• মৌসুমী বিলকিস
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বন্ধ হচ্ছে ‘বকুল কথা’, শুরু হবে নতুন ধারাবাহিক ‘ফিরকি’

bokulkotha
হানি বাফনা এবং ঊষসী রায়।

Advertisement

শেষ হল শুটিং। ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই শেষ হচ্ছে ‘বকুল কথা’র সম্প্রচার। ৬৭৩ এপিসোড পর্যন্ত চলবে ধারাবাহিকটি। সাধারণ মেয়ে বকুলের গল্প দর্শকের মন জয় করেছে। জনপ্রিয়তা সঙ্গী করেই নায়িকা বকুল সাধারণ গৃহবধূ থেকে হয়ে উঠেছে পুলিশের ওসি। এরকম এক সফল জায়গায় দাঁড়িয়ে ধারাবাহিকটি শেষ হল কেন?

প্রযোজনা সংস্থা ‘অ্যাক্রোপলিস’-এর পক্ষ থেকে প্রযোজক স্নিগ্ধা বসু বললেন, “কোনও সিরিয়াল শুরু হলে সুন্দরভাবে শেষ হওয়াটাও খুব দরকার। আমার মনে হয় গল্পটা সুন্দরভাবে শেষ করলে লোকের মনে থেকে যায়। সেই জায়গা থেকে চ্যানেল ও আমরা স্থির করি একটা সুন্দর গল্পে গিয়ে শেষ করার।”

বকুল উচ্চ মাধ্যমিক পাশ না করেই তার লড়াই জারি রেখেছে। পাশে পেয়েছে শ্বশুরবাড়ির মানুষদেরও। জীবনের ওঠাপড়া কাটিয়ে আজ সে পুলিশ অফিসার। বকুলের জার্নির পাশে সব সময় থেকেছে ঋষি, বকুলের স্বামী। আশাপূর্ণা দেবীর উপন্যাসের বকুলকেও দেখা গিয়েছিল নিজের যুগের থেকে অনেক এগিয়ে থাকা এক নারী হিসেবে (‘বকুল কথা’)। আশাপূর্ণা দেবীর বকুলের মতোই ধারাবাহিকের বকুলও কখনও কখনও প্রথাগত ধারণার বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা এক মেয়ে।

আরও পড়ুন-‘দীপিকার পোশাক পরে চলে এসেছ?’ লুজ প্যান্ট পরে চরম ট্রোলের শিকার রণবীর

তাই স্নিগ্ধা বলেন, ‘‘বকুল’ হয়তো টেলিভিশনে প্রথম গল্প ছিল যাতে নায়িকার ছোট ছোট চুল, প্যান্ট-শার্ট পরে ঘুরে বেড়ায়, বাইক চালায়, ছেলেদের সঙ্গে ‘তুই-তোকারি’ করে কথা বলে। সে বিয়ে করে সংসার করবে আর এরকম জায়গায় পৌঁছবে কেউ ভাবতে পারেনি।”

বকুল এবং ঋষির ভূমিকায় ঊষসী রায় এবং হানি বাফনা। এতদিনের দীর্ঘ কাজ শেষ। অনুভূতি কী বলছে? হানি বললেন, “একদমই ভাল লাগছে না। দর্শকের এত ভালবাসা পেয়েছি, এরপর পাব কিনা জানি না।”

ঊষসীর অনুভূতি ভিন্ন: “উচ্চ মাধ্যমিক বা মাধ্যমিক পরীক্ষার পর যে ফিলিং হয়, মানে একটা মিক্স ফিলিং... দুঃখ-আনন্দ দুটো মিলিয়ে।”  

ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই শেষ হচ্ছে ‘বকুল কথা’র সম্প্রচার

ধারাবাহিকের পরিচালক সৌমেন হালদার জানালেন, “বকুল কথা’ আমাদের কাছে একটা ফ্যামিলি ছিল। প্রত্যেকে চরিত্র হয়ে উঠেছে, কাউকে আর অভিনয় করতে হয়নি। ঊষসীকে আমরা ডাকতামই ‘বকুল’ বলে। হানিকে ‘ঋষি’ বলেই ডেকেছি। কাজটা শেষ হয়ে যাওয়াতে সত্যি খুব খারাপ লাগছে।”

একটা কাজ শেষ হলে পরের কাজ বিষয়ে কথা আসবেই। কী ভাবছেন হানি? তিনি বেশি ভাঙলেন না, “অনেকগুলো কথা চলছে। দেখা যাক। ছোট চরিত্রে হলেও ‘নেতাজী’ সিরিয়ালে একবার অন্তত কাজ করতে চাই। এত সুন্দর অভিনয় করে সবাই! আমি মুগ্ধ। বেশিরভাগ সময় আমরা লাউড অভিনয় করতে বাধ্য হই। সেটাই চাওয়া হয়।”

আরও পড়ুন-বিয়ে করলেন ক্যাটরিনা? কন্যাদানে স্বয়ং অমিতাভ!

ঊষসীর কোনও প্ল্যান নেই, “আমার জীবনে প্ল্যান করে কিছু হয় না। টানা দু’বছর দু’মাস কাজ করলাম। একঘেয়েমি চলে আসে। একটু রেস্ট নিতে হবে। না হলে নতুন কাজে ঢুকেও, ভাল করে করতে পারব না।”

রাত ৯টার স্লটে ‘বকুল কথা’-র জায়গায় ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে দেখা যাবে নতুন ধারাবাহিক ‘ফিরকি’। ধারাবাহিকটি দেখাবে সমাজের প্রান্তিক মানুষের গল্প, যাদের সমাজ ‘হিজড়ে’ বলে চেনে। টেলিভিশনের গল্প হিসেবে অভিনব, সন্দেহ নেই। দর্শক কী ভাবে নেবেন তারই অপেক্ষায় গোটা ইউনিট।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন