×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

সুশান্তের মৃত্যুতে সিবিআই তদন্তের সুপারিশ বিহার সরকারের

সংবাদ সংস্থা
পটনা০৪ অগস্ট ২০২০ ১৩:০৫
সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুতে সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করল নীতীশ কুমার সরকার

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুতে সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করল নীতীশ কুমার সরকার

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুতে এ বার তদন্তভার যেতে পারে সিবিআই-এর হাতে। আজ মঙ্গলবার সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করল বিহার সরকার। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার একটি সর্বভারতীয় টিভি চ্যানেলকে বলেছেন, ‘‘সুশান্তের পরিবার যেহেতু সম্মতি দিয়েছে, তাই বিহারে দায়ের হওয়া এফআইআর-এর ভিত্তিতে সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করা হয়েছে।’’ তবে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে সিবিআই তদন্তের দাবি আগেই খারিজ করে দিয়েছিলেন। 

সূত্রের খবর, আজ সকালে মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকে ফোন করেন সুশান্তের বাবা কে কে সিংহ। মুখ্যমন্ত্রীকেও সিবিআই তদন্তের আর্জি জানান। তার পরেই বিহারের জেডিইউ সরকার সিবিআই তদন্তের সুপারিশের সিদ্ধান্ত নেয়। 

গত ১৬ জুন মুম্বইয়ের ফ্ল্যাটে উদ্ধার হয় সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ। তার পর থেকেই সিবিআই তদন্তের দাবি জোরালো হচ্ছিল বিহারে। তাতে যোগ দিয়েছিলেন সুশান্তের বাবা কে কে সিংহ-ও। মুম্বই পুলিশ কার্যত কিছুই করছে না বলে অভিযোগ তুলেছিলেন। গত কয়েক দিনে বিহার সরকারের উপর সেই চাপ আরও বেড়েছে। সুশান্তের বাবা গতকাল সোমবারও একটি ভিডিয়ো বার্তায় বলেছেন, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি আমি বান্দ্রা থানার পুলিশকে জানাই যে আমার ছেলের জীবন বিপন্ন। তার পর ১৪ জুন ছেলের মৃত্যু হল। ছেলের মৃত্যুর পর ফেব্রুয়ারিতে অভিযোগে যাঁদের নাম ছিল, তাঁদের বিরুদ্ধে তদন্তের কথা বলেছিলাম। কিন্তু ঘটনার ৪০ দিন পরেও কোনও ব্যবস্থাই নেওয়া হয়নি। তাই আমি পটনা পুলিশে এফআইআর দায়ের করেছি।

Advertisement

আরও পড়ুন: মৃত্যুর আগে ‘যন্ত্রণাহীন মৃত্যু’ গুগল করেছিলেন সুশান্ত: মুম্বই পুলিশ

আরও পড়ুন: রিয়া আত্মগোপন করেননি, মুখ খুললেন তাঁর কৌঁসুলি

প্রচলিত প্রথা অনুযায়ী কোনও রাজ্য সরকার সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করলে কেন্দ্রও তা মেনে নেয়। ফলে সুশান্তের মৃত্যুতে সিবিআই তদন্তভার সিবিআই-এর হাতে যেতে পারে বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। তবে এ ক্ষেত্রে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে মুম্বইয়ে। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী আবার সিবিআই তদন্তের আর্জি খারিজ করেছেন। ফলে এ ক্ষেত্রে কী হবে, তা নিয়ে কিছুটা হলেও সংশয় রয়েছে। 

Advertisement