×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ জুন ২০২১ ই-পেপার

ছোটদের ছবি

০৬ মে ২০২০ ০২:১০
সুদীপ্তা-বিদিশা ও অবিপ্সা-শাহিদা

সুদীপ্তা-বিদিশা ও অবিপ্সা-শাহিদা

শুরুটা হয়েছিল নেহাতই খেলার ছলে। বাড়িবন্দি অবস্থায় মেয়েকে সামলাবেন কী করে, সে সব ভাবতে ভাবতেই একদিন সন্ধেয় শাহিদা নীরাকে সাজিয়েগুজিয়ে দিয়েছিলেন সুদীপ্তা চক্রবর্তী। সাড়ে চার বছরের ঠুমরি কম যায় না, স্বরচিত গানে অডিয়েন্সকে তাক লাগিয়ে দিল সে। পরের দিন হল মা-মেয়ের জোড়া পারফরম্যান্স। ব্যস তার পর থেকে ফেসবুক দর্শকের চাহিদা মেনে রোজই নিত্য নতুন এপিসোড ডেলিভারি দিতে হচ্ছে সুদীপ্তাকে। আর সেই সব পোস্ট রীতিমতো ভাইরাল।

ঘরবন্দি এই খেলা আরও জমে উঠল যখন সুদীপ্তার দিদি বিদিশা তাঁর মেয়ে অবিপ্সাকে নিয়ে থাকতে এলেন। দুই খুদে মিলে বাড়ি মাতিয়ে দিল। ‘‘ছোট দুটো বাচ্চা একসঙ্গে থাকলে ভাল হবে ভেবেই দিদি চলে এসেছিল। তখন তো বুঝিনি এত দিন লকডাউন চলবে,’’ মন্তব্য সুদীপ্তার। কোনও দিন ডান্স পারফরম্যান্স, কোনও দিন আঁকাআঁকি বা ছাদে ছোটাছুটি... কখনও গাছে জল দেওয়া বা নেহাতই ধুলোবালি নিয়ে খেলা... ক্রিয়েটিভিটির সঙ্গে মেয়েদের সামাজিক দায়িত্ব, সচেতনতার পাঠও শেখানোর চেষ্টা করছেন সুদীপ্তা-বিদিশা। নিত্য দিন নতুন আইডিয়ার জোগান দিতে নাজেহাল হচ্ছেন না অভিনেত্রী? ‘‘আমার নিজের উৎসাহ তো কম নয়। তাই মজা লাগছে। তবে প্রত্যাশা বেড়ে গিয়েছে। ওরা দু’জন রোজ বিকেল থেকে অপেক্ষা করে, আজ নতুন কী হবে,’’ বলছিলেন সুদীপ্তা। আর এই দুই কন্যেকে নিয়ে ফেসবুক জনতার উদ্দীপনা কী ভাবে দেখছেন? হাসতে হাসতে বললেন, ‘‘ব্যাপারটা ডেলি সোপের মতো হয়ে গিয়েছে। রোজ এপিসোড ডেলিভারি দিতে হচ্ছে। চাপ যে একেবারে হচ্ছে না তা নয়। বাড়ির কাজ আছে, মেয়ের স্কুলের অনলাইন ক্লাস হচ্ছে। তার পর রাতে ওরা ঘুমিয়ে পড়লে আমাকে শোয়ের জন্য শুট করতে হচ্ছে।’’ টেলিভিশনের নতুন শো ‘নন-স্টপ আবোল তাবোল’-এর অন্যতম মুখ সুদীপ্তা। শুটে তাঁকে সাহায্য করছেন স্বামী অভিষেক সাহা ও দিদি বিদিশা।

তবে সব কিছুর মধ্যেও ঝুমরি আর ঠুমরি যে সকলের এত ভালবাসা পাচ্ছে, সেটাই পাওনা। যদিও দুই খুদে কিন্তু তাদের এই সেলেব্রিটি সত্তার হদিশ পায়নি।

Advertisement
Advertisement