×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

Srijit Mukherji: রহস্য-রোমাঞ্চ নয়, সৃজিতের সঙ্গী আগামী প্রজন্মের প্রেম

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৫ জুন ২০২১ ১৫:৫২
মধুরিমা বসাক, সৃজিত মুখোপাধ্যায় এবং অর্জুন চক্রবর্তী।

মধুরিমা বসাক, সৃজিত মুখোপাধ্যায় এবং অর্জুন চক্রবর্তী।

বাংলায় সেরা রহস্য-রোমাঞ্চ ছবির পরিচালক মানেই সৃজিত মুখোপাধ্যায়। সেই ধারাতে খুব শিগগিরিই বদল ঘটতে চলেছে। সৃজিত এ বার আগামী প্রজন্মের প্রেমের গল্প বলবেন। তার আগাম প্রস্তুতিও সাড়া। প্রযোজনা সংস্থা এসভিএফ-এর সঙ্গে গাটছড়া বেঁধে সেই গল্প পরিচালক ক্যামেরাবন্দি করতে চলেছেন ২ জুলাই থেকে। তাঁর তুরুপের তাস অর্জুন চক্রবর্তী, মধুরিমা বসাক, অনিন্দ্য সেনগুপ্ত, শ্রুতি দাসের মতো জনপ্রিয়, আনকোরা মুখ। ছবির নাম ‘এক্স প্রেম’। ‘অতি উত্তম’-এর পরে আরও এক বার এই ছবির গানের দায়িত্ব সামলাবেন সপ্তক সানাই দাস।

২ জোড়া প্রেমিক-প্রেমিকার প্রেম কী ভাবে ক্যামেরা বন্দি করছেন পরিচালক? গল্প বলছে, খিলাৎ বন্দ্যোপাধ্যায় পেশায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। জয়িতা চৌধুরীর সঙ্গে তাঁর প্রেম। প্রেমকে চিরস্থায়ী করতে খিলাৎ-জয়িতা যে কোনও বাধা ভাঙতে তৈরি। এই ২ চরিত্রে অভিনয় করবেন অনিন্দ্য-শ্রুতি। পাশাপাশি থাকবে আরও এক যুগল, অর্ণব-অদিতি। এদের ভূমিকায় দেখা যাবে অর্জুন চক্রবর্তী-মধুরিমা বসাককে। এঁরাও প্রেমের জন্য প্রাণ বাজি ধরতে রাজি।

Advertisement
‘এক্স প্রেম’-এর পোস্টার।

‘এক্স প্রেম’-এর পোস্টার।


‘দুই পুরুষ’-এর মতো ডার্ক থ্রিলারের পরেই প্রেম নিয়ে কাটাছেঁড়া! কেন? সৃজিতের কথায়, ‘‘দর্শকেরা অনেক দিন ধরেই প্রেমের ছবি বানানোর আবদার জানিয়েছেন। সেই বায়না মেটাতেই ‘এক্স প্রেম’ শুরু করছি।’’ পরিচালকের দাবি, ৪ জনেই এই প্রজন্মের অভিনেতা। যাঁরা তাঁদের সময়ের প্রেমের গল্প বলবেন। নতুনদের সঙ্গে কাজ মানেই বাড়তি উৎসাহ, উদ্দীপনা।

অনিন্দ্য সেনগুপ্ত এবং শ্রুতি দাস।

অনিন্দ্য সেনগুপ্ত এবং শ্রুতি দাস।


কী বলছেন অভিনেতারা? আনন্দ-উচ্ছ্বাস প্রকাশের ভাষা নেই অনিন্দ্য-শ্রুতির। তাঁরা কৃতজ্ঞ, সৃজিত তাঁদের উপর আস্থা রেখেছেন। ছবির দুনিয়ায় সৃজিতের মতো পরিচালকের হাত ধরে পা রাখতে চলেছেন উভয়েই। ফলে, প্রচণ্ড উত্তেজিত তাঁরাও। বৃহস্পতিবারেই অর্জুন তাঁর ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট ভাগ করে নিয়েছিলেন। জানিয়েছিলেন, খুব তাড়াতাড়ি নতুন কিছু নিয়ে আসছেন। সেটা যে এত বড় উপহার, ভাবতে পারেননি তাঁর অনুরাগীরাও। অর্জুনও এই প্রথম কাজ করতে চলেছেন সৃজিতের সঙ্গে। ফলে, তাঁর মধ্যেও চাপা উচ্ছ্বাস। বাকি মধুরিমা। অভিনেত্রীর দাবি, তিনি সৃজিতের বরাবরের অন্ধ অনুরাগী। এ বার তাঁর সঙ্গে কাজের সুযোগ পেয়েছেন। রোজ দিন গুনছেন, কবে শ্যুটিংয়ের তারিখ আসবে?

Advertisement