• স্রবন্তী বন্দ্যোপাধ্যায়
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আমার প্রেম নিয়ে লেখার আগে আমায় একবার প্রশ্ন করুন, বলছেন পর্দার ‘পাখি’

Madhumita Sarkar
জন্মদিনটাও বাড়িতে বসেই কাটিয়ে দিলেন মধুমিতা। —ফাইল চিত্র।

কখনও শোনা যায় তাঁর মৃত্যুসংবাদ। কোথাও লেখা হয় তাঁর বিবাহবিচ্ছেদ পরবর্তী প্রেমকাহিনি। অথবা নতুন ছবির নায়কের সঙ্গেও বিশেষ সম্পর্ক! তিনি— মধুমিতা সরকার। যিনি সরাসরি ক্ষোভ প্রকাশ করলেন আনন্দবাজার ডিজিটালের কাছে, “ছবিতে কাজ করা, সিনেমা নিয়ে পড়াশোনা— আমি এ সবের মধ্যেই থাকি। কোনও পার্টিতে যাই না। নিজের মধ্যেই থাকি সবসময়। তা-ও একের পর এক আমাকে নিয়ে যা নয় তাই লেখা হচ্ছে। আমাকে কিছু জিজ্ঞাসাও করা হচ্ছে না! 

জন্মদিনটাও বাড়িতে বসেই কাটিয়ে দিলেন মধুমিতা। কেন?

মধুমিতা বললেন, ‘‘আজ যদি ৩ জন বান্ধবীর সঙ্গেও বাইরে যাই, লোকে লিখে দেবে মধুমিতা শুধু মেয়েদের সঙ্গেই থাকেন! মিডিয়া নতুন করে প্রচারে নামবে।” তবে তিনি যা-ই বলুন, সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে থাকা তাঁর ভক্তকুল তাঁদের প্রিয় অভিনেত্রীর জন্মদিন উদ্‌যাপন করেছেন ৩০ মিনিটের একটি ভিডিয়ো উপহার দিয়ে। সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে কেউ মধুমিতার হয়ে কেক কাটছেন। কেউ দেওয়ালে মধুমিতার নাম লিখে তাঁকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। একজন অভিনেত্রীর জন্য ভক্তদের প্রচেষ্টায় এমন ভিডিয়ো খুব বেশি চোখে পড়ে না। মধুমিতা নিজেও অবশ্য ভিডিয়ো এডিটিংয়ের কাজ করতে ভালবাসেন। লকডাউনে সব ভিডিয়োই নিজে এডিট করে পোস্ট করেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: সিঁদুর খেললেন ‘হিয়ান’, টুকরো কোলাজে বন্দি দেবীবরণের মুহূর্ত

সেই ‘কেয়ার করি না’ থেকেই  দর্শকের মন জয় করেছেন মধুমিতা। —ফাইল চিত্র।

কিন্তু ইদানীং মধুমিতা খানিক ক্ষুণ্ণ। মিডিয়ার ‘একপেশে ভিত্তিহীন প্রচার’ তাঁর ওপর মানসিক চাপ তৈরি করছে বলে বক্তব্য তাঁর। এখনও তাঁকে লোকে ‘বোঝে না সে বোঝে না’-র ‘পাখি’ বলেই জানে। সেই ‘কেয়ার করি না’ থেকেই  দর্শকের মন জয় করেছেন তিনি। ‘কুসুমদোলা’-র ইমনকে নিয়ে লোকে এখনও পাগল। কিন্তু মধুমিতার বক্তব্য, “এক জন অভিনেত্রী সারা জীবনই কি ‘পাখি’ বা ‘ইমন’ হয়ে থেকে যাবে! শাড়ি, সালোয়ার কামিজ, সাধারণ মেয়ে— এ ভাবেই থেকে যাবে! তা কি হয়? সে তো নিজেকে ভাঙবে!”

আরও পড়ুন: সব বিতর্ক উড়িয়ে বিয়ে করলেন নেহা কক্কর, দেখে নিন অ্যালবাম

সেই ভাঙা শুরু প্রতীম ডি দাশগুপ্ত-র ‘লাভ আজ কাল পরশু’ থেকে। সদ্য শেষ করলেন মৈনাক ভৌমিকের ছবি ‘চিনি’। পুজোর পরেই শুরু হবে হইচই সিরিজে ‘দেবদাস ও একটি খুনের গল্প’। মধুমিতা আর অর্জুন আবার একসঙ্গে। সেই প্রসঙ্গ তুলতেই তিনি বললেন, “এই তো, পুজোর পর এক্কেবারেই কাজের সূত্রে এক ব্যক্তির সঙ্গে ব্রেকফাস্ট করতে গেলাম। ওমা! মিডিয়া লিখে দিল, আমি ওঁর সঙ্গে প্রেম করছি। আমাকে একবার জিজ্ঞাসা অবধি করল না!” যদিও মিডিয়া বা ইন্ডাস্ট্রির শোরগোলকে পাত্তা দেন না মধুমিতা। আপাতত গিটারে সুর তুলে মন শান্ত করছেন। বললেন, “যতই ক্ষত থাকুক। পাখি তো ডানা মেলে উড়বেই।”

‘পাখি’ এখন তার ইচ্ছেমতো ডানা মেলার আকাশই খুঁজে বেড়াচ্ছে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন