Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Dilip Kumar Death: দিলীপ সাব মনে করতেন, আমি অস্কার পাওয়ার যোগ্য: অমিতাভ বচ্চন

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৭ জুলাই ২০২১ ১৫:১০
অমিতাভ বচ্চন ও দিলীপ কুমার

অমিতাভ বচ্চন ও দিলীপ কুমার

মাত্র একটি ছবিতে পর্দা ভাগ করেছিলেন বলিউডের দুই কিংবদন্তি— দিলীপ কুমার-অমিতাভ বচ্চন। ১৯৮২ সালে রমেশ সিপ্পির ‘শক্তি’ ছবিতে তাঁরা বাবা-ছেলে। এই একটা ছবি দুই প্রজন্মের মধ্যে বরাবরের জন্য সেতু বেঁধে দিয়েছিল। শেষ দিন পর্যন্ত কিংবদন্তি দিলীপ কুমারের কাছে অমিতাভ বচ্চন সন্তানসম। বিগ বি-র চোখে তিনি পিতা! বুধবার ভোরে কিংবদন্তি অভিনেতার মৃত্যুর খবর ছড়াতেই শোকস্তব্ধ ‘শাহেনশা’। আন্তরিক ভাষায় অমিতাভ বচ্চন শোকবার্তা পাঠিয়েছেন দিলীপ কুমারের ঘরনি সায়রা বানুকে। টুইটে তাঁর দাবি, ‘এক প্রতিষ্ঠান যেন স্তব্ধ হয়ে গেল!' পাশাপাশি, এ দিন সংবাদমাধ্যমের চর্চায় আরও একটি খবর। ২০১৮-য় সঞ্জয় লীলা ভন্সালী পরিচালিত ‘ব্ল্যাক’ ছবির ১৩ বছর পূর্তিতে অমিতাভকে চিঠি লিখেছিলেন দিলীপ কুমার। সেই চিঠি সামনে এনে বিগ বি জানিয়েছিলেন, ‘দিলীপ সাব মনে করতেন, আমি অস্কার পাওয়ার যোগ্য।'

শোকবার্তায় অমিতাভের আরও দাবি, ‘যখনই ভারতীয় ছবির ইতিহাস লেখা হবে, তখনই দুটো বাক্যাংশ দিলীপ কুমারের জন্য আলাদা করে ব্যবহার করা হবে। সেগুলি হল-- দিলীপ কুমারের আগে এবং দিলীপ কুমারের পরে।' সায়রা বানুর উদ্দেশে তাঁর বার্তা, এই শোক সহজে ভোলার নয়। ঈশ্বরের কাছে আন্তরিক প্রার্থনা, যেখানেই থাকুন শান্তিতে থাকুন দিলীপ সাব। সর্বশক্তিমান যেন প্রবীণ অভিনেতার পরিবারকে এই শোক সামলে ওঠার শক্তি দেন।

Advertisement
দিলীপ কুমারের সঙ্গে আমিতাভ বচ্চন

দিলীপ কুমারের সঙ্গে আমিতাভ বচ্চন


দিলীপ কুমার-অমিতাভ বচ্চনের সম্পর্ক বর্ণনা করতে গিয়ে বুধবার বিভিন্ন বলিউড সংবাদমাধ্যম তুলে ধরেছে ২০১৮-য় উভয় অভিনেতার পারস্পরিক চিঠি আদানপ্রদানের ঘটনা। কী হয়েছিল সেই বছর? ওই বছর রানি মুখোপাধ্যায়, অমিতাভ বচ্চন অভিনীত ‘ব্ল্যাক’ ছবিটি ১৩ বছরে পা রাখে। সেই সূত্রে একটি চিঠি দিলীপ সাব লিখেছিলেন তাঁর প্রিয় অভিনেতাকে। দিলীপ কুমারের থেকে চিঠি পেয়ে উচ্ছ্বসিত অমিতাভ টুইট করে সেই চিঠি পাওয়ার আনন্দ ভাগ করে নিয়েছিলেন অনুরাগীদের সঙ্গে। সেখানে কিংবদন্তি অভিনেতা লিখেছিলেন, ‘আপনার ব্লগের প্রতিটি ছত্রে আমার কথা। আমার অভিনয়ের সূক্ষ্ম বিশ্লেষণ। অকুণ্ঠ প্রশংসা। সায়রা প্রথম ব্লগটি পড়ে। তার পরেই আমাকে পড়ায়। ওর চোখ দুটো আনন্দাশ্রুতে তখনও ভিজে! সেই ব্লগ এক বার পড়ে আমার আশ মেটেনি। তৃপ্তি পেতে বার বার আপনার লেখা পড়েছি। জেনে গর্ব হয়েছে, আপনার মতো ব্যক্তিত্ব আমার প্রতি এত আগ্রহী। পাশাপাশি, আপনি মনে করিয়ে দিয়েছেন পর্দায় ‘শক্তি’ ছবির হাত ধরে আমাদের বাবা-ছেলে হয়ে ওঠার গল্পও।’


তিনি বলেন, এক শিল্পীর প্রতি আরেক শিল্পীর এই শ্রদ্ধা, সম্মান-ই বাঁচিয়ে রেখেছে শিল্প জগৎকে। দিলীপ কুমার ‘ব্ল্যাক’ ছবি নিয়ে নিজের ভাবনার কথাও জানান। লেখেন, ছবি মুক্তির দিন তিনি আর সায়রা বানু আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে ‘ব্ল্যাক’ দেখতে গিয়েছিলেন। ছবি শেষে হয়ে পর্দা পড়ে যাওয়ার পরেও তিনি অনেকক্ষণ কোনও কথা বলতে পারেননি। পরে সায়রাকে জানিয়েছিলেন, এই ছবি বিশ্বমানের। অমিতাভ অভিনীত চরিত্রটি অস্কার পাওয়ার উপযুক্ত!


শুধু এই একটি ছবিই নয়, দিলীপ কুমারের দাবি, আন্তর্জাতিক মানের একাধিক ছবিতে অমিতাভ বচ্চন অভিনয় করেছেন। সেগুলিও অস্কারের মনোনয়ন পাওয়ার যোগ্য ছিল।

আরও পড়ুন

Advertisement