• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আটকে গেল লকডাউন পরবর্তী প্রথম বাংলা ছবির শুটিং

Yash and Nusrat
যশ-নুসরত

আজ থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল লকডাউন পরবর্তী প্রথম বাংলা ছবির শুটিং। ‘এসওএস কলকাতা’। কিন্তু তা শুরু করতে পারলেন না পরিচালক অংশুমান প্রত্যুষ। ছবিতে অভিনয় করছেন যশ দাশগুপ্ত, নুসরত জাহান, মিমি চক্রবর্তী, এনা সাহা। আটকে যাওয়ার কারণ প্রসঙ্গে পরিচালক বললেন, ‘‘শিল্পী ও টেকনিশিয়ানদের এককালীন ২৫ লাখ টাকার বিমা করিয়েছি। শুটিং ফ্লোর স্যানিটাইজ়, আর্টিস্টদের ডেট নিয়েও আজ শুটিং শুরু করা গেল না। অতিমারির কারণে তৈরি এসওপি’তে ইমপা ও ফেডারেশনের সাইন করতে সময় লাগছে।’’

 আজ শুটিং ভেস্তে যাওয়ার কারণ কি শুধু এইটুকুই? ১ জুলাই এই ছবির মহরত হওয়ার পর আজ থেকে শুটিং শুরুর কথা পাকা হয়। ১১ জুন থেকে সিরিয়াল, সিরিজ়ের শুটিংয়ের অনুমতি মিললেও, ছবির শুটিংয়ের এসওপি তৈরি হতে এত সময় লাগছে কেন? ইমপার সভাপতি পিয়া সেনগুপ্ত বললেন, ‘‘কোভিড--১৯ যে ভাবে ছড়াচ্ছে, তাতে ঝুঁকি নিয়েই ছবির কাজ শুরু হবে। শুটিংয়ের অনুমতি দেওয়ার আগে প্রতিটি বিষয় খুঁটিয়ে বিচার করেই এসওপি-তে সই করতে চাই। ওদের শুটিংয়ের ডেট পাকা করার আগে আমাদের জানানো দরকার ছিল। নতুন প্রযোজনা সংস্থা বলেই অভিজ্ঞতা কম।’’

যৌথ প্রযোজনায় তৈরি এই ছবিতে, অংশুমান ছাড়াও প্রযোজক হিসেবে ডেবিউ করছেন অভিনেত্রী এনা সাহা।  এসওপি’তে সই হতে দেরি হওয়ার পিছনে অন্য কারণও শোনা যাচ্ছে। কোনও এক শক্তিশালী প্রযোজক সংস্থা নাকি চায় না ছবির শুটিং শুরু হোক। নতুন প্রযোজনা সংস্থার মনোবল ভেঙে দেওয়া, লগ্নিকারীকে হাতিয়ে নেওয়ার মতো ঘটনা ইন্ডাস্ট্রিতে আকছার ঘটে। আরও শোনা গিয়েছে, নুসরত শুটিং শুরুর জন্য অনেক চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।

 দু’টি জঙ্গি আক্রমণের ঘটনাকে কেন্দ্র তৈরি হতে চলা এই ছবিতে গোড়ার দিকে যশ-এনার জুটি করেই ছবির লুক সেট হয়। কিন্তু পরে ওই চরিত্রে মিমিকে নেওয়া হয়। এখন দেখার শেষ পর্যন্ত এই ছবির ভাগ্যে কী হয়! 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন