Advertisement
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

অজিত ডোভাল, গুপ্তচর-গোয়েন্দা প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকে অমিত শাহ, কাশ্মীর নিয়ে বাড়ছে জল্পনা

বৈঠকের বিষয়বস্তু সম্পর্কে সরকারি ভাবে এখনও কিছু জানানো হয়নি। কিন্তু এমন পরিস্থিতিতে অমিত শাহের বৈঠক ঘিরে জল্পনা আরও তীব্র হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (বাঁ দিকে) ও জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। —ফাইল চিত্র

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (বাঁ দিকে) ও জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। —ফাইল চিত্র

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৪ অগস্ট ২০১৯ ১৫:১৫
Share: Save:

কী হতে চলেছে জম্মু-কাশ্মীরে— কৌতূহল, জল্পনা, গুঞ্জনের মধ্যেই জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল-সহ রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালিসিস উইং (‘র’), স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক, কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা বাহিনী এবং সংশ্লিষ্ট সব বিভাগের শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করলেন অমিত শাহ।একাধিক সূত্রে দাবি, কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়েই বৈঠকে বসেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। যদিও বৈঠকের বিষয়বস্তু সম্পর্কে সরকারি ভাবে এখনও কিছু জানানো হয়নি। কিন্তু এমন পরিস্থিতিতে অমিত শাহের বৈঠক ঘিরে জল্পনা আরও তীব্র হচ্ছে।

গত সপ্তাহ থেকেই গোটা উপত্যকায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করা হয়েছে। ধাপে ধাপে মোট ৩৫ হাজার অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। শুক্রবারই পর্যটক ও অমরনাথ যাত্রীদের যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কাশ্মীর ছাড়ার নির্দেশিকা জারি করেছেন জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক। রাজ্যের প্রায় সর্বত্র চলছে কড়া তল্লাশি, নাকা, টহলদারি। এই পরিস্থিতিতে নানা গুঞ্জন ছড়িয়েছে গোটা উপত্যকায়। সংবিধানের ৩৫এ বা ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়া থেকে শুরু করে জম্মু এবং কাশ্মীরকে আলাদা রাজ্য ঘোষণা, ১৫ অগস্ট প্রধানমন্ত্রীর পতাকা উত্তোলনের মতো জল্পনা ঘিরে চাপা উত্তেজনা। কাশ্মীরের স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ৩৫এ ধারা তুলে নেওয়া হচ্ছে না বলে রাজ্যপালের বিবৃতির পরও সেই উত্তেজনা উৎকণ্ঠা কমেনি।

এর বাইরে উপত্যকায় জঙ্গি হানার সতর্কতাও রয়েছে। অমরনাথ যাত্রার পথে উদ্ধার হয়েছে স্নাইপার রাইফেল, বিস্ফোরক ও ল্যান্ডমাইন। কেরন সেক্টর দিয়ে অনুপ্রবেশের সময় পাকিস্তানের বর্ডার অ্যাকশন টিমের (ব্যাট) পাঁচ সদস্যকে গুলি করে মেরেছে ভারতীয় সেনা। তাদের দেহ ফিরিয়ে নিয়ে যেতে বলা হয়েছে পাকিস্তানকে। ইসলামাবাদ এখনও কোনও সাড়া দেয়নি। তার মধ্যেই কেরন সেক্টরে নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর চলছে গোলা-গুলি বিনিময়। সেনা সূত্রে খবর, ২৯ থেকে ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে সীমান্তে একাধিক অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। পাকিস্তান থেকে ইতিমধ্যেই জঙ্গিরা কাশ্মীরে ঢুকে পড়েছে কি-না, তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তার উপর গোয়েন্দা সূত্রে জানানো হয়েছে, ফেব্রুয়ারিতে পুলওয়ামার মতো ফের বড়সড় হামলার ছক কষেছে পাক জঙ্গিরা।

আরও পডু়ন: পাঁচ অনুপ্রবেশকারীর মৃতদেহ ফেরত নিক পাকিস্তান, বলল ভারতীয় সেনা, নীরব ইসলামাবাদ

আরও পড়ুন: মহাকাশ থেকে কেমন দেখতে পৃথিবী, উৎক্ষেপণের ১২ দিনের মাথায় প্রথম ছবি পাঠাল চন্দ্রযান-২

এই সব মিলিয়ে উপত্যকায় চূড়ান্ত কোনও পরিস্থিতির পূর্বাভাস। চরম আতঙ্ক-উৎকণ্ঠা-উদ্বেগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন উপত্যকার সাধারণ মানুষ। তার মধ্যেই রবিবার উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসলেন অমিত শাহ। অজিত ডোভাল ছাড়াও বৈঠকে যোগ দেন ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর প্রধান অরবিন্দ কুমার, র’-এর প্রধান সমন্ত গয়াল, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব রাজীব গৌবা-সহ নিরাপত্তা বিষয়ক প্রায় সব বিভাগের পদস্থ কর্তারা। কেন্দ্রের বিভিন্ন সূত্রে খবর, কাশ্মীর পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই বৈঠক। এই বৈঠকের খবর ছড়াতেই নুতন করে উঠে আসতে শুরু করেছে নানা সম্ভাবনার জল্পনা। চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত স্থির করতে এবং তা সম্পাদনের রূপরেখা তৈরি বা কাশ্মীরের সামগ্রিক পরিস্থিতির মোকাবিলায় রণকৌশল তৈরি করতেই কি এই বৈঠক— জল্পনা সব মহলে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE