Advertisement
০১ মার্চ ২০২৪

পলামুতে যৌথবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ১২ মাওবাদী

ঝাড়খণ্ডের পলামু জেলায় পুলিশ-মাওবাদী সংঘর্ষে নিহত ১২ মাওবাদী। সোমবার গভীর রাতের ঘটনা। পুলিশ সূত্রে খবর, পলামু জেলায় বেশ কয়েক দিন ধরেই মাওবাদীদের খোঁজে টহলদারি চলছিল। সোমবার গভীর রাতে পলামুর সতবেড়িয়ার পাকরিয়া গ্রামে টহলদারির সময়ে পুলিশের উপরে প্রথম গুলি চালায় মাওবাদীরা। পুলিশও উত্তরে গুলি চালালে সংঘর্ষ শুরু হয়। প্রায় ঘণ্টা তিনেক ধরে পুলিশ ও মাওবাদীদের মধ্যে গুলির লড়াই চলে। সংঘর্ষে নিহত হয় ১২ জন মাওবাদী।

—নিজস্ব চিত্র।

—নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
রাঁচি শেষ আপডেট: ০৯ জুন ২০১৫ ০৯:৪১
Share: Save:

সিআরপিএফ এবং রাজ্য পুলিশের যৌথবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হল ১২ জন মাওবাদী। সোমবার রাতে ঝাড়খণ্ডের পলামু জেলার ঘটনা।

পুলিশ সূত্রে খবর, পলামু জেলায় বেশ কয়েক দিন ধরেই মাওবাদীদের খোঁজে টহলদারি চালাচ্ছিল যৌথবাহিনী। সোমবার গভীর রাতে পলামুর সাতবেড়িয়ার পাকুড়িয়া গ্রামে টহলদারির সময়ে তাদের উপরে মাওবাদীরা প্রথমে গুলি চালায় বলে অভিযোগ। বাহিনী তার জবাবে পাল্টা গুলি চালায়। ঘণ্টা তিনেক ধরে দু’তরফে গুলির লড়াই চলে। সংঘর্ষে নিহত হয় ১২ জন মাওবাদী।

পুলিশের দাবি, নিহতদের মধ্যে দু’জনকে শনাক্ত করা গিয়েছে। তাদের নাম উদয় যাদব এবং আর কে প্রসাদ। অন্যদের শনাক্ত করার কাজ চলছে। তবে, নিহতেরা ছাড়া ওই দলে থাকা বাকি মাওবাদীরা পালিয়ে গিয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আটটি আগ্নেয়াস্ত্র এবং প্রায় ৩০০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে সিআরপিএফ জওয়ানেরা।

পলামু রেঞ্জের আইজি এ নটরাজন মঙ্গবার সকালে বলেন, “এই ঘটনায় কেউ গ্রেফতার না হলেও এটা বাহিনীর একটা বড় সাফল্য। এই ঘটনায় জওয়ানদের মনোবল অনেকটা চাঙ্গা হল। আপাতত পলামু রেঞ্জের সব থানায় চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয়েছে।” তিনি আরও জানান, পলামুতে তল্লাশি অভিযান চলবে। ঘটনাস্থলে পুলিশের উচ্চপদস্থ আধাকারিকরা পৌঁছন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE