Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

‘বাংলা ছবির গান একঘেয়ে হয়ে যাচ্ছে’

স্রবন্তী বন্দ্যোপাধ্যায়
০৮ মে ২০১৯ ১৫:৪৮

ঢাকায় কী করছেন?
একটা বিশেষ কাজে এসেছি। হলে জানাব। একেবারে নতুন কিছু।

ভিঞ্চিদার সাফল্যের জায়গাটা কী রকম?
ভিঞ্চিদা অভাবনীয় সাফল্য পেয়েছে। একসঙ্গে একটা ছবি ক্রিটিক্যালি অ্যাক্লেমড আবার বক্স অফিসেও সাফল্য পেয়েছে। ‘ভবিষ্যতের ভূত’, ‘মুখার্জিদার বউ’-এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে লোকের মুখে মুখে এই ছবির প্রশংসা ছড়িয়েছে। ফেসবুকে প্রচুর মানুষ লিখেছেন। সাধারণ মানুষ হল ভরিয়ে রেখেছেন। আমি কৃতজ্ঞ। ইন্ডাস্ট্রির অনেকে ব্যক্তিগত ভাবে এসএমএস করে জানিয়েছেন। ভাল লেগেছে। তবে হ্যাঁ, ইন্ডাস্ট্রির একটা অংশ এই অভাবনীয় সাফল্য দেখে একটু চুপচাপ হয়ে গিয়েছে। আমার সাফল্য বা ভিঞ্চিদার টিমের সাফল্য, রুদ্রনীলের সাফল্য, যিনি এত বছর ধরে নানান নায়কের ছবিকে সাপোর্টিং রোলে একটা মাত্রা দিয়েছিলেন, তিনি আজকে নায়ক হিসেবে যে সাফল্য পেয়েছেন তাতে অনেকেই চুপচাপ হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এ ছাড়া বাকি ইন্ডাস্ট্রি উচ্ছ্বসিত। প্রচুর জায়গায় হাউজফুল হয়েছে। নন্দনে টানা ২২ দিন হাউজফুল হয়েছে ছবিটা।

‘ভিঞ্চিদা টু’ হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে?
অনেকেই বলেছেন। এটা ওপেনএন্ডেড ফিল্ম। সিক্যুয়েলের জায়গা থেকেই যায়। আর বক্স অফিসের সাফল্য দেখে মনে হচ্ছে সিক্যুয়েল হতেও পারে।

আরও পড়ুন, মেয়ের ডিপ্রেশন নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলাম, বললেন সোনি রাজদান

Advertisement

ইদানীং বাংলা ছবির পরিচালকেরা একে অন্যের ছবি নিয়ে প্রশংসার টুইট বা ফেসবুক পোস্ট দেয়। এটা কি পিঠ চাপড়ানো না কি সত্যি?
একটা টুইট বা ফেসবুক করা না করায় খুব কিছু এসে যায় না। আমি অবশ্য করি। আরও অনেকে করেন। কেউ আবার করেনও না। এটাকে ব্যক্তিগত মানসিকতার প্রতিফলন হিসেবে দেখাই ভাল।

ভিঞ্চিদা সাফল্য পেলেও গান সে রকম জনপ্রিয় হয়নি। কেন?
আমার মনে হয়েছে ভিঞ্চিদার গান খুব স্পেসিফিক। আলাদা করে জনপ্রিয় হওয়ার কথাও নয়। গ্যাসবেলুন প্রেমের গান হলেও খুব নির্দিষ্ট। কিছু লাইন আছে যে কোনও প্রেমের গানের লাইন হতে পারে, সবটা নয়। তোমার মনের আর শান্ত হও ছবির পরিস্থিতি নির্ভর। চরিত্র স্পেসিফিক। যেমন ‘শাজাহান রিজেন্সি’র ‘কিচ্ছু চাইনি আমি’ সকলের মনের কথা হতে পারে। মানুষ রিলেট করেছে। কিন্তু ‘তোমার মনের ভেতর’ গানটা ঋত্বিকের চরিত্রের কথা মাথায় রেখে লেখা। ছবিতে ট্রান্সফরমেশনের বিষয় মাথায় রেখে লেখা। সেখানে এই গানের জনপ্রিয়তা কিছুটা কম হতে বাধ্য।


‘ভিঞ্চিদা’র দৃশ্যে ঋত্বিক এবং রুদ্রনীল।



গীতিকার হিসেবে বলুন তো, বাংলা ছবির গান কি একঘেয়ে হয়ে যাচ্ছে?
বাংলা ছবির গান একঘেয়ে হয়ে যাচ্ছে। আমি অনুপম প্রসেনকে বলেছি। যে কারণে দীপাংশু বা ঋতমের মতো গীতিকাররা যখন কাজ করছে সেগুলো খুব ভাল হচ্ছে। এই তরুণ তুর্কীদের কলমে নতুন শব্দ, বোধ, ভাবনা বেরিয়ে আসছে।

আপনি নাকি বলেছেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, অরিন্দম শীল আর কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে ছবি করবেন?
না না ওটা ফেসবুকে আড্ডাচ্ছলে লেখা। সে রকম পরিকল্পনা নেই।

ঢাকায় জয়ার বাড়ি গেলেন?
নাহ, কাজের চাপে জয়ার বাড়ি যাওয়া হয়নি। তবে জয়ার থেকেও ভাল রান্না করেন জয়ার মা। ‘রাজকাহিনি’র রিসার্চের সময় যখন গিয়েছিলাম এত ভাল রান্না করে খাইয়েছিলেন! সেই স্বাদ এখনও লেগে আছে। এ বার কাজের চাপে যাওয়া হয়নি।

আপনি তো বলেছেন ‘কণ্ঠ’ দেখবেন। এটা কি জয়ার জন্য?
নাহ্, একেবারেই নয়। ইদানীংকালে নন্দিতাদি-শিবুর যা ছবি হয়েছে, কণ্ঠ-র রিয়্যাল লাইফ ইনাস্পিরেশনাল বিষয় আমায় আকৃষ্ট করেছে। আমি ইন্সপিরেশনাল ছবি ভালবাসি। নিশ্চয়ই শিবু-পাওলি-জয়ার মতো দক্ষ অভিনেতাও ছবিতে আছে। তবে বিষয়টা আমায় টেনেছে।

আরও পড়ুন, ‘টরেন্টো আমার বাড়ি’, পুরনো ভিডিয়োর জেরে ট্রোলড অক্ষয়


আচ্ছা রিয়েল লাইফের বিয়ে কেন টানছে না আপনাকে?
ইচ্ছে তো আছে। দেখা যাক।

ছবি না চললে মন খারাপ হয়?
মন তো খারাপ হয়। মানুষ যা পেতে থাকে সেটা অভ্যেস হয়ে যায়। কিছু মানুষের ছবি বক্স অফিসে চলেও ক্রিটিকাল অ্যাক্লেমড পায় না। আবার অন্য জনের ক্রিটিকাল অ্যাক্লেমড হয় না। বক্স অফিস সাফল্য পায়। ‘অটোগ্রাফ’ থেকে ‘ভিঞ্চিদা’, আমার ছবি ক্রিটিকাল অ্যাক্লেমড হয়েছে আবার বক্স অফিসের সাফল্যও পেয়েছে। এটাই বদ অভ্যেসের মতো হয়ে গেছে। কোনো ছবি দুটোর কম পেলে মন তো খারাপ হয়।'শাহছাহান রিজেন্সি' ক্রিটিক্যালি অ্যাক্লেমড কিন্তু বক্স অফিসে খুব একটা চলল না। আবার ‘ইয়েতি অভিযান’, ‘জুলফিকার’ বক্স অফিসে সাফল্য পেলেও ক্রিটিকালি অ্যাক্লেমড হয়নি। আমরা প্রত্যেক ছবিতে একশো দশ শতাংশ দিই। ফল না পেলে খারাপ তো লাগবেই।

আপনি সমালোচনা শুনতে পারেন?
শুনতে পারি শুধু নয়, সৃষ্টির ক্ষেত্রে ব্যবহারও করতে পারি। কিন্তু সম আলোচনা হওয়া দরকার, সেটা না হলে সময় নষ্ট করি না।

(হলিউড, বলিউড বা টলিউড - টিনসেল টাউনের টাটকা বাংলা খবর পড়তে চোখ রাখুন আমাদের বিনোদনের সব খবর বিভাগে।)

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement