• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘ওই শেষ ফোনটি আমার কাছে ওয়েক আপ কল’, মহেশ-রিয়ার ব্যক্তিগত চ্যাট প্রকাশ্যে

Mahesh Rhea
প্রথমবার প্রকাশ্যে এল রিয়া চক্রবর্তী এবং মহেশ ভট্টর হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট। ফাইল চিত্র।

প্রথম বার প্রকাশ্যে এল রিয়া চক্রবর্তী এবং মহেশ ভট্টর হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট। আর একই সঙ্গে তা থেকে বেরিয়ে এল এমন কিছু কথা যা এত দিন অন্তরালেই ছিল।

জুন মাসের আট তারিখ সুশান্তের বান্দ্রার ফ্ল্যাট ছেড়ে চলে আসেন রিয়া চক্রবর্তী। দিনটি ছিল সোমবার। সন্ধে ৭টা ৪৫ নাগাদ ওই দিনই ‘মেন্টর’ মহেশ ভট্টকে মেসেজ করেন রিয়া। মহেশেও রিপ্লাই দেন। প্রায় আধ ঘন্টা ধরে চলে কথোপকথন। কী কথা হয়েছিল ওঁদের? 

‘ইন্ডিয়া টু’ডে-র এক এক্সক্লুসিভ রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে, রিয়াই প্রথমে মহেশকে জানান তিনি মুভ অন করে গিয়েছেন। তিনি লেখেন, “স্যর, দুঃখ জমা হৃদয় আর পরিতৃপ্তি নিয়ে আয়েশা (জলেবি ছবিতে রিয়ার নাম) বলছে সে মুভ অন করে গিয়েছে। আমাদের ওই শেষ ফোনটি আমার কাছে ওয়েক আপ কল। আপনি আমার এঞ্জেল। তখনও ছিলেন আর এখনও।” এর ঠিক ১২ মিনিট পর মহেশের ফোন থেকে মেসেজ ঢোকে রিয়ার ফোনে। তিনি লেখেন, “আর পিছনে ফিরে তাকিয়ো না। যা হওয়ার তা হতে দাও। তোমার বাবাকে অনেক ভালবাসা। আজ তিনি নিশ্চয়ই খুব খুশি।”

আরও পড়ুন: দাম্পত্যে বিচ্ছেদ, জাতীয় পুরস্কারজয়ী ছবির ব্যর্থ নায়িকা আজ সফল অন্য পেশায়

এর পরেই মহেশ রিয়াকে তিন বার লেখেন, “তুমি আমার সন্তান।” এখানেই শেষ নয়, রিয়ার সাহসের জন্য তাঁকে ধন্যবাদও জানান মহেশ। রিয়া পাল্টা লেখেন, “আমার ভাগ্যকে ধন্যবাদ আপনার সঙ্গে আমার দেখা হয়েছিল। এত দিন আপনি আমায় যা যা বলেছেন, তা আমার কানে প্রতি মুহূর্তে প্রতিধ্বনিত হয়। আপনার এই অপরিসীম ভালবাসা আমার জীবনে এক সুবিস্তৃত প্রভাব ফেলেছে। আবারও আপনি আমায় পাখা মেলে ওড়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। এই নিয়ে এক জীবনে দু’বার।“

মহেশ তার উত্তরে লেখেন, “যা করেছ তার জন্য সাহসের দরকার হয় রিয়া। আর পিছনে ফিরে তাকিও না।”

এর আগে মুম্বই পুলিশের বয়ানে রিয়া জানিয়েছিলেন ৮ জুন সুশান্তের সঙ্গে মনোমালিন্য হওয়ায় ফ্ল্যাট ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সম্প্রতি রিয়ার আইনজীবী সতীশ মানশিণ্ডে সংবাদমাধ্যমে এক বিবৃতি পেশ করে বলেন, সুশান্তের দিদি এবং জামাইবাবুর আসার কথা ছিল ৮ জুন। আর সেই কারণেই সুশান্তই নাকি রিয়াকে বলেছিলেন, কিছুদিন নিজের বাড়িতে গিয়ে থাকতে। এ দিকে রিয়া এবং মহেশের চ্যাটে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, সুশান্তের সঙ্গে রিয়ার সম্পর্ক নিয়ে খুশি ছিলেন না রিয়ার বাবাও। একই সঙ্গে বেরিয়ে আসছে আরও নানা প্রশ্ন, যার উত্তর এখনও মেলেনি।

ইতিমধ্যেই সিবিআই-এর দলটি মুম্বই পৌঁছে গিয়েছে। জোরকদমে শুরু হয়ে গিয়েছে সুশান্ত সিংহ রাজপুতের অস্বাভাবিক মৃত্যুর তদন্ত।  

আরও পড়ুন: দাম্পত্যে বিচ্ছেদ, জাতীয় পুরস্কারজয়ী ছবির ব্যর্থ নায়িকা আজ সফল অন্য পেশায়

আরও পড়ুন: মুম্বই পৌঁছচ্ছে সিবিআইয়ের দল, প্রথমেই কি জেরা রিয়াকে

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন