Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

‘তিনি না থাকলে রাশিয়ার জেলে ঢুকতে হত!’ নানা ভাবে সুষমাকে স্মরণ বলিউডের

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৭ অগস্ট ২০১৯ ১২:৫৪
শোকস্তব্ধ বলিউড। গ্রাফিক: তিয়াসা দাস

শোকস্তব্ধ বলিউড। গ্রাফিক: তিয়াসা দাস

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে নয়াদিল্লির এমস-এ আচমকাই মৃত্যু হয় প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের। তাঁর আকস্মিক প্রয়াণে বলি মহল শোকস্তব্ধ। লতা মঙ্গেশকর থেকে অনুপম খের, শাবানা আজমি থেকে অনুরাগ কাশ্যপ— মঙ্গলবার গভীর রাত থেকেই সকলের টুইটারের দেওয়াল ভরে উঠেছে ‘সুপার মম’-এর জন্য শোকবার্তায়।

নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একটি লাইভ ভিডিও শেয়ার করে মঙ্গলবার রাতেই অনুপম লেখেন, ‘সুষমার মতো একজন সৎ,আদর্শবান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব আর নেই।’অনুপমএই মুহূর্তে নিউ ইয়র্কে। ঘটনার আকস্মিকতায় এতটাই স্তম্ভিত যে কিছুটা হালকা হতেই তাঁর এই টুইটার লাইভ, এ কথাও জানান অনুপম।

Advertisement

টেলি অভিনেতা কর্ণবীর বোহরা লেখেন,“তাঁর জন্যই কোনও ভারতীয়কে বিদেশে অসুবিধের মধ্যে পড়তে হয়নি।” পুরনো প্রসঙ্গ তুলে এনে কর্ণবীর আরও লেখেন, মস্কোতে গিয়ে তিনি একবার পাসপোর্ট সমস্যায় পড়েছিলেন।তখন সুষমা স্বরাজই তাঁর জন্য সাময়িক পাসপোর্ট এবং ভিসার ব্যবস্থা করেছিলেন।“তিনি না থাকলে রাশিয়ার জেলে কাটাতে হত আমায়,”লেখেন কর্ণবীর।


লতা মঙ্গেশকর টুইটে লেখেন, ‘গান- কবিতার প্রতি অনুরক্ত, একজন আদর্শবান নেতার অকাল প্রয়াণে আমি শোকস্তব্ধ। খুব ভাল বন্ধু ছিলেন আমার। সারাজীবন তোমায় মনে রাখব।’



অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত লেখেন, “ বরাবরই আমার কাছের মানুষ ছিলেন তিনি। সেই শুরুর দিন থেকেই পাশে পেয়েছি। দেশের বিরাট ক্ষতি হল।”


মতাদর্শগত দিক দিয়ে বিভেদ থাকলেও বা চিরকালই গেরুয়া শিবিরের বিপরীতে হাঁটলেও অভিনেত্রী শাবানা আজমিও টুইটারে লেখেন, ‘রাজনৈতিক বিভেদ থাকলেও সুষমার সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্ক বেশ ভালই ছিল আমার। তাঁর নবরত্নের মধ্যে আমি ছিলাম একজন। ’

আরও পড়ুন: ৩৭০-এর জের! কাশ্মীরে বন্ধ হতে পারে বলিউডের ছবির শ্যুটিং


এ ছাড়াও দালের মেহেন্দি, পরিচালক মধুর ভাণ্ডারকর, অর্জুন কপূর সকলেরই টুইটারের দেওয়াল ভেসে গিয়েছে প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রীর প্রতি স্মৃতিচারণায়, শোক বার্তায়।


পেশায় আইনজীবী সুষমা স্বরাজ এক সময় সুপ্রিম কোর্টেও প্র্যাকটিস করেছেন। অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ (এবিভিপি)-এর হাত ধরে রাজনীতিতে প্রবেশ তাঁর। জরুরি অবস্থার পর যোগ দেন বিজেপিতে। আর অল্প দিনের মধ্যেই জাতীয় স্তরের রাজনীতিক হিসাবে মানুষের মনে জায়গা করে নেন।২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলে, বিদেশ দফতরের দায়িত্ব হাতে পান সুষমা।

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement