Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

উচ্চতা, মুখশ্রী নিয়ে ‘ঠাট্টা-তামাশা’, নেহার কাছে ক্ষমা চাইলেন কমেডিয়ান গৌরব

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৫:৫০
গায়িকা নেহা কক্কর। ছবি: ফেসবুক

গায়িকা নেহা কক্কর। ছবি: ফেসবুক

গায়িকা নেহা কক্করের কাছে ক্ষমা চাইলেন কমেডিয়ান গৌরব গেরা ওরফে ‘চুটকি’। নিজেকে অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত করে গৌরব জানান, নেহা কষ্ট পান এমন কিছু করার কোনও উদ্দেশ্যই তাঁর ছিল না।

কী হয়েছিল আদপে? উচ্চতা বেশি না হওয়ায় রিয়েলিটি শো-র মঞ্চে গায়িকা নেহা কক্করকে অনুকরণ করে ঠাট্টা-তামাশায় মত্ত হয়েছিলেন কমেডিয়ান গৌরব গেরা এবং কিকু শরদা। নেহা কক্করের নাম সরাসরি ব্যবহার করা না হলেও নেহার উচ্চতার জন্য চরিত্রের নাম রাখা হয় ‘ছোটু’। শুধু তাই নয়, সেখানে এক চরিত্রকে বলতে শোনা যায়, “এ রকম দেখতে এক জনের সঙ্গে যখন গান গাইতে যাও, মাইক তোমায় দেখে মুখ ঘুরিয়ে নেয় না?”

টেলিভিশনে ওই শো ব্রডকাস্ট হতেই তীব্র নিন্দায় ফেটে পড়েন নেহা। সরব হন তাঁর ভাই টনি কক্করও। নেহা লেখেন, “আমার গানে এত মজা কর, আমার গান তোমাদের প্রেমে পড়তে শিখিয়েছে, আবার আমার নামেই এ রকম অপপ্রচার কর, লজ্জা করে না তোমাদের? যারা আমাকে চেনো, তারা নিশ্চয়ই জান যে আমায় নিয়ে মজাকে আমি প্রশ্রয় দিয়ে থাকি। কিন্তু তাই বলে এ সব কী?”

Advertisement



প্রতিবাদে সোচ্চার টনি কক্কর।

অন্য দিকে টনিও লেখেন, ‘ছোট শহর থেকে উঠে আসা একটি মেয়েকে এ ভাবে সম্মান দেখাও তোমরা? এত কষ্ট করে জীবনে সব কিছু পেয়েছে সে। উচ্চতা কম হওয়ার জন্য অনেক প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখিও হতে হয়েছে তাকে। তোমরা কি বুঝতে পার, মজা-তামাশার নামে কোনও মানুষকে নিয়ে এমন মন্তব্য করলে তাঁর মনের উপর দিয়ে কী রকম ঝড় বয়ে যায়?’

নেহার অনুরাগীরাও এই ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন। কী করে কাউকে এ ভাবে বডিশেমিং করা যেতে পারে, মজা করার উদ্দেশ্য কি কাউকে ছোট করা— প্রশ্ন তোলেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: রহস্য বেশি, রোমাঞ্চ কম

এর পরেই এক সংবাদমাধ্যমকে গৌরব বলেন, “আমি কখনওই নেহাকে আঘাত করতে চাইনি। আমি নিজেও ওঁর ভক্ত। নেহা এক জন রকস্টার। আমার নিজের উচ্চতাও আহামরি নয়। আমি ও ভাবে ওঁকে বলতে চাইনি। আমার কোনও যোগ্যতাই নেই নেহা সম্পর্কে খারাপ মন্তব্য করার।’’

আরও পড়ুন: দাম্পত্যের ১১ বছরে ভাঙে প্রথম বিয়ে, অভিনেত্রী-শিক্ষিকা মিথিলা সমাজকর্মীও

গৌরব জানান, ওই টেলিভিশন চ্যানেলকে তিনি এবং কিকু ওই সংলাপ বদলানোর জন্যও অনুরোধ করেন। কিন্তু চ্যানেল শোনেনি।

যদিও গোটা ঘটনায় প্রথমে রেগে গেলেও পরে নেহা লেখেন, “হ্যাঁ, খারাপ লেগেছিল আমার। তবে আজ নতুন দিন। নতুন ভাবে ভাবার দিন। যাঁরা পাশে দাঁড়িয়েছিলেন তাঁদের ধন্যবাদ।”

আরও পড়ুন

Advertisement