Advertisement
২২ জুলাই ২০২৪
Diabetes Control Tips

ডায়াবিটিসে ভুগছেন? প্রাতরাশের সময় কোন ভুলগুলি এড়িয়ে না চললেই বিপদে পড়বেন

ডায়াবেটিকদের জন্য কিন্তু প্রতরাশ এড়িয়ে যাওয়া একেবারেই ঠিক নয়। ঘুম থেকে উঠে অনেক ক্ষণ খালি পেটে থাকলে রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়। কখন খাচ্ছেন, তার পাশাপাশি কী খাচ্ছেন, সেটাও কিন্তু সমান ভাবে গুরুত্বপূর্ণ।

প্রাতরাশের সময় কোন ভুলগুলি বাড়িয়ে দিতে পারে রক্তের শর্করার মাত্রা?

প্রাতরাশের সময় কোন ভুলগুলি বাড়িয়ে দিতে পারে রক্তের শর্করার মাত্রা?

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১২ মে ২০২৪ ১০:০৫
Share: Save:

দেরিতে ঘুম থেকে ওঠার কারণে, কেউ আবার কর্মব্যস্ততার কারণে দিনের প্রথম খাবার খান বেলা ১২টার পর। এই অনিয়মের ফলেই বেড়ে যায় ওজন। বিশেষ করে ডায়াবেটিকদের জন্য কিন্তু প্রতরাশ এড়িয়ে যাওয়া একেবারেই ঠিক নয়। ঘুম থেকে উঠে অনেক ক্ষণ খালি পেটে থাকলে রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়। কখন খাচ্ছেন, তার পাশাপাশি কী খাচ্ছেন, সেটাও কিন্তু সমান ভাবে গুরুত্বপূর্ণ। খাবারের মাধ্যমেই শরীরের প্রতিটি কোষে গ্লুকোজ সরবরাহ হয়। তাই প্রাতরাশের তালিকায় এমন কিছু রাখবেন না, যা রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। প্রাতরাশের ক্ষেত্রে ডায়াবিটিস রোগীদের পাঁচটি বিষয় মনে রাখা একান্ত প্রয়োজন।

১) অনেকেই জলখাবারে রুটি কিংবা পাউরুটি খেতে বেশি পছন্দ করেন। ডায়াবিটিসের রোগীদের প্রাতরাশে কার্বহাইড্রেট একেবারেই কম রাখা উচিত। আলু, ময়দা কিংবা ভাত প্রাতরাশে রাখবেন না। এগুলি আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেবে।

২) ডায়াবিটিস থাকলে সকালের জলখাবারে ফাইবার থাকা জরুরি। প্রাতরাশে ফাইবারে ভরপুর খাবার খেলে পেট অনেক ক্ষণ ভর্তি থাকে, পাশাপাশি রক্তে শর্করার মাত্রাও নিয়ন্ত্রণে থাকে। কোলেস্টেরলও নিয়ন্ত্রণে থাকে। ডায়াবেটিকরা জলখাবারে ওট্স, ছোলা, কাবলি ছোলা রাখতেই পারেন।

৩) প্রাতরাশ কিন্তু রঙিন হওয়া উচিত। রঙিন সব্জি বা ফলের মধ্যে অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে অনেক বেশি। এক বাটি পেঁপে, পেয়ারা, আপেল, বেদানা, ন্যাসপাতি সব একসঙ্গে মিশিয়ে ফ্রুট স্যালাড বানিয়ে খেতেই পারেন। এ ছাড়াও মাশরুম সেদ্ধ করে তাতে শসা, টোম্যাটো, পেঁয়াজ কুচি, সামান্য মাখন আর গোলমরিচের গুঁড়ো ছড়িয়ে খেতে পারেন।

ফলের রস না খেয়ে গোটা ফল খেতে পারেন প্রাতরাশে।

ফলের রস না খেয়ে গোটা ফল খেতে পারেন প্রাতরাশে। ছবি: সংগৃহীত।

৪) প্রাতরাশে বেশি মাত্রায় প্রোটিন রাখুন। চিকেন দিয়ে স্যালাড বানিয়ে খেতে পারেন। এ ছাড়াও ডিম বেশ উপকারী। প্রোটিন রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। ফলে ডায়াবিটিস থাকে নিয়ন্ত্রণে।

৫) ফল খাওয়া স্বাস্থ্যকর হলেও প্যাকেটবন্দি ফলের রস বাড়িয়ে দিতে পারে রক্তে শর্করার মাত্রা। ফলের রস না খেয়ে গোটা ফল খেতে পারেন প্রাতরাশে।

ডায়াবেটিকদের একে বারে বেশি খাবার খাওয়ার বদলে বারে বারে অল্প অল্প করে খাবার খেতে বলা হয়। তাই প্রাতরাশের পরিমাণের উপরেও নজর রাখা জরুরি। বেশি খাওয়া চলবে না। প্রাতরাশ বাদ দিলেও চলবে না।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Breakfast Tips Diabetes
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE