×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

‘কন্যাদান’ ধারাবাহিকে গান গাইলেন নচিকেতা, ‘হারানো সুর’-এ অন্বেষা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা০৪ ডিসেম্বর ২০২০ ১৯:৪৭
ধারাবাহিকে গান গাইলেন নচিকেতা এবং অন্বেষা।

ধারাবাহিকে গান গাইলেন নচিকেতা এবং অন্বেষা।

ফের ছোট পর্দায় গাইলেন নচিকেতা চক্রবর্তী, অন্বেষা দত্ত গুপ্ত। আবার ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি। খবরে সান বাংলার নতুন দুই মেগা ‘কন্যাদান’ এবং ‘হারানো সুর’। বৃদ্ধাশ্রম’-এ দুখী মায়ের গল্প বলার পর নচিকেতা শোনালেন ‘কন্যাদান’-এ বাবার গল্প। অন্বেষার গলায় ধরা দিল ‘হারানো সুর’। 

৭ ডিসেম্বর চ্যানেলে এক সঙ্গে মুক্তি পেতে চলেছে তিনটি নতুন ধারাবাহিক। ‘কন্যাদান’ বলবে ‘একা বাবা’র পাঁচ মেয়ে মানুষের গল্প। সেই বাবার ছবি কথায়-সুরে জীবন্ত করলেন রাজীব দত্ত ও ইন্দ্রাশিস-অরুণাশিস জুটি। ছোট পর্দায় নচিকেতা বললেই মনে আসে  ‘কুয়াশা যখন’ মেগার টাইটেল ট্র্যাক বা ‘এ মন ব্যাকুল যখনতখন’ গান। 

নতুন ধারাবাহিকের গান নিয়ে শিল্পীর কী বক্তব্য? আনন্দবাজার ডিজিটালকে নচিকেতা বললেন, ‘‘এটা শাশুড়ি-বৌয়ের গল্প নয়। ‘কন্যাদান’ একজন বাবার গল্প। মেয়ের প্রতি বাবার দায়বদ্ধতার গল্প। গানটি বেশ ভাল গান হয়েছে। আপনারা শুনে দেখুন। আমার মনে হয় ভাল লাগবে।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: নতুন বাড়িতে যাওয়া আর প্রেমে পড়া, কোন সূত্রে গাঁথলেন স্বস্তিকা?​

আরও পড়ুন: সামনেই বিয়ে, ‘ভয়ঙ্কর অগোছালো’ কেন দেবলীনা?

অন্য দিকে, ‘হারানো সুর’ দেখাবে সুরেলা বাড়ির খুঁটিনাটি। এক মেয়ের ঘরণী থেকে শিল্পী হয়ে ওঠার সংগ্রাম। সেই ধারাবাহিকের টাইটেল ট্র্যাকের পাশাপাশি আরও কয়েকটি গানও শোনা যাবে অন্বেষার কণ্ঠে। গীতিকার বরিশ, সুরকার রণজয়। রণজয়ের দাবি, ‘‘ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীত নিয়ে ছোট পর্দায় কাজের তেমন সুযোগ নেই। হারানো সুর সেটি দিচ্ছে। ক্লাসিক্যাল মিউজিকের সঙ্গে কনটেম্পোরারি মিউজিককে মিশিয়ে নতুন ধরনের ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর বা সাউন্ড স্কেপ তৈরির চেষ্টা করেছি। আমি গর্বিত এই দায়িত্ব পেয়ে। আশা, দর্শক-শ্রোতাদেরও পছন্দ হবে।’’

গান গেয়ে খুশি অন্বেষাও। জানালেন, ‘‘অনেক দিন পরে ছোট পর্দায় গান গাইলাম। গান নিয়ে একটি ধারাবাহিক হচ্ছে। শোনার পরেই আগ্রহ বেড়ে গিয়েছিল। ছোট পর্দাও আস্তে আস্তে বিষয়নির্ভর হয়ে উঠছে। তার জন্য এবং প্রত্যেকটি গান ভীষণ মন ছুঁয়েছে বলেই গেয়েছি।’’

Advertisement