Advertisement
২৯ জানুয়ারি ২০২৩
Vivek Agnihotri

বিচারপতিকে নিয়ে মন্তব্য, ক্ষমা চাইলেন অগ্নিহোত্রী

নওলখাকে জামিন দেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন দিল্লি হাই কোর্টের বিচারপতি এস মুরলীধর। বিচারপতি পক্ষপাতদুষ্ট রায় দিয়েছেন বলে দাবি করেছিলেন অগ্নিহোত্রী।

চিত্র পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী।

চিত্র পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০২২ ০৭:২০
Share: Save:

ভীমা কোরেগাঁও মামলায় অভিযুক্ত সমাজকর্মী গৌতম নওলাখাকে জামিন দেওয়া নিয়ে তাঁর বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য আজ দিল্লি হাই কোর্টের সামনে ক্ষমা চাইলেন চিত্র পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী। হাই কোর্ট ওই রায় দেওয়ার জন্য তিনি খোদ বিচারপতিরই সমালোচনা করেছিলেন। এর পর তাঁর বিরুদ্ধে একতরফা ভাবে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছিল দিল্লি হাই কোর্ট।

Advertisement

নওলখাকে জামিন দেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন দিল্লি হাই কোর্টের বিচারপতি এস মুরলীধর। বিচারপতি পক্ষপাতদুষ্ট রায় দিয়েছেন বলে দাবি করেছিলেন অগ্নিহোত্রী। ২০০৬ সাল থেকে ২০২০ পর্যন্ত দিল্লি হাই কোর্টে বিচারপতি হিসেবে ছিলেন এস মুরলীধর। গত বছর তিনি পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাই কোর্টে বদলি হয়ে যান। বতর্মানে ওড়িশা হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি হিসেবে বহাল রয়েছেন।বিচারপতি মুরলীধরের রায়ের পর অগ্নিহোত্রী পক্ষপাতের অভিযোগ তোলায় তাঁর বিরুদ্ধে একতরফা ভাবে মামলা চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দিল্লি হাই কোর্ট।

আদালতে হলফনামা দিয়ে অগ্নিহোত্রী জানিয়েছেন, যে টুইটকে ঘিরে বিতর্কের সূত্রপাত, সেটি তিনি মুছে দিয়েছেন। তবে আদালতের সহায়ক আইনজীবী অরবিন্দ নিগম কোর্টকে জানিয়েছেন, অগ্নিহোত্রী নিজে নন, সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মই টুইটটি মুছে দিয়েছে। আদালত তাঁকে ব্যক্তিগত ভাবে হাজির হয়ে ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। হলফনামা দিয়ে সব সময় ক্ষমা প্রার্থনা করা যায় না, বলেছিল কোর্ট।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.