Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

সাড়ে ১৪ হাজার কোটির ব্যাঙ্ক দুর্নীতিতে ইডি-র জেরার মুখে অভিনেতা ডিনো মোরিয়া

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০১ জুলাই ২০১৯ ১৪:৪২
ব্যাঙ্ক দুর্নীতি নিয়ে জেরা করা হবে ডিনো মোরিয়াকে। ছবি: এএফপি।

ব্যাঙ্ক দুর্নীতি নিয়ে জেরা করা হবে ডিনো মোরিয়াকে। ছবি: এএফপি।

স্টারলিং বায়োটেক দুর্নীতি-কাণ্ডে নাম জড়াল বলিউড অভিনেতা ডিনো মোরিয়ার। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে ডেকে পাঠাল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। ডেকে পাঠানো হয়েছে অভিনেতা সঞ্জয় খানের জামাই ডিজে আকিল ওরফে আকিল আলিকেও। তাঁকেও গোয়েন্দারা জেরা করবেন বলে ইডি সূত্রে খবর।

গুজরাতের সন্দেসারা গ্রুপ এবং তাদের অধীনস্থ ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা স্টারলিং বায়োটেক লিমিটেড (এসবিএল)-এর বিরুদ্ধে সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকার ব্যাঙ্ক দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। ডিনো মোরিয়া এবং ডিজে আকিল ওই সংস্থার কাছ থেকে টাকা নিয়েছিলেন, গোয়েন্দাদের কাছে এমন প্রমাণ রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

তা নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই ওই দু’জনকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। কী ভাবে হাতে ওই টাকা পৌঁছেছিল, তা জানতে চাওয়া হবে তাঁদের কাছে। এর পাশাপাশি, টাকা নয়ছয় প্রতিরোধ (পিএমএলএ) আইনে বয়ানও রেকর্ড করা হবে বলে গোয়েন্দা সূত্রে জানা গিয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন: প্রিয়ঙ্কা শর্মা-কাণ্ডে ফের ধাক্কা রাজ্য সরকারের, আদালত অবমাননার নোটিস ধরাল সুপ্রিম কোর্ট​

মডেলিং জগতের বিখ্যাত মুখ ডিনো মোরিয়া বেশ কিছু ছবিতে অভিনয়ও করেছেন। বিপাশা বসুর সঙ্গে সম্পর্কের জেরে এক সময় নিয়মিত খবরের শিরোনামেও ছিলেন তিনি। এই মুহূর্তে মুম্বইয়ে নানা ব্যবসা চালান ডিনো। ডিস্ক জকি ছাড়াও সুরকার হিসেবে জনপ্রিয় আকিল আলিও। ইডির সমন নিয়ে এখনও পর্যন্ত দু’জনের কেউই কোনও মন্তব্য করেননি।

পঞ্জাব ব্যঙ্ক দুর্নীতি কাণ্ডে হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদীর বিরুদ্ধে ১৩ হাজার ৭০০ কোটি টাকা জালিয়াতির অভিযোগ রয়েছে। কিন্তু সেই দুর্নীতিকেও ছাপিয়ে গিয়েছে সন্দেসারা গ্রুপ এবং তাদের অধীনস্থ ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা স্টারলিং বায়োটেক লিমিটেড। সংস্থার বিনিয়োগকারী তথা পৃষ্ঠপোষক নিতিন সন্দেসারা, চেতন সন্দেসারা এবং দীপক সন্দেসারা ইতিমধ্যেই গা ঢাকা দিয়েছেন বলে অভিযোগ। ২০১৭-র অক্টোবরে তাঁদের বিরুদ্ধে ৫ হাজার ৩৮৩ কোটি টাকার প্রতারণা মামলা দায়ের করে ইডি। তদন্তে নেমে পরবর্তী কালে আরও ৯ হাজার কোটি টাকার প্রতারণা সামনে আসে। অন্ধ্র ব্যাঙ্ক, ইউকো ব্যাঙ্ক, স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া, ইলাহাবাদ ব্যাঙ্ক এবং ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া-সহ বিভিন্ন ব্যাঙ্কের কনসর্টিয়াম এবং তাদের বিদেশের শাখা থেকে ওই সংস্থা বিপুল পরিমাণ ঋণ নিয়েছে বলে অভিযোগ। শুধু তাই নয় ২৪৯টি ভারতীয় এবং ৯৬টি বিদেশি ভুয়ো সংস্থার মাধ্যমে ওই টাকা পাচার করারও অভিযোগ তাদের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন: প্রথম দিনের ধর্মঘটে যাত্রীরা নাকাল, ভাড়া বাড়িয়ে ঝোপ বুঝে কোপ অ্যাপ-ক্যাব সংস্থাগুলির​

গত সপ্তাহে, দেশ-বিদেশ মিলিয়ে স্টারলিং বায়োটেক লিমিডেটের ৯ হাজার ৭৭৮ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে ইডি। এ ছাড়াও, কোন কোন প্রভাবশালী রাজনীতিকদের সন্দেসারাদের যোগাযোগ ছিল, তা-ও খতিয়ে দেখছে সিবিআই। করফাঁকি নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে আয়কর বিভাগও।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।

আরও পড়ুন

Advertisement