• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কোন ভুলের মাশুল গুনলেন সুশান্ত? শেষ ইনস্টায় প্রশ্ন তুলেছিলেন সরোজও

main
সরোজ খান এবং সুশান্ত সিংহ রাজপুত।

শুনেছিলেন, দুর্দান্ত নাচেন সুশান্ত সিংহ রাজপুত। কোনওদিন তাঁর নাচের সঙ্গে নিজস্ব ঘরানা মেলানোর সুযোগ হয়নি সরোজ খানের। কিন্তু কয়েক বার কয়েকটি অনুষ্ঠানে প্রাণবন্ত অভিনেতাকে কাছ থেকে দেখেছিলেন তিনি।

সুশান্তের আন্তরিক ব্যবহার মনের কোথাও কি ছাপ ফেলে গিয়েছিল? নিশ্চয়ই তাই-ই। সেই অনুভূতি থেকেই সুশান্তের প্রতি একাত্মতা অনুভব করেছিলেন সরোজ। ১৪ জুনসুশান্তের খবর আসতে তিনিও নিজেকে আর ধরে রাখতে পারেননি। সমস্ত অনুভূতি নিয়ে সরোজ ধরা দিয়েছিলেন নিজের ইনস্টাগ্রামে। তিনিও প্রশ্ন তুলেছিলেন, কোন ভুলের মাশুল গুনলেন সুশান্ত?

সেলেব কোরিওগ্রাফারের ইনস্টায় আরও অনেক কথা ছিল। ছেলে হারানোর বেদনা চাপতে চাপতে তিনি দূরে হারিয়ে যাওয়া সুশান্তের সঙ্গে যেন আপন মনে কথায় মগ্ন হয়েছিলেন, ‘‘তোমার সঙ্গে কোনও কাজ করিনি। কিন্তু বেশ কয়েকবার তোমায় কাছ থেকে দেখেছিলাম। কী কষ্ট ছিল তোমার? কী ভুল ছিল তোমার জীবনে? যার জন্য এত বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললে!’’

সুশান্তকে নিয়ে সরোজের শেষ পোস্ট 

 

সরোজের আফশোসে ভরা পরামর্শ, ‘‘তুমি পরিবার, কাজের দুনিয়া বা অভিজ্ঞ কারও সঙ্গে কথা বলতে পারতে। বয়সে তোমার থেকে অনেকটাই বড়, এমন কারও কাছে নিজেকে মেলে ধরতে পারতে। তাঁর বুদ্ধি, তাঁর পরামর্শ হয়তো এভাবে নষ্ট হতে দিত না তোমাকে।’’

আরও পড়ুন- ‘তেজাব’ থেকে ‘কলঙ্ক’, মাধুরীর নাম না নিয়ে একটি সাক্ষাৎকারও দেননি সরোজ

সরোজের ইনস্টার শেষ অংশটুকু আরও মনছোঁয়া। যেখানে তিনিও উদ্বিগ্ন এটা ভেবে যে, সুশান্তের এই পরিণতি কতটা বেদনার তাঁর বৃদ্ধ বাবা, দিদি-বোনেদের কাছে। তাঁদের সমবেদনা জানানোর ভাষা অবধি খুঁজে পাননি তিনি। একই সঙ্গে তিনি অনেক আদর, ভালবাসা জানিয়েছেন হঠাৎ হারিয়ে যাওয়া ‘রবতা’ স্টারকে। বলেছেন, “তোমার সব ছবি দেখেছি। তুমি আমার খুব প্রিয় ছিলে।”

আর মনে মনে কামনা করেছেন, “ভাল আছি ভাল থেকো, আকাশের ঠিকানায় চিঠি লিখো!” আজ ফের আকাশে দেখা হবে দু’জনের।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন