Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

এটায় ধর্ষণ করে খুন শিশুকে, গ্রেফতার ১

সংবাদ সংস্থা
এটা ১৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৫:০৮
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

বিয়েবাড়ির অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসেছিল বছর সাতেকের মেয়েটি। তখন সেখানে জোরকদমে গানবাজনা চলছে। তার মধ্যেই নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল সে। পরের দিন ভোরের দিকে বিয়েবাড়ির কাছেই একটি নির্মীয়মাণ বাড়ি থেকে অর্ধনগ্ন অবস্থায় উদ্ধার করা হল ওই একরত্তিকে। তার গলায় ছিল ফাঁসের চিহ্ন। তলপেটেও ছিল রক্তের দাগ। হাসপাতালে নিয়ে গেলে জানানো হয়, মারা গিয়েছে সে!

আজ ভোরে উত্তরপ্রদেশের এটার এই ঘটনা ফের মনে করিয়ে দিয়েছে কাঠুয়া ও সুরাত কাণ্ডের স্মৃতি। এটায় শিশুটিকে ধর্ষণ ও খুনের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে সোনু জাটভ নামে বছর উনিশের এক তরুণকে। কড়া সমালোচনার মুখে ওই তরুণের বিরুদ্ধে জাতীয় নিরাপত্তা আইনে অভিযোগ এনেছে যোগী আদিত্যনাথ সরকার। রাষ্ট্রের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বিপজ্জনক কোনও ব্যক্তিকে ওই আইনে বিচার ছাড়াই আটকে রাখা যায়। সে ওই বিয়েবাড়িতে প্যান্ডেল তৈরির কাজে এসেছিল। কোতোয়ালি নগর এলাকায় তার বাবার একটি দোকানও রয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই নাবালিকা শীতলপুর গ্রামের বাসিন্দা। গত কাল সন্ধেয় সে তার মা-বাবার সঙ্গে স্থানীয় এক সাংবাদিকের বোনের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিল।

অভিযোগ, অনুষ্ঠান চলাকালীন প্যান্ডেল তৈরি করতে আসা সোনু ওই শিশুটিকে ডেকে পাশের একটি নির্মীয়মাণ বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানেই তার উপরে অত্যাচার চালানো হয়। বিয়েবাড়িতে জোরে গানবাজনা চলায় শিশুটি সাহায্যের জন্য চিৎকার করলেও তা কেউই শুনতে পায়নি। ওই শিশুটিকে ধর্ষণ ও খুন করে ঘটনাস্থল থেকে চম্পট দেয় অভিযুক্ত সোনু। বিয়েবাড়ি থেকে শিশুটি নিখোঁজ হয়ে যাওয়ায় তাকে খুঁজতে শুরু করেন তার মা-বাবা। সারা রাত খোঁজ করার পরে আজ ভোরে ওই বাড়ি থেকে শিশুটির অর্ধনগ্ন দেহ উদ্ধার হয়। শিশুটির গলার দড়ির ফাঁস দেখে অনুমান, শ্বাসরোধ করে তাকে খুন করা হয়েছে।

Advertisement

ঘটনার কথা জানাজানি হতেই অভিযুক্তকে তাদের হাতে তুলে দেওয়ার দাবিতে এটা-ফারুকাবাদ রোড অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন ওই শিশুটির পরিবারের সদস্যরা। পরে জেলা প্রশাসনের আশ্বাস দিলে ওই বিক্ষোভ ওঠে। এটার জেলাশাসক অমিত কিশোর জানিয়েছেন, শিশুটির পরিবারের হাতে ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ তুলে দেওয়া হয়েছে।

রাজ্যে একের পর এক ধর্ষণের ঘটনা ঘটতে থাকায় যোগী আদিত্যনাথ সরকারের কড়া সমালোচনা করেছে বিরোধী দলগুলি। সমাজবাদী পার্টির মুখপাত্র সুনীল সিংহ সজনের কথায়, ‘‘আমি কিছুতেই বুঝতে পারছি না যে রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পরে কেন আইন-শৃঙ্খলার এমন অবনতি।’’ কংগ্রেসের মুখপাত্র অশোক সিংহের বক্তব্য, ‘‘উত্তরপ্রদেশই এখন ধর্ষণ ও অন্যান্য অপরাধে দেশের মধ্যে এক নম্বরে রয়েছে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement