• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সেই চা-কাকুকে রাখির কী উপহার পাঠালেন মিমি?

1
‘‘ রাখি উৎসবকে কেন্দ্র করে জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে সব মানুষের মধ্যে ভালবাসা, যত্ন আর মানবিকতা ছড়িয়ে দিতে চাই আমি।’’—নিজস্ব চিত্র।

'চা কাকু'-কে রাখির উপহার পাঠালেন অভিনেত্রী সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। রাখির উপহারে ছিল মাস্ক, স্যানিটাইজার, মিষ্টি। আনন্দবাজার ডিজিটালকে মিমি বলেন, “রাখিবন্ধন এমন একটা উৎসব, যেখানে  রাখি পরানো দিয়েই শুধু ভ্রাতৃত্বের বন্ধন দৃঢ় করা যায় না। এই দিন আমার কাছে ভালবাসা আর একে অপরের পাশে থাকা, খেয়াল রাখার দিন। রাখি উৎসব সকলের।এই উৎসবকে কেন্দ্র করে জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে সব মানুষের মধ্যে  ভালবাসা, যত্ন আর মানবিকতা ছড়িয়ে দিতে চাই আমি। তাই শুধু চা কাকু নয়। আমার পরিচিত, আমার কন্সটিটিয়েন্সির অনেককেই আমি রাখির উপহার পাঠিয়েছি।”

করোনা নিয়ে প্রথম দিন থেকেই সচেতন মিমি। কখনও ইনস্টাগ্রামে হারবাল চা বানানোর টিপস দিচ্ছেন, তো কখনও রাখির উপহারে মাস্ক। এর মধ্যেও পুজোর কথা ভেবে শুট করছেন অংশুমান প্রত্যুষের পরিচালানায় নতুন ছবি  ‘এসওএস কলকাতা’-র। শুটেও কড়া সচেতনতায় নিজেকে বন্দি রেখেছেন মিমি। এমনকি ভুল করে পারফিউম লাগাতে গিয়ে শাড়িতে ডিসইনফেক্ট্যান্ট স্প্রে লাগিয়ে ফেলছেন! শুটে প্রিয় বান্ধবী নুসরতের সঙ্গে কথা বলতে বলতে সারাক্ষণ স্প্রে করে চলেছেন। কফি মেকার থেকে ইলেকট্রিক কেটলি— বাড়ি থেকে নিয়ে আসছেন।

তা হলে কি পুজোয় মানুষ সিনেমা হলে গিয়েই বাংলা ছবি দেখবে?

 

মিমির রাখির উপহারে ছিল মাস্ক, স্যানিটাইজার, মিষ্টি। ছবি:সোশ্যাল মিডিয়া

আরও পড়ুনরিপোর্ট নেগেটিভ কোয়েলের

“আমার ‘ড্রাকুলা স্যার’ তৈরি হয়ে আছে। এই ছবিও রেডি হয়ে যাবে। তবে রিলিজগুলো ওটিটি না সিনেমা হলে হবে, সেটা বলা যাচ্ছে না”-- সাফ কথা মিমির।‘এসওএস কলকাতা’ ছবিতে মিমি, নুসরত, যশ ছাড়াও আছেন অভিনেতা শান্তিলাল মুখোপাধ্যায় ও এনা সাহা।এই ছবি দিয়েই প্রযোজনার কাজ শুরু করলেন এনা। ত্রিকোণ প্রেমের গল্প নাকি থ্রিলার, ছবির গল্প কোন দিকে এগোবে তা নিয়ে মুখ না খুললেও কমার্শিয়াল ছবিতে অভিনেতারা যে সামজিক দূরত্ব মেনে অভিনয় করতে পারেন না, তা মেনে নিলেন মিমি। 

আরও পড়ুন: করোনাকে হারিয়ে ফিরলেন অমিতাভ

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন