Advertisement
২৫ মে ২০২৪
Shabaash Mithu

Taapsee Pannu: সেই যখন ‘সাবাশ মিথু’ দেখলেনই, প্রেক্ষাগৃহে গেলেন না কেন? আক্ষেপ তাপসীর

প্রেক্ষাগৃহে দর্শক হল না। এ দিকে নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেতেই জনপ্রিয়তার শীর্ষে ‘সাবাশ মিথু’।

মুক্তির এক মাস পর হিট!

মুক্তির এক মাস পর হিট!

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ১৫ অগস্ট ২০২২ ১৭:১০
Share: Save:

অনর্গল ফোন বেজেই চলেছে তাপসী পান্নুর। ‘সাবাশ মিথু’ দেখে আপ্লুত দর্শক তাঁকে শুভেচ্ছা-আশীর্বাদে ভরিয়ে দিতে চাইছেন। কিন্তু এ তো আগেও হতে পারত! অবাক হচ্ছেন তাপসী। ছবি মুক্তি পেয়েছে গত ১৫ জুলাই। প্রেক্ষাগৃহে ভরাডুবি। সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় প্রথম বলিউড ছবি দেখতে আসেনি কেউ। ধরেই নেওয়া হয়েছে, ছবিটি ব্যর্থ।

ঠিক এক মাস পর পরিস্থিতি গেল বদলে। নেটফ্লিক্স নোটিফিকেশন দিতেই নিছক কৌতূহলে গ্রাহকরা খুলে ফেলেছিলেন ‘সাবাশ মিথু’। তার পর টানটান রোমাঞ্চে আড়াই ঘণ্টা পার! ছবি দেখে হাসি-কান্নায় ভেসে খুঁজে বেড়াচ্ছেন তাপসীর ইমেল আইডি, ফোন নম্বর। এত বিপুল ভাল লাগা অনেক দিন আসেনি জীবনে, এমনও বলছেন অনেকে।

ভরতনাট্যম শিখতে শিখতে কাপড় কাচার ব্যাট হাতে দৌড়। ছোট্ট মিতালি বড় হয়ে ওঠে ক্রিকেটার হওয়ার অনুপ্রেরণায়। সাধনায়। একের পর এক কৌশল রপ্ত করে চলা। সব কিছুর মূলে বন্ধু নুরি। কিন্তু তারই পারিবারিক চাপে ক্রিকেট খেলা হয়ে ওঠে না। প্রশিক্ষকের যত্নে, সতর্কতায় ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের ডানহাতি ব্যাটার হয়ে ঝলমল করেন জোধপুরের তরুণী মিতালি রাজ। তাঁরই জীবন অবলম্বনে ছবি 'সাবাশ মিথু'। নামভূমিকায় অভিনয় করেছেন তাপসী পান্নু। নির্মাণেই লুকিয়ে ছিল অধ্যবসায়। রক্ত জল করা সংগ্রাম। ক্রিকেট যে শুধু পুরুষের খেলা নয়, মহিলা খেলোয়াড়রাও দেশের মুখ, সেই সচেতনতা তৈরি করতে চেয়েছে সৃজিত পরিচালিত ‘সাবাশ মিথু’।

তবু গত মাসে মুক্তির পর বক্স অফিসে কোনও রকম প্রভাব না ফেলতে পারায় মনঃক্ষুণ্ণ হয়েছিলেন তাপসী-সহ সমস্ত কলাকুশলী। সেই ছবিকেই দর্শক নতুন করে নেটফ্লিক্সে আবিষ্কার করলেন দেখে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেন ‘মিথু’ ওরফে তাপসী। জানালেন, কঠোর পরিশ্রমের ফল কখনও না কখনও মেলে।

ভারতে এই মুহূর্তে ১ নম্বরে থাকার স্ক্রিনশট শেয়ার করে, তাপসী তাঁর পোস্টে লিখেছেন, ‘আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ। প্রেক্ষাগৃহে না হলেও অন্তত এখানে আমরা কিছুটা ভালবাসা পেলাম।’

তবে তাঁর আক্ষেপ, ছবিটি যদি সবাই প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে দেখতেন, তা হলে আরও ভাল হত। বক্স অফিসের অঙ্ক মুখ থুবড়ে পড়ত না। লিখলেন, ‘সে যা-ই হোক। আমি এতেই আনন্দিত যে, আপনারা সবাই আমাদের ছোট্ট রত্নটিকে খুঁজে পেয়েছেন। কঠোর পরিশ্রম কখনই নজর এড়ায় না, আমারও বিশ্বাস ছিল।’

তাপসী অবশ্য এ ছবি নিয়ে বরাবরই আশাবাদী ছিলেন। ভারতীয় ক্রিকেটের সুপারস্টার মিতালি রাজের জীবন বহু তরুণীকে খেলা নিয়ে স্বপ্ন দেখতে শেখাবে, লড়তে অনুপ্রাণিত করবে— এমন বিশ্বাস তাঁর ছিল।

তাপসীকে শীঘ্রই দেখা যাবে অনুরাগ কাশ্যপের ‘দোবারা’-তে। আগামী ১৮ অগস্ট মুক্তি পাবে সে ছবি। তা ছাড়া শাহরুখ খানের সঙ্গে রাজকুমার হিরানির ‘ডাংকি’তেও কাজ করছেন অভিনেত্রী।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE