Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

১৫ বছর বয়সেই আইআইটি’তে সুযোগ পেল অভয়!

আইইটিতে তার সমস্ত পরিচয়পত্র খতিয়ে দেখে নেওয়া হয়। তখনই এই কিশোরের বয়সের নথিপত্র দেখে অবাক হয়ে যান সবাই। ২০০১-এর ৯ নভেম্বর জন্ম অভয়ের।

সংবাদ সংস্থা
০২ জুলাই ২০১৭ ২০:০০
বাবা মুকেশ অগ্রবালের সঙ্গে অভয়। ছবি: সংগৃহীত।

বাবা মুকেশ অগ্রবালের সঙ্গে অভয়। ছবি: সংগৃহীত।

এই ছেলেটির অধ্যাবসায় সত্যি-সত্যিই বাহবা পাওয়ার মতো। যে বয়সে ছেলেমেয়েরা মাধ্যমিকের প্রস্তুতির জন্য আদা-জল খেয়ে নেমে পড়ে, সেই বয়সেই আইআইটিতে ভর্তি হতে চলেছে ১৫ বছরের অভয় অগ্রবাল।

এ বছরের জয়েন্ট এন্ট্রান্সের অ্যাডভান্স পরীক্ষায় ২৪৬৭ স্থানটি দখল করে নিয়েছে ফিরোজাদাবাদের অভয়। এর পর মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে কানপুর আইআইটি’তে ভর্তি হতে চলেছে ফিরোজাবাদের এই ‘বিস্ময় বালক’। যদি সে আইআইটি’তে ভর্তি হয়ে যায়, তবে অভয়ই হবে দেশের সবচেয়ে কম বয়সী আইআইটি পড়ুয়া।

আইইটিতে তার সমস্ত পরিচয়পত্র খতিয়ে দেখে নেওয়া হয়। তখনই এই কিশোরের বয়সের নথিপত্র দেখে অবাক হয়ে যান সবাই। ২০০১-এর ৯ নভেম্বর জন্ম অভয়ের।

Advertisement

আরও পড়ুন: এই মিড নাইট চিলড্রেনের নাম রাখা হল জিএসটি

কানপুর আইআইটির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক শালাভ জানিয়েছেন, অভয়ের সঙ্গে দেখা করে তিনি সন্তুষ্ট। তবে আইআইটি বিএইচইউতে পড়ার সুযোগ পেয়েছে অভয়। তার ইচ্ছা, পড়বে আইআইটি রুরকিতে। অভয়ের বিশ্বাস, সেই সুযোগটাও পেয়ে যাবে।

বাবা মুকেশ অগ্রবাল ফিরোজাবাদ নগর নিগমের পাম্প অ্যাটেন্ড্যান্ট। ছেলের এই সাফল্যে চোখে জল এসে গিয়েছে গর্বিত বাবার। অভয়ের দাদা বিটেক-এর ছাত্র। এই প্রজন্মের ছেলে হয়েও পড়াশোনার জন্য সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শত হস্ত দূরেই থাকতে পছন্দ করে অভয়। তিন বছর আগে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুললেও, ক্লাস ইলেভেনে ওঠার পর সেই অ্যাকাউন্ট বন্ধও করে দিয়েছিল অভয়। জয়েন্ট এন্ট্রান্সের অ্যাডভান্স পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর তার বাবা তাকে একটি স্মার্টফোন কিনে দেন। তবে এ সব নিয়ে খুব একটা ভাবনার সময় নিয়ে সাফ জানিয়েছেন দিয়েছে অভয়। মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াই এখন তাঁর পাখির চোখ।

সাবাশ অভয়!

আরও পড়ুন

Advertisement