Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২২
Tota Roychoudhury

Feluda: নতুন বছরে হইচই ওয়েব প্ল্যাটফর্মে সৃজিতের হাত ধরে টোটা-ই ফের ‘ফেলুদা’?

‘‘আবদার মঞ্জুর হলে বুঝব, উপহারের থেকেও পাল্টা উপহার বেশি দামি হয়ে গেল!’’

টোটা রায়চৌধুরী।

টোটা রায়চৌধুরী।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২২:০৭
Share: Save:

টোটা রায়চৌধুরীর আবেদন কি মঞ্জুর করছেন সৃজিত মুখোপাধ্যায়? দিন কয়েক আগেই টুইটে একুশের ‘ফেলুদা’ আবদার করেছিলেন, খুব তাড়াতাড়ি ফেলুদাকে নিয়ে তৃতীয় সিরিজ শুরু করুন পরিচালক। নইলে, মুম্বই তাঁকে অপহরণ করে নিলে তৃতীয় বার ফেলুদা সাজার সুযোগ হারাবেন অভিনেতা! শুক্রবার টোটা, সৃজিত, প্রযোজক মহেন্দ্র সোনি এবং হইচই ওয়েব প্ল্যাটফর্মের মিলিত টুইট, ইনস্টাগ্রাম বলছে, ২০২২-এ সেই সুযোগ আসছে। এসভিএফের ওয়েব প্ল্যাটফর্মে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালকের হাত ধরে এক বিখ্যাত গোয়েন্দা পা রাখতে চলেছেন। আর সৃজিত মানেই যে ফেলুদা, সে তো বলাই বাহুল্য! কথায় কথায় টোটা এও ফাঁস করে ফেলেছেন, ‘‘জন্মদিনের আগে সৃজিতের কাছে আবদার রেখেছিলাম। মঞ্জুর হলে বুঝব, উপহারের থেকেও পাল্টা উপহার বেশি দামি হয়ে গেল! আমার সারা জীবনের পরিশ্রম সার্থক।’’

Advertisement

সে কথা স্পষ্ট টোটার শেয়ার করা টুইট দেখে। সেই টুইট রি-টুইট করেছেন সৃজিত। যদিও আনন্দবাজার অনলাইনের কাছে ছোট পর্দার ‘রোহিত সেন’ স্বীকার-অস্বীকার কোনওটাই করেননি। জানিয়েছেন, এ সবের আগে ২৫ ডিসেম্বরে ‘আড্ডা টাইমস’-এ মুক্তি পাবে ‘ফেলুদা ফেরত’-এর দ্বিতীয় সিরিজ ‘যত কাণ্ড কাঠমান্ডুতে’। টোটার দাবি, ‘‘এই সিরিজে আমরা বড় ঝুঁকি নিয়েছি। এর আগের সিরিজে সবাই সনাতনী ফেলুদাকে দেখেছেন। নতুন সিরিজে ফেলুদা অনেকটাই বাহ্যিক দিক থেকে আধুনিক।’’ অভিনেতার কথায়, ২০১৫-র ভূমিকম্পের পর নেপাল-সহ কাঠমান্ডু আমূল বদলে গিয়েছে। সিরিজে সেই নতুন কাঠমান্ডু উঠে আসার পাশাপাশি ফেলুদা এবং তাঁর সহকারী-সহ সবাইকে দেখা যাবে আধুনিক পোশাকে। কিন্তু সংলাপ সত্যজিৎ রায়ের। নব্য ‘ফেলুদা’র মতে, কিংবদন্তি লেখক যা লিখে গিয়েছেন তার উপরে কলম চালানোর সাহস কারওরই নেই।

পাশাপাশি টোটা এও জানিয়েছেন, হইচই প্ল্যাটফর্মে ফেলুদা এলে এবং তিনি অভিনয় করলে চাইবেন ‘দার্জিলিং জমজমাট’, ‘হত্যাপুরী’ যেন সিরিজে জায়গা পায়। এর কারণও জানিয়েছেন তিনি। টোটার যুক্তি, ‘‘দার্জিলিং জমজমাট’-এ ফিল্মের মধ্যে ফিল্ম থাকার অনুভূতি পাব। গল্প অনুযায়ী ওখানেও একটি ছবির শ্যুটের কথা বলা হয়েছে। সেটা সিরিজ হলে ফিল্মের মধ্যে ফিল্মের স্বাদ থাকবে। তা ছাড়া, শ্যুটিং, দার্জিলিং আর ফেলুদা এক ছাদের নীচে থাকলে বাঙালি আর কোনও দিকে চোখ ফেরাবে না। একই ভাবে ‘হত্যাপুরী’ গল্পটিও আমার খুব পছন্দের।’’ দুই সহকারী তোপসে আর জটায়ু হিসেবে কল্পন মিত্র আর অনির্বাণ চক্রবর্তীকেই পছন্দ তাঁর। জানিয়েছেন, মাত্র দুটি সিরিজ করে যে ভাল বন্ধুত্ব তৈরি হয়েছে, সেটা আগামী দিনে অটুট থাকলে অভিনয়ে তার ছাপ পড়তে বাধ্য।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.