• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘সুপার ড্রাগ’, রণবীরকে বলেছিলেন দীপিকা, ভাইরাল ছবি

deepika ranvver
রণবীর-দীপিকা।

কেঁপে উঠেছে বলিউড। মাদক কাণ্ডে জড়িয়ে গিয়েছে ইন্ডাস্ট্রির প্রথম সারির অভিনেতা দীপিকা পাড়ুকোনের নাম। নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর তরফে সমন পাঠান হয়েছে দীপিকার ম্যানেজার করিশ্মা প্রকাশকে। আর এ সবের মধ্যেই হঠাৎই ভাইরাল হয়েছে দীপিকার পুরনো এক ছবি। যে ছবির ক্যাপশনে  স্বামী রণবীরের উদ্দেশে অভিনেত্রী লিখেছেন রণবীরই তাঁর ‘সুপার ড্রাগ’।  

গত বছরের নভেম্বরের কথা। ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি শেয়ার করেছিলেন দীপিকা। ছবিতে পিছন ফিরে রয়েছেন রণবীর। তাতে লেখা, ‘লাভ ইজ আ সুপার পাওয়ার’। সেই ছবির ক্যাপশনে দীপিকা লিখেছিলেন, ‘আর তুমি, তুমি আমার সুপার ড্রাগ’। গত রাতের পর থেকেই সেই ছবি আবারও ভাইরাল। তাতে নেটাগরিকদের একাংশ দীপিকার ‘মাদক সংক্রান্ত চ্যাট’ টেনে এনে সরাসরি আক্রমণ করেছেন অভিনেত্রীকে।

সোমবার রাতে বেশ কয়েক জন  বলি তারকার হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট হাতে এসেছে এনসিবি-র। সেই চ্যাটেই দেখা যাচ্ছে, ‘ডি’ এবং ‘কে’ নামে দুই ব্যক্তির মধ্যে মাদক প্রসঙ্গে একাধিক বার কথা চালাচালি হয়েছে। কখনও ‘ডি’, ‘কে’-কে গাঁজা আছে কিনা জিজ্ঞাসা করছেন। আবার কখনও বা ‘কে’ তাঁকে (ডি’কে) গাঁজার হদিশ দিচ্ছেন।

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

& you...my super drug!💝

A post shared by Deepika Padukone (@deepikapadukone) on

কে এই ‘ডি’? আর কেই বা এই ‘কে’? বলিউডের একাংশের দাবি এই ‘ডি’ হলেন দীপিকা নিজেই। আর ‘কে’ অর্থাৎ করিশ্মা দীপিকার ম্যানেজার।

 করিশ্মা জাতীয় পুরস্কার জয়ী প্রযোজক মধু মন্টেনার ট্যালেন্ট হান্ট সংস্থায় কাজ করেন। শোনা যাচ্ছে সেই সূত্রে মন্টেনাকেও ডেকে পাঠাবে এনসিবি। মন্টেনা অন্তত ২৫টি ছবির প্রযোজক। যার মধ্যে আছে ‘গজনি’, ‘সুপার থার্টি’, ‘কুইন’, ‘উড়তা পঞ্জাব’-এর মতো ছবি। ঘটনাচক্রে, ‘উড়তা পঞ্জাব’-এর কাহিনি কিন্তু মাদককে কেন্দ্র করেই। করিশ্মা আবার সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার জয়া সাহারও ঘনিষ্ঠ বন্ধু। এই জয়ার সঙ্গেই রিয়া চক্রবর্তীর মাদক সংক্রান্ত চ্যাট কিছু দিন আগেই ফাঁস হয়েছিল। জয়া রিয়াকে লিখেছিলেন, “সুশান্তের চায়ে চার ফোঁটা মিশিয়ে দিও। ৩০/৪০ মিনিটের মধ্যেই ফল টের পাবে।“

জয়া সাহার সঙ্গে করিশ্মা 

বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছিল, জয়া হয়তো রিয়া চার ফোঁটা সিবিডি (ক্যানাবিডিয়ল) ঢেলে দিতে বলেছিলেন সুশান্তের চায়ে। সিবিডি আদপে গাঁজা থেকে তৈরি এক ধরণের তেল জাতীয় পদার্থ।

ইতিমধ্যেই এনসিবি তরফে সোমবার জেরা করা হয়েছে জয়াকে। জেরা করা হবে করিশ্মাকেও। পাঠান হয়েছে সমন। স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে দীপিকাকেও কি ডেকে পাঠাবে এনসিবি? বেশ কয়েকটি সূত্র বলছে, হ্যাঁ। খুব শীঘ্রই ডাক পড়বে তাঁরও। শুধু দীপিকাই নন এনসিবি সূত্রে খবর, রিয়া চক্রবর্তীর বয়ানের উপর ভিত্তি করে ডাক পড়বে সারা আলি খান, শ্রদ্ধা কপূর এবং রাখুন প্রীতেরও। সুশান্তের ফার্ম হাউজে একসঙ্গে পার্টি করতেন তাঁরা। সেই পার্টিতে মদ ছাড়াও গাঁজা এবং অন্যান্য মাদকের যে যথেচ্ছ ব্যবহার হতো সে প্রমাণ রয়েছে এনসিবি’র হাতে।

মাদক কাণ্ডে ইতিমধ্যেই এনসিবি গ্রেফতার করেছে রিয়া তাঁর ভাই শৌভিক, সুশান্তের ম্যানেজার স্যামুয়েল এবং হাউজ স্টাফ দীপেশকে। তাঁরা সবাই আপাতত জেল হেফাজতে রয়েছেন। মঙ্গলবার অর্থাৎ আজই রিয়ার জেল হেফাজতের সময়সীমা শেষ হচ্ছে। বিশেষ সূত্রের খবর, আরও কয়েক দিন,  আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রিয়া এবং তাঁর ভাইকে জেল হেফাজতে রাখার জন্য আদালতে আবেদন জানাবে এনসিবি। 

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন