পঁচিশে পা দিল কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। শুক্রবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হল কলকাতা ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল। গোটা স্টেডিয়াম জুড়ে যেন চাঁদের হাট। শাহরুখ খান, মহেশ ভট্ট, রাখি গুলজার থেকে শুরু করে টলিউডের নুসরত জাহান, মিমি চক্রবর্তী, পাওলি দাম, দেব, অঙ্কুশ-সোহম...হাজির ছিলেন সবাই। রাজ চক্রবর্তী এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে অনুষ্ঠানে সামিল হইয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনুষ্ঠান সঞ্চালনার গুরুভার বর্তেছিল যিশু সেনগুপ্ত এবং পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের উপর। পরমব্রত মনে করিয়ে দিলেন, এ বছর চলচ্চিত্র উৎসবে ফোকাস কান্ট্রি জার্মানি। দেখানো হবে সে দেশের বিখ্যাত পরিচালকদের ক্লাসিক সব সিনেমা। 

ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে যোগদানের জন্য শুক্রবার সকালেই যিশু সেনগুপ্তর সঙ্গে শহরে উপস্থিত হয়েছিলেন পরিচালক মহেশ ভট্ট। বিকেল চারটে নাগাদ কলকাতা বিমানবন্দরে পা রেখেছিলেন শাহরুখ খান। হাজার হাজার ভক্ত ভিড় করেছিলেন  প্রিয় তারকাকে এক ঝলক দেখবার জন্য। অবশেষে 'প্রিয় দিদি'র সঙ্গে নেতাজি ইন্ডোরে পা রাখেন ‘ভাই’ শাহরুখ। আলোর বাহারে সেজে উঠেছিল স্টেডিয়াম। হাজার হাজার দর্শকের ভিড়। গান-নাচে মুখর হয়ে উঠেছিল নেতাজি  ইন্ডোরের প্রতিটি কোণ। 

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে দেখুন কেআইএফএফ-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের লাইভ 

 শুক্রবার সন্ধেতে তনুশ্রী শঙ্কর ডান্স গ্রুপের মনমাতানো অনুষ্ঠানের পর একে একে  মঞ্চে ডেকে নেওয়া হয় শাহরুখ খান, রাখি  গুলজার, মাধবী মুখোপাধ্যায়, গৌতম ঘোষ, সন্দীপ রায়, শতাব্দী রায় সহ অন্যান্য ব্যক্তিত্বদেরও। এ বছর থালি গার্লের ভূমিকায় ছিলেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। সাবেকি সাজে দেখা মিলল তাঁরও।

হাজার আলোর ঝলকানি... তাঁরই মাঝে গলায় উত্তরীয় পরিয়ে শাহরুখকে বরণ করে নেন অভিনেত্রী তথা বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান। দেব বরণ করে নেন রাখি গুলজারকে। আর সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে বরণের ভার তুলে দেওয়া হয় সঙ্গীত পরিচালক জিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের হাতে। এ বছর ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের 'সিগনেচার টিউন' পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন বিক্রম ঘোষ। তাঁর তবলার বোলে মুখরিত হচ্ছিল চারিদিক।

আরও পড়ুন-ছেলেকে জড়িয়ে মালাইকাকে কুৎসিত ইঙ্গিত! কঙ্গনার দিদির নিন্দায় সরব নেটিজেনরা

 

গান বাজনার পাশাপাশি হাসি মজা খুনসুটিতে মেতে উঠেছিলেন সেলেবরা। গৌতম হালদারের ‘নির্বাণ’ ছবির ইন্টারন্যাশনাল প্রিমিয়ারের জন্য অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসা কিংবদন্তী অভিনেতা রাখি গুলজার আবার শুরু করলেন কিং খানকে বাংলা শেখাতে। শাহরুখকে বলতে বললেন, "ও আমার দেশের মাটি তোমার পায়ে ঠেকাই মাথা'। বাধ্য ছেলের মতো বলে গেলেন শাহরুখ, মানে না বুঝেই। বলা শেষ হয়ে গেলে,  শাহরুখের মজার মন্তব্য, "বলে তো দিলাম, কিন্তু কী যে বললাম কিছুই বুঝলাম না।"  এর পরই দর্শকমহলে ওঠে হাসির রোল। 

নস্টালজিক হয়ে গিয়ে রাখি যোগ করেন, "আমার ধমনীতে বাংলা, আমি বাংলার মেয়ে"। "অনেক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে গিয়েছি কিন্তু এত ভাল ভাবে সবাইকে খুশি করে কাজ কোথাও হয়না", যোগ করেন অভিনেত্রী। 

অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে আপ্লুত সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও। এ দিন মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বললে ন, "আমায় আমন্ত্রণ জানানোর জন্য আমি সত্যি খুব খুশি। এই শহর ঋত্বিক-সত্যজিৎ-মৃণালের। ওঁদের জন্যই বাংলাকে চিনেছে বিশ্ব।"

নেতাজি ইন্ডোরে তারকার মেলা 

আবার শাহরুখ আসায় বেজায় খুশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হবেন নাই বা কেন? 'চার্মিং ব্রাদার' বলে কথা! বললেন, "প্রতি বার ও আসে। এ বারেও এসেছে। আমি খুব খুশি।'' 

আর যাকে নিয়ে ভক্তমহলে এত উন্মাদনা, বলি বাদশা শাহরুখ খান... তিনি কী বললেন? শাহরুখের কথায়, "আগামী সাত দিন আপনার জীবনে সবচেয়ে সুন্দর দিন হতে চলেছে। দশ বছর ধরে এখানে আসছি। কলকাতা আমার কাছে সব সময়েই খুব কাছের।"  

আরও পড়ুন-অমৃতার কাছেই শিখেছি কী ভাবে কোনও কাজকে গুরুত্ব দিতে হয়: সইফ

 

এ বছর চলচ্চিত্র উৎসবে চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত হয়েছেন পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। তাঁর উপরেও দায়িত্ব প্রচুর। এ দিন নেতাজি ইন্ডোরে সাবেকি সাজে দেখা গেল রাজকে। বছরভর সিনেমামোদীরা অপেক্ষা করে থাকেন এই সাত দিনের চলচ্চিত্র উত্সবের জন্য।  লাইন দিয়ে টিকিট কাটা, দেশ-বিদেশের সিনেমা দেখা, তার পর চায়ের কাপে তর্কের তুফান— সেই চেনা ছবিই আবারও ফিরতে চলেছে আজ থেকেই। নভেম্বরের ৮-১৪ তারিখ অবধি অনুষ্ঠিত হতে চলেছে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব।