশ্মীর দখল নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের মন্তব্যের জবাব দিতে গিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন ন্যাশনাল কনফারেন্স (এনসি)-এর প্রধান ফারুক আবদুল্লা। কিছু দিন আগেই কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ বলেছিলেন, “পাক অধিকৃত কাশ্মীর ভারতের সঙ্গে জুড়ে যাবে।” রাজনাথের এই দাবি নিয়ে ফারুককে প্রশ্ন করা হলে রবিবার জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেন যে, পাকিস্তানও হাতে চুড়ি পরে বসে নেই!

স্বাভাবিক ভাবেই ভোটের সময় ফারুকের মন্তব্য নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক তৈরি হয়েছে। বিজেপির দাবি, সরাসরি পাকিস্তানের সমর্থনে কথা বলেছেন এনসি-র প্রধান। রবিবার ফারুক সংবাদমাধ্যমের সামনে রাজনাথের মন্তব্য প্রসঙ্গে বলেন, “প্রতিরক্ষামন্ত্রী যদি এটা বলে থাকেন, তবে এগোতেই পারেন। কে তাঁকে বাধা দিয়েছে? কিন্তু মাথায় রাখতে হবে পাকিস্তানও হাতে চুড়ি পরে বসে নেই। তাদের কাছে পারমাণবিক বোমা আছে এবং দুর্ভাগ্যজনক ভাবে সেটা আমাদের উপরেই এসে পড়বে।”

ফারুকের দলের কেউ কেউ অবশ্য তাঁর বক্তব্যের ব্যাখ্যা করে দাবি করছেন, দুই পরমাণু শক্তিধর দেশের মধ্যে লড়াই শুরু হলে তার পরিণতি যে ভয়ঙ্কর হতে পারে, সে কথাই বোঝাতে চেয়েছেন ফারুক। তার পরেও অবশ্য বিতর্ক থামছে না।

গত এপ্রিলে দার্জিলিঙে বিজেপি প্রার্থী রাজু বিস্তার সমর্থনে জনসভা করতে এসে রাজনাথ বলেছিলেন, “চিন্তা করবেন না। পাক অধিকৃত কাশ্মীর আমাদেরই আছে আর ভবিষ্যতেও থাকবে। গত রবিবার রাজনাথের সুরে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেন, “পাক অধিকৃত কাশ্মীর ভারতের অংশ। সংসদে প্রস্তাব পাশ করিয়ে বলা হয়েছে ওটি ভারতেরই অংশ।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE