• মৌসুমী বিলকিস
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

টিআরপি তালিকায় রাজত্ব করছেন দুই ‘কালো মেয়ে’, শ্যামা ও ত্রিনয়নী, কী বলছেন তাঁরা?

main
তিয়াসা এবং শ্রুতি। নিজসব চিত্র।

‘কৃষ্ণকলি’ এবং ‘ত্রিনয়নী’। দুই ধারাবাহিকই টিআরপি তালিকার প্রথম দিকে। দুই ধারাবাহিকই কালো মেয়ের গল্প বলে। প্রথমটি এক নম্বর থেকে পিছিয়ে পড়লেও চলতি সপ্তাহের তালিকায় দু’নম্বরে। অন্য দিকে, ‘ত্রিনয়নী’ নতুন ধারাবাহিক হয়েও পৌঁছে গিয়েছে এক নম্বরে। রেসিজম নিয়ে কী ভাবেন দুই নায়িকা শ্যামা ও ত্রিনয়নী?

‘ত্রিনয়নী’ ধারাবাহিকের নায়িকা ত্রিনয়নী বা নয়ন (শ্রুতি দাস) বললেন, “হ্যাঁ, দুই সিরিয়ালের নায়িকাই ডাস্কি। দুই সিরিয়ালের নায়িকাকে ডাস্কি দেখানো হয় ঠিকই, কিন্তু তিয়াসাকে মেকআপ করে ডাস্কি করতে হয় আর আমি রিয়েল লাইফেই ডাস্কি। যেমন আমাদের দেশে রেপ ডেসট্রয় করতে পারছি না, রেসিজমও ডেসট্রয় করা কঠিন।”

‘কৃষ্ণকলি’র নায়িকা শ্যামা, তিয়াসা রায় যোগ করলেন, “আমাদের দু’জনের মোটিভেশনটা কোথাও যেন একই। মানুষকে এটাই বোঝাতে হবে যে গায়ের রংই শেষ কথা নয়। ভেতরটাই আসল।”

আরও পড়ুন-উচ্চতা, মুখশ্রী নিয়ে ‘ঠাট্টা-তামাশা’, নেহার কাছে ক্ষমা চাইলেন কমেডিয়ান গৌরব

শ্রুতির সঙ্গে কথা হয়? তিয়াসা বললেন, “খুব কম। মজা হয়েছে কি... ‘বকুল কথা’-র একটা গল্পে আমরা সবাই একসঙ্গে শুট করছিলাম। আমার চরিত্রের টোন যেহেতু কালো, থার্মোকল দেওয়া হচ্ছিল (আলো বাড়ানোর জন্য)। আমি বলছিলাম, ‘কারওর থার্মোকল লাগে না, শুধু আমারই লাগে।’ তখন শ্রুতি আমাকে বলছিল, ‘‘না গো, আমার সিরিয়ালেও কারওর থার্মোকল লাগে না, শুধু আমারই লাগে।’’ এই সব বলে আমরা খুব হাসছিলাম। ওর সঙ্গে আমার খুব ভাল বন্ডিং হয়ে গিয়েছে।”

‘ত্রিনয়নী’-এর নয়ন শ্রুতি দাস 

‘ত্রিনয়নী’ কেন প্রথম? শ্রুতি বললেন, “সমস্ত সিরিয়ালই ভাল হয়। কিন্তু দর্শক কোনটা কখন সুইচ অন সুইচ অব করে সেটা তো আমাদের ধারণার বাইরে। আমার মনে হয়, স্টোরি যখন যার ক্যাচি হবে দর্শক তখন সেটার দিকে ঝুঁকবে। এই মুহূর্তে ‘ত্রিনয়নী’ হয়তো দর্শকের ক্যাচি লাগছে, হয়তো মোটিভেটেড হচ্ছে দর্শক। তাই ‘ত্রিনয়নী’ বেশি দেখছে। অন্য দিকে, অদিতি মুন্সির গলায় ভীষণ সুন্দর গান... তিয়াসার সঙ্গে ভীষণ ভাবে ম্যাচ করে। এটা দর্শকের কাছে খুব হৃদয়গ্রাহী হয়েছে বলেই ‘কৃষ্ণকলি’ এত সপ্তাহ ধরে টিআরপি তালিকায় টপ লিস্টে ছিল। এখন ‘ত্রিনয়নী’ যুগ্ম ভাবে ‘রাসমণি’র সঙ্গে প্রথম।”

তিয়াসার সঙ্গে কি আপনার প্রতিযোগিতা আছে? শ্রুতি: “কোনও প্রতিযোগিতা নেই। প্রতিযোগিতা জিনিসটাকেই আমি বিশ্বাস করি না। তিয়াসাকে শুভেচ্ছা রইল। কারণ আমার মতো ওরও অভিনয় জীবনের প্রথম। আমি চাইব, ও অনেক কাজ করুক, ওর খুব ভাল হোক, ওর ম্যারেড লাইফ সুখের হোক, ইন্ডাস্ট্রিতে ও রাজ করুক।”

আরও পড়ুন-এক রবিবারের গল্প যা বদলে দেবে দু’টো জীবন: প্রথম পর্ব

তিয়াসা রায় 

‘ত্রিনয়নী’ রেটিং তালিকায় আপনাদের থেকে এগিয়ে। শ্রুতিকে কী বলবেন? তিয়াসা বললেন, “আমি ওকে শুভেচ্ছা জানাব, আরও যেন ভাল করে। ক্লাসে ফার্স্ট, সেকেন্ড, থার্ড কেউ না কেউ হবেই। পজিশন রোটেট হতে থাকবে। আশা করব, আমরা আবারও ফার্স্ট পজিশনে যাব, কৃষ্ণের কাছে এটাই প্রার্থনা।”

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন