ক্যামেরার সামনে তিনি সাবলীল। কিন্তু মাইক হাতেও যে সমান সাবলীল তা এত দিন অজানা ছিল দর্শকদের। এ বার তাও করে দেখালেন। তিনি স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। মাইক হাতে গেয়ে উঠলেন, ‘আমার প্রাণের পরে চলে গেল কে…’।

কিন্তু উপলক্ষটা কী?

আরও পড়ুন, ‘আমি যে এতটা সিডাকটিভ হতে পারি জানতাম না’

বাবা সন্তু মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে জুটি বেঁধে গত ৪ মে অনলাইন রিলিজ হয়েছে স্বস্তিকার প্রথম রবীন্দ্রসঙ্গীতের অ্যালবাম ‘আমার মুক্তি আলোয় আলোয়’। সৌজন্যে মেজর সেভেন্থ। রবিবার শহরের এক পাঁচতারা হোটেলে রিলিজ হল রবীন্দ্র গানের এই সিডি।

স্বস্তিকার কথায়, ‘‘বাবার কাজের কোনও আর্কাইভ নেই আমার কাছে। একার হলে হয়তো এত কিছু হত না। বাবার জন্যই এ সব হল। আর ফাইনালি মায়ের স্মরণে কিছু করতে পারলাম এটা ভেবেই ভাল লাগছে। সবটাই হল কিন্তু মা দেখে যেতে পারল না।’’

সিডি লঞ্চে সন্তু মুখোপাধ্যায় এবং স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।

সন্তু বললেন, ‘‘গান তো আমি আগেও অনেক গেয়েছি। কিন্তু এ ভাবে কিছু হয়ে ওঠেনি। মেয়ের জোরাজুরিতেই এ সব হল।’’ এ দিনের অ্যালবাম লঞ্চে তিনিও একটি রবীন্দ্রসঙ্গীত গেয়েছেন। একটি গানে গলা মিলিয়েছেন দু’জনেই।

আরও পড়ুন, ব্যক্তিগত জীবনেও ‘অসমাপ্ত’ সম্পর্ক রয়েছে, রয়েছে খারাপ লাগাও

অ্যালবামে থাকছে মোট ছ’টি গান। স্বস্তিকার গলায় তিনটি। সন্তু গেয়েছেন দু’টি। একটি গানে যৌথ ভাবে গলা মিলিয়েছেন বাবা-মেয়ে। শুট করা হয়েছে একটি মিউজিক ভিডিও।