মঞ্চে রয়েছেন সিনেমা জগতের একঝাঁক তারকা। পাশাপাশি রয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রীরাও। তাঁদের উপস্থিতিতেই বুধবার সন্ধেয় মাটিগাড়ার একটি অভিজাত হোটেলে প্রদীপ জ্বালিয়ে উদ্বোধন হল গ্লোবাল সিনেমা ফেস্টিভ্যালের।

মঞ্চে ছিলেন রণধীর কপুর, মহিমা চৌধুরী, স্বস্তিকা মুখোপাধ্যয়, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, অরিন্দম শীল। ছিলেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব, তথ্য ও প্রযুক্তি এবং বন মন্ত্রী ব্রাত্য বসুও। উত্তরবঙ্গের পাহাড়, বনাঞ্চল ঘেরা প্রকৃতিকে চলচ্চিত্র নির্মাতাদের কাছে তুলে ধরা এই উৎসবের অন্যতম উদ্দেশ্য বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা। অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত নিজেই মঞ্চে সেই কথা বললেন। বাইরে থেকে আসা সিনেমা পরিচালক, প্রযোজকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘‘উত্তরবঙ্গ খুব সুন্দর জায়গা। আপনাদের সবাইকে বলব এখানে ছবির শ্যুটিং করতে আসুন। এই চলচ্চিত্র উৎসবের মধ্যে দিয়ে সেই বিষয়টির উপরেই জোর দেওয়া হচ্ছে। তাতে এখানে ফিল্ম-ট্যুরিজ়ম গুরুত্ব পাবে।’’ তাঁর কথায়, এই এলাকায় অনেক সুন্দর জায়গা এখনও সকলের নজরে আসেনি। সিনেমার জগৎটা অনেক বড় হয়েছে। সারা পৃথিবী সিনেমা নিয়ে ভাবছে। উত্তরবঙ্গের নানা জায়গা সিনেমায় তুলে ধরা যেতে পারে বলে জানান।

এ দিন পর্যটনমন্ত্রীও জানান, এই উৎসবকে কেন্দ্র করে পরিচালক, প্রযোজকরা এসেছেন। তাঁদের বিভিন্ন জায়গা ঘুরিয়ে দেখানো হবে। মঞ্চে ছিলেন বলিউড অভিনেত্রী মহিমা চৌধুরী। একসময় কার্শিয়াংয়ে থেকেছেন বলে জানান তিনি। 

শিলিগুড়িতে দীনবন্ধু মঞ্চ, শক্তিগড়ের রবীন্দ্রভবন, কার্নিভ্যাল সিনেমা হলে বৃহস্পতিবার থেকে বিভিন্ন ছবি দেখানো হবে। ৩৬টি পূর্ণদৈর্ঘ্যের এবং ৩৯টি স্বল্পদৈর্ঘ্যের সিনেমা দেখানো হচ্ছে।