Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

অভিনয়ের জন্য জনপ্রিয়তা পেয়েছেন টোটাদা, তা বলে ‘শ্রীময়ী’-র গুরুত্ব কমেনি, মত ডিঙ্কার

তিনি মনে করেন, দর্শকেরা রোহিত সেন আসার আগেও ‘শ্রীময়ী’ দেখেছেন। তাই ধারাবাহিকটি গুণগত মানের জন্য সকলেই দেখবেন বলে বিশ্বাস ‘ডিঙ্কা’র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৯:০১
Save
Something isn't right! Please refresh.
রোহিত সেন ও শ্রীময়ী, ডিঙ্কা

রোহিত সেন ও শ্রীময়ী, ডিঙ্কা

Popup Close

‘শ্রীময়ী’ ধারাবাহিকের দুই চরিত্রের রসায়নে মজে বাংলার দর্শক। শ্রীময়ী এবং রোহিত সেন। তাঁদের বন্ধুত্ব, তাঁদের প্রেম, অ-প্রেম। কিন্তু নেটমাধ্যমে ভক্তদের আলোচনা বলছে, ধারাবাহিকে শ্রীময়ী চরিত্রের গুরুত্ব কমে যাচ্ছে বলে ধারণা অনেকের। কারও কারও বক্তব্য, রোহিত সেনকে মেরে ফেলা যাবে না। যদি তা করা হয়, তবে এই ধারাবাহিক আর কেউ দেখবেই না। তবে কি এই ধারাবাহিকের মূল চরিত্র থেকে সরে যাচ্ছে স্পটলাইট? শ্রীময়ীয়ের লড়াইটা অজান্তেই হস্তগত করে নিচ্ছে রোহিত সেন?

আনন্দবাজার ডিজিটালের সঙ্গে কথা বললেন ‘ডিঙ্কা’ ওরফে সপ্তর্ষি মৌলিক। ‘শ্রীময়ী’-এর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। ধারাবাহিকে শ্রীময়ীয়ের ছোট ছেলে ডিঙ্কা। সব সময়ে মায়ের পাশে দাঁড়াতে দেখা গিয়েছে তাকে। তার কাছে শ্রীময়ীয়ের লড়াইটাই আসল। সাফ জানিয়ে দিলেন অভিনেতা।

ডিঙ্কার কথা তো বোঝা গেল, কিন্তু সপ্তর্ষির কী মত? অভিনেতার মতে, ‘‘আমাদের ধারাবাহিকের কথা বললে, সম্ভবত শ্রীময়ীয়ের উত্থান-পর্বে রোহিত সেনের ভূমিকাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। এখন প্রশ্ন উঠতে পারে, তার মানে কি শ্রীময়ীয়ের অস্তিত্ব কেবল রোহিত সেনকে ঘিরেই? আমি মনে করি, তা সত্যি নয়। লীনাদিও সেটা বিশ্বাস করেন না।’’ তার কারণ ব্যাখ্যা করলেন অভিনেতা নিজেই। টোটা রায়চৌধুরী যখন রোহিত সেনের চরিত্রে অবতীর্ণ হলেন, দর্শকের মনে আশা জেগেছিল, এই দু’জনের মধ্যে প্রেম হবে। সপ্তর্ষির মতে, ‘‘এখানে মনে রাখতে হবে, শ্রীময়ী কিন্তু খুব আধুনিকা নয়। আগে তার এতটা আত্মবিশ্বাস ছিল না। কিন্তু আমাদের মায়েদের প্রজন্মের মহিলারা, বিশেষ করে যাঁরা বহু দিন ধরে কারও সমর্থন পাননি, তাঁদের একটি অনুপ্রেরণার প্রয়োজন পড়ে। সেই জায়গা থেকেই রোহিত সেনের আগমন। এখনকার একটি মেয়ে কিন্তু এ ভাবে ভাববেই না।’’

Advertisement

ধারাবাহিকের গল্প তাঁর নয়। তা লিখেছেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়। তাই গল্পের বিষয়ে মতামত দেওয়া অনুচিত বলে মনে করেন সপ্তর্ষি। তবে তাঁর ব্যক্তিগত মত জানতে চাইলে সপ্তর্ষি বলেন, ‘‘বিষয়টি এ ভাবে না দেখাই ভাল। রোহিত সেনের জায়গায় এক জন মহিলাও আসতে পারতেন শ্রীময়ীয়ের জীবনে। তার বন্ধু হয়ে, তার অন্ধের যষ্ঠী হয়ে।’’
অভিনেতার মতে, যদি অনুরাগীরা এ ভাবে ভাবতে শুরু করেন, তবে সেটা দুর্ভাগ্যজনক। তাঁর কথায়, ‘‘প্রথমত, ধারাবাহিকের গল্প কোন দিকে এগোবে, সেটা আমি জানি না। কিন্তু এক জন মহিলার লড়াইটা কোনও ভাবেই ছোট করে দেখানো হবে না। লীনাদির উদ্দেশ্যই এটা নয়। মূল লড়াই পিছনে ফেলে যদি অন্য চরিত্রকে দর্শকেরা মহৎ করে দেখেন, তবে সেটা তাঁদের ভুল।

সপ্তর্ষির বক্তব্য স্পষ্ট। তিনি বলেন, ‘‘টোটাদা নিজের অভিনয়ের জন্য এই জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। এটা এক জন অভিনেতার কাছে বড় পাওনা। কিন্তু তাই বলে শ্রীময়ী চরিত্রের গুরুত্ব কমে যাবে, এমনটা ভাবা একেবারেই ভিত্তিহীন।’’ তিনি মনে করেন, দর্শকেরা রোহিত সেন আসার আগেও ‘শ্রীময়ী’ দেখেছেন। তাই ধারাবাহিকটি গুণগত মানের জন্য সকলেই দেখবেন বলে বিশ্বাস ‘ডিঙ্কা’র। আর এই যে দর্শকেরা এতটা আবেগতাড়িত হয়ে যাচ্ছেন, সেটাও তো ইতিবাচক ইঙ্গিত, বক্তব্য সপ্তর্ষির।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement