Advertisement
Back to
Presents
Associate Partners
Lok Sabha Election 2024

রাহুলের সই জাল! বাংলার কংগ্রেস প্রার্থীর উদ্দেশে লেখা চিঠি ছড়িয়ে পড়ল, কমিশনে অভিযোগ

নজরে আসতেই চিঠির বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানিয়েছে কংগ্রেস। তারা পুলিশেও অভিযোগ দায়ের করেছে। ভাইরাল হওয়া চিঠিটি তৃণমূলের তরফে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ কংগ্রেসের।

Rahul Gandhis fake letter viral in Maldah, congress filed complaint in Election commission

ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৬ মে ২০২৪ ২১:০০
Share: Save:

রাত পোহালেই মালদহের দু’টি আসনে ভোট। ঠিক তার আগের দিন সোমবার রাহুল গান্ধীর সই জাল করা একটি চিঠি ভাইরাল হল মালদহে। নজরে আসতেই চিঠির বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানিয়েছে কংগ্রেস। দলের তরফে ইংরেজবাজার থানাতেও অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এই ভাইরাল হওয়া চিঠিটি তৃণমূলের তরফে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে কংগ্রেস। যদিও, এই ঘটনায় তাঁরা কোনও ভাবেই যুক্ত নয় বলে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেছে তৃণমূল।

রবিবার সুজাপুরে প্রচারে এসেছিলেন কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি মল্লিকার্জুন খড়গে। সোমবার সকাল থেকে মালদহ জেলাতে এই চিঠিটি ভাইরাল হতে শুরু করে। বাংলায় লেখা সেই চিঠির নীচে রাহুল গান্ধীর স্বাক্ষর গোচরে আসে কংগ্রেসের নেতা-কর্মীদের। ওই চিঠিটি লেখা হয়েছিল মালদহ দক্ষিণের কংগ্রেস প্রার্থী ইশা খান চৌধুরীকে উদ্দেশ্য করে। তাতে লেখা হয়েছিল, ‘‘আপনি মালদহ দক্ষিণ আসনটি ধরে রাখতে প্রিয়ঙ্কা গান্ধীকে প্রচারের জন্য পাঠাতে অনুরোধ করেছেন। কিন্তু আমরা ৫ মে সভাপতি খড়গেকে প্রচারে পাঠাচ্ছি।’’

২০২৪ লোকসভা নির্বাচনের সমস্ত খবর জানতে চোখ রাখুন আমাদের 'দিল্লিবাড়ির লড়াই' -এর পাতায়।

চোখ রাখুন

চিঠিটি নজরে আসতেই প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্বকে বিষয়টি জানায় মালদহ জেলা কংগ্রেস। বিধান ভবন থেকে স্থানীয় থানায় অভিযোগ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়। সেই নির্দেশ মতো ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয় জেলা কংগ্রেসের তরফে। সঙ্গে জানানো হয়, প্রার্থী ইশার তরফ থেকে এআইসিসি-তে প্রিয়ঙ্কাকে প্রচারে পাঠানোর জন্য কোনও আবেদন করা হয়নি। কে প্রচারে আসবেন তা ঠিক করার দায়িত্ব এআইসিসির উপরেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল। সেই মতোই ৫ তারিখ রবিবার সুজাপুরে প্রচার করে গিয়েছেন খড়গে।

ভুয়ো চিঠির বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দায়ের করেন প্রদেশ কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক আশুতোষ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘‘এমন ঘৃণ্য কাজ করেছে বাংলার শাসকদল তৃণমূল। গত বার তারা মালদহ দক্ষিণ কেন্দ্রে তৃতীয় হয়েছিল। এ বারও তারা লড়াইয়ে নেই, তাই আমাদের লড়াইকে দুর্বল করতে তৃণমূলই এমন রাহুল গান্ধীর সই জাল করা চিঠি ছড়িয়ে দিয়ে ভোটারদের মধ্যে বিভ্রান্তি তৈরি করতে চেয়েছে।’’ কংগ্রেসের এমন অভিযোগের জবাব দিয়েছে তৃণমূলও। ইংরেজবাজার পুরসভার চেয়ারম্যান তথা প্রবীণ তৃণমূল নেতা কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরী বলেন, ‘‘রাহুল গান্ধী একজন সর্বভারতীয় নেতা। আমরা তাঁর সই জাল করতে যাবই বা কেন? কংগ্রেসের অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। আমাদের কোনও প্রয়োজন পড়েনি যে কারও সই জাল করে ভোটে জিততে হবে। আমাদের প্রার্থী মালদহের মানুষের সমর্থন পেয়েই জয়ী হবেন। আমাদের কাউকে প্রবঞ্চনা করার প্রয়োজন নেই।’’

প্রসঙ্গত, গত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরীকে হারিয়ে জয়ী হয়েছিলেন কংগ্রেসের আবু হাসেম খান চৌধুরী। মাত্র আট হাজার ভোটের ব্যবধানে জেতেন তিনি। তৃতীয় স্থানে শেষ করেছিল শাসকদল তৃণমূলের প্রার্থী মোয়াজ্জমে হোসেন। এ বারের লোকসভা ভোটে কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন বিদায়ী সাংসদের পুত্র ইশা। আর বিজেপি প্রার্থী করেছে গতবারের বিজিত প্রার্থী তথা ইংরেজবাজারের বর্তমান বিধায়ককে। আর তৃণমূলের তরফে রয়েছেন অধ্যাপক শাহনাওয়াজ আলি রাইহান।

২০২৪ লোকসভা নির্বাচনের সমস্ত খবর জানতে চোখ রাখুন আমাদের 'দিল্লিবাড়ির লড়াই' -এর পাতায়।

চোখ রাখুন
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE