Advertisement
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
heart care

Healthy Heart: বর্ষবরণের আনন্দে মেতেছেন? অজান্তে বাড়ছে না তো হৃদ্‌রোগের আশঙ্কা

বছর শেষের হুল্লোড়ের মাঝে মনে থাকে না যে, এই ঠান্ডায় বাড়তে পারে হৃদ্‌রোগের আশঙ্কা। কিন্তু অল্প সতর্কতা অবলম্বন করলেই এড়াতে পারেন এই ঝুঁকি।

তাপমাত্রা কমতে শুরু করলে এক ব্যক্তির হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়তে শুরু করে

তাপমাত্রা কমতে শুরু করলে এক ব্যক্তির হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়তে শুরু করে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ ১৭:৪৭
Share: Save:

বছর শেষে অতিমারির আচমকা আক্রমণ আমাদের সব পরিকল্পনা প্রায় বানচাল করে দিলেও ব্যক্তিগত পরিসরে আনন্দ উদ্‌যাপন করতে কেউই কম যান না। অথচ বছর শেষের হুল্লোড়ে মেতে উঠতে গিয়ে প্রায়ই মনে থাকে না যে এই ঠান্ডা আবহাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য বেশ ক্ষতিকর, বিশেষ করে যাঁদের হার্টের সমস্যা আছে, তাঁদের জন্য তো বটেই। চিকিৎসকরা সতর্ক করেছেন যে, তাপমাত্রা কমতে শুরু করলে এক ব্যক্তির হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়তে শুরু করে। শীতকালে হৃদ্‌যন্ত্রের রক্তনালীগুলি কিছুটা সঙ্কুচিত হয়ে পড়ে। এটি হার্টে রক্ত প্রবাহের পরিমাণ হ্রাস করে, যা হৃদ্‌রোগ বা স্ট্রোকের আশঙ্কা বাড়িয়ে দিতে পারে। কিন্তু অল্প কিছু সতর্কতা অবলম্বন করলেই আপনি এড়াতে পারেন এই ঝুঁকি।

১। এই সময়ে তাপমাত্রার পার্থক্যের ফলে ‘হাইপোথার্মিয়া’ সৃষ্টি হতে পারে, যা হৃৎপিণ্ডের রক্তনালীগুলির ক্ষতি করতে পারে। তাই চিকিত্সকের পরামর্শে একটি নতুন ব্যায়ামের রুটিন শুরু করা প্রয়োজন।

হার্ট অ্যাটাকের সতর্কীকরণ লক্ষণগুলি জানুন

হার্ট অ্যাটাকের সতর্কীকরণ লক্ষণগুলি জানুন

২। আপনার শরীর উষ্ণ রাখা এই সময়ে গুরুত্বপূর্ণ। তবুও শরীর অতিরিক্ত গরম করা উচিত নয়। এর ফলে রক্তনালী প্রসারিত হতে পারে, বিশেষ করে যাঁদের হার্টের সমস্যা আছে, তাঁদের নিম্ন রক্তচাপ তৈরি হতে পারে। এবং যখন রক্তচাপ কমে যায়, তখন হার্টের রক্ত সরবরাহ কমতে পারে। সুতরাং, আপনি যদি ঘামছেন বলে মনে করেন, তা হলে চটপট পরে থাকা শীতবস্ত্র খুলে ফেলুন।

৩। বর্ষবরণের আনন্দে মাতলেও অ্যালকোহল, নিকোটিন এবং ক্যাফেন এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন। এগুলি রক্তনালীকে সঙ্কুচিত করতে পারে, যা হার্টের সমস্যা তৈরি করতে পারে।

৪। হার্ট অ্যাটাকের সতর্কীকরণ লক্ষণগুলি জানুন। শ্বাসকষ্ট, অনিয়মিত হৃদ্‌স্পন্দন, বুকে অস্বস্তি বা বেদনাদায়ক অনুভূতি, বমি বমি ভাব, মাথা ঘোরা, ঘাম ইত্যাদি। বছর শেষে এমন কোনও লক্ষণ দেখা দিলে দেরি না করে শরণাপন্ন হন চিকিত্সকের।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.