Advertisement
০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Magnetic Therapy

হাঁটুর ব্যথা থেকে কোষ্ঠকাঠিন্য, চুম্বকের জোরে সারবে সবই! কী ভাবে করা হয় থেরাপি?

ক্রনিক ব্যথার ক্ষেত্রে চুম্বক থেরাপি দারুণ একটি বিকল্প হতে পারে। শরীরের ভিতরে থাকা চুম্বকীয় ক্ষেত্রের ভারসাম্য পুনরায় ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হয় এর মাধ্যমে।

ক্রনিক ব্যথার ক্ষেত্রে চুম্বক থেরাপি দারুণ একটি বিকল্প হতে পারে।

ক্রনিক ব্যথার ক্ষেত্রে চুম্বক থেরাপি দারুণ একটি বিকল্প হতে পারে। ছবি- সংগৃহীত

শেষ আপডেট: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৮:৩৩
Share: Save:

গ্যাস, অম্বল, কাটাছেঁড়া বা বৃষ্টিতে ভিজে ঠান্ডা লাগা এমন ছোটখাটো শরীর খারাপের জন্য চোখ বন্ধ করে হোমিওপ্যাথির উপর ভরসা করেন। ইদানীং হাঁটুর ব্যথা এত বেড়েছে যে, পূর্ণিমা-অমাবস্যা কোনও কিছুই বাধ মানছে না। ব্যথা কমাতে সেঁক, মলম, জেল, সবই করেছেন তা দিয়ে সাময়িক আরাম পেলেও বেশি ক্ষণ স্থায়ী হচ্ছে না। পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে জেনেও এক রকম বাধ্য হয়েই নানা প্রকার ব্যথা কমানোর ওষুধ খাচ্ছেন। প্রতিবেশীর কাছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন আয়ুর্বেদিক ওষুধের গুণগান শুনে শেষ কালে তার দ্বারস্থ হলেন। কিন্তু তাতেও বিশেষ লাভ হল না। এই ধরনের ক্রনিক ব্যথার ক্ষেত্রে চুম্বক থেরাপি দারুণ একটি বিকল্প হতে পারে।

Advertisement

এই থেরাপি কী ভাবে কাজ করে?

বিশেষজ্ঞদের মতে, মানবদেহে থাকা তড়িৎ এবং চুম্বকীয়ক্ষেত্রের ভারসাম্য বিঘ্নিত হলেই নানা প্রকার রোগ শরীরে বাসা বাঁধে। বিশেষ এই চিকিৎসার মাধ্যমে শরীরের কাছাকাছি বা শরীরের সংস্পর্শে অনেকগুলি চুম্বক স্থাপন করা হয়। এই চুম্বকগুলির মাধ্যমে শরীরের ভিতরে থাকা চুম্বকীয় ক্ষেত্রের ভারসাম্য পুনরায় ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হয়।

কোন কোন চিকিৎসায় চুম্বকীয় থেরাপির ব্যবহার রয়েছে?

Advertisement

আকুপাংচার

বিশেষ ধরনের এই চিকিৎসায় আরও উন্নত ফলাফল পেতে বিশেষজ্ঞরা অনেক সময়েই পরীক্ষামূলক ভাবে চুম্বক ব্যবহার করে থাকেন।

স্থায়ী

স্থির চুম্বকীয় থেরাপিতে রিস্টলেট, কোমরে পরার বেল্ট, জুতো, তোষক, পা রাখার বিশেষ প্যাডের মধ্যে দিয়ে দেহের বিভিন্ন অংশে চুম্বকীয় তরঙ্গ পাঠিয়ে বহু জটিল রোগের চিকিৎসা করা হয়।

তড়িৎ চুম্বকীয় থেরাপি

এই ধরনের চিকিৎসায় শরীরে উদ্দীপনা সৃষ্টি করতে, বাইরে থেকে চার্জ দিয়েও চুম্বক ব্যবহার করা হয়।

সুযোক থেরাপি

বিশেষ এই চিকিৎসা পদ্ধতিতে হাত এবং পায়ের বিভিন্ন অংশে ছোট ছোট ট্যাবলেটের মতো চুম্বক ব্যবহার করা হয়। তবে চিকিৎসার ধরন এবং সময় নির্ভর করে রোগের তীব্রতার উপর। মানবদেহে সাতটি চক্রের উপর এই চুম্বক থেরাপির বিশেষ প্রভাব রয়েছে।

কী ধরনের রোগের ক্ষেত্রে চুম্বকীয় থেরাপি কাজ করে?

সাইটিকা

ঘাড়ে এবং কোমরে ব্যথা

আলস্য

ম্যাজমেজে ভাব

হাঁটুর ব্যথা

বাতের ব্যথা

অনিদ্রা

কোষ্ঠকাঠিন্য

তবে যাঁরা ইনসুলিন নেন, যাঁদের শরীরে পেসমেকার বসানো রয়েছে এবং হবু মায়েরা ভুলেও কোনও প্রকার চুম্বকীয় থেরাপি করাবেন না।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.