Advertisement
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
West Bengal Women Commission

Women’s Commision: স্বপ্নভঙ্গ হলেও বাঁচার পথ খোলা, ইন্ডাস্ট্রির নতুন মুখদের পথ দেখাবে মহিলা কমিশন

পরপর আত্মহত্যা নতুন অভিনেত্রী, উঠতি মডেলদের। আর্টিস্ট ফোরামের সঙ্গে হাত মিলিয়ে নতুন প্রজন্মকে জীবনের পথে নিয়ে যেতে চায় মহিলা কমিশন।

পরপর আত্মহত্যা নতুন অভিনেত্রী, উঠতি মডেলদের।

পরপর আত্মহত্যা নতুন অভিনেত্রী, উঠতি মডেলদের।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩০ মে ২০২২ ১৮:৩০
Share: Save:

গত কয়েক দিনের ব্যবধানে কলকাতায় এ নিয়ে চার জন মডেল তথা অভিনেত্রীর অস্বাভাবিক মৃত্যু। কিছু দিন আগে গরফায় বাড়ি থেকেই মেলে টেলিপর্দার অভিনেত্রী পল্লবী দে-র ঝুলন্ত দেহ। তার পরে গত বুধবার নাগেরবাজারের বাড়িতে একই অবস্থায় পাওয়া যায় উঠতি মডেল বিদিশা দে মজুমদারকে। শুক্রবার সকালে পাটুলির বাড়িতে ঝুলন্ত দেহ মেলে অভিনেত্রী মঞ্জুষা নিয়োগীর দেহ। রবিবার রাতেই ফের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার রূপটান শিল্পী তথা উঠতি মডেল সরস্বতী দাসেরও।

কী করছে রাজ্যের মহিলা কমিশন?

আনন্দবাজার অনলাইনকে কমিশনের অধ্যক্ষ লীনা গঙ্গোপাধ্যায় বললেন, “মঙ্গলবার কমিশনের পক্ষ থেকে আর্টিস্ট ফোরামকে একটি চিঠি দেওয়া হবে একটা সভা আয়োজন করার জন্য। মত বিনিময়ের এই জমায়েতে কমিশন থাকবে, চিকিৎসকদের একটা গোষ্ঠী থাকবে কাউন্সেলিং করার জন্য। আর থাকবে আর্টিস্ট ফোরাম। ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতে করতে পেশা নিয়ে উঠতি প্রজন্মের কোনও কুচিন্তা এলে তার মোকাবিলা যাতে তাঁরা করতে পারেন, সে জন্যই এই আয়োজন”।লীনা জানালেন এই উদ্যোগে তাঁর সঙ্গে যোগ দেবেন অভিনেতা বাদশা মৈত্র। ইতিমধ্যেই বাদশার সঙ্গে তাঁর কথা হয়ে গিয়েছে। চাইলেই যে স্বপ্ন পূরণ হয় না, অভিনয় ছাড়াও যে ইন্ডাস্ট্রিতে আরও অন্য রকম কাজ আছে, সেগুলোর সম্পর্কেও সম্যক ধারণা দেওয়া হবে নতুন প্রজন্মকে। লীনার মতে, এই মিলিত উদ্যোগে মত আদান প্রদানের মাধ্যমে সবচেয়ে জরুরি নতুন প্রজন্ম ইন্ডাস্ট্রিতে এসে কী ভাবছে, তা জানা। তাঁরা যাতে খোলাখুলি কথা বলতে পারে, ভুল পথে চলে না যায়, সে জন্যই এই ব্যবস্থা।

প্রযোজনা সংস্থা ‘ম্যাজিক মোমেন্টস’-এর অন্যতম কর্ণধার লীনা। জানালেন, পল্লবী যে দিন আত্মহত্যা করেছিলেন, পরদিনই তাঁর কাছে আসার কথা ছিল অভিনেত্রীর। সঙ্গে ভরত কল। লীনার আফশোস, “তার আগেই সব হয়ে গেল।“ তবে এই প্রথম নয়, তাঁর কাছে ইন্ডাস্ট্রির নতুন মুখ, লড়াই করতে চাওয়া মুখের ফোন রাতবিরেতে প্রায়ই আসে। সেই অভিজ্ঞতা থেকে লীনা জানালেন, সময় এসেছে এই প্রজন্মকে জানিয়ে দেওয়ার ইন্ডাস্ট্রির আসল বাজারটা কেমন! তাঁরা যে স্বপ্ন দেখছেন, তা কতটা বাস্তব? বলে দেওয়া, স্বপ্ন কিন্তু ভাঙতেও পারে। আর ভাঙলে যে অন্য ভাবে জোড়াও যায়, সেই রাস্তাটাই আর্টিস্ট ফোরামের সঙ্গে হাত মিলিয়ে দেখাতে চাইছে মহিলা কমিশন।

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তেফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE