Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০১ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

গলহৌতের রাজভবন যাত্রার পর আস্থাভোট জল্পনা রাজস্থানে

বিরোধী দলনেতা গুলাবচন্দ কঠেরিয়া বলেন, ‘‘রাজস্থানে রাজনৈতিক অস্থিরতায় বিজেপির কোনও ভূমিকা নেই। আমরা আস্থাভোটের দাবিও তুলিনি।’’

সংবাদ সংস্থা
জয়পুর ১৯ জুলাই ২০২০ ১৬:৫৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
বিধানসভায় আস্থাভোটের প্রস্তুতি অশোক গহলৌতের। ছবি টুইটার থেকে নেওয়া।

বিধানসভায় আস্থাভোটের প্রস্তুতি অশোক গহলৌতের। ছবি টুইটার থেকে নেওয়া।

Popup Close

বিধায়ক কেনাবেচার অভিযোগ ঘিরে প্রবল রাজনৈতিক চাপানউতোরের মধ্যেই রাজস্থানের রাজ্যপাল কলরাজ মিশ্রের সঙ্গে দেখা করলেন মু্খ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত। কংগ্রেসের একটি সূত্র জানাচ্ছে,আগামী সপ্তাহে বিধানসভায় আস্থাপ্রস্তাব পেশ করার জন্য মুখ্যমন্ত্রী শনিবার সন্ধ্যার রাজ্যপালকে বার্তা দিয়েছেন। রাজ্যপালকে সমর্থনকারী বিধায়কদের সই করা চিঠিও দিয়েছেন তিনি। বুধবার বিধানসভার বিশেষ অধিবেশন ডাকা হতে পারে। তবে, রবিবার রাজভবন থেকে জারি করা হয়ে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ৪৫ মিনিটের বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যপালকে করোনা অতিমারি মোকাবিলায় বিভিন্ন সরকারি পদক্ষেপ সম্পর্কে অবহিত করেছেন।

ভারতীয় ট্রাইবাল পার্টির দুই বিধায়কের সমর্থন পাওয়ায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী গহলৌত শিবির। যদিও গত এক সপ্তাহ ধরে মরুরাজ্যে রাজনৈতিক অস্থিরতা চললেও তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে প্রধান বিরোধী দল বিজেপির তরফে এখনও আস্থাভোটের দাবি তোলা হয়নি। রাজস্থান বিধানসভার আসন সংখ্যা ২০০। এর মধ্যে এখন গহলৌতের পক্ষে রয়েছে ৮৬ কংগ্রেস বিধায়ক-সহ অন্তত ১০২ জন। মুখ্যমন্ত্রী শিবিরের দাবি, ১০৯ জন বিধায়ক সরকারকে সমর্থন করছেন। অন্যদিকে, বিজেপি শিবিরে ৭৫ এবং বিদ্রোহী সচিন পাইলটের শিবিরে ১৮ জন বিধায়ক রয়েছেন। তবে কংগ্রেস আশাবাদী, আস্থাভোটের আগে সচিন শিবিরের কয়েকজনকে দলের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনা যাবে।

সচিন এবং তাঁর অনুগামী বিধায়কেরা এদিনও হরিয়ানার মানেসরের রিসর্টে ছিলেন। বিদ্রোহী শিবির সূত্রে পাওয়া খবর, আস্থাভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণার পরে তাঁরা জয়পুরে ফিরতে পারেন। বিধানসভার বিরোধী দলনেতা গুলাবচন্দ কঠেরিয়া রবিবার বলেন, ‘‘কংগ্রেসের অন্তর্দ্বন্দ্বের ফলেই রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হয়েছে। এতে বিজেপির কোনও ভূমিকা নেই। আমরা আস্থাভোটের দাবিও তুলিনি।’’ প্রাক্তন বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে এখনও সচিন শিবিরের সঙ্গে সমঝোতার বিরুদ্ধে অনড় রয়েছেন বলে দলীয় সূত্রের খবর।

Advertisement

আরও পড়ুন: ভারত-চিন বিরোধের গোড়ায় তিব্বত, তার পরে জল গড়িয়েছে নানা দিকে

এরই মধ্যে অডিয়ো টেপ ফাঁসের জেরে কংগ্রেসের তোলা বিধায়ক কোনাবেচার অভিযোগ এবং বিজেপি শিবিরের পাল্টা আড়িপাতার অভিযোগ ঘিরেও উত্তেজনার পারদ চড়ছে মরুরাজ্যে। বেআইনি ভাবে ফোনে আড়িপাতার অভিযোগে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ইতিমধ্যেই রাজস্থান সরকারকে নোটিস পাঠিয়েছে। মুখ্যসচিব সেই নোটিসের জবাব দেবেন বলে রাজ্য সরকার সূত্রে জানা গিয়েছে। ফাঁস হওয়া দু’টি অডিয়ো টেপে শোনা যাচ্ছে, বিদ্রোহী কংগ্রেস বিধায়ক ভাঁওয়ারলাল শর্মাকে রাজস্থানে সরকার ফেলে দেওয়ার জন্য টাকার প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে। কংগ্রেসের অভিযোগ, যাঁরা প্রস্তাব দিচ্ছেন তাঁদের মধ্যে একটি গলা কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রী গজেন্দ্র সিংহ শেখাওয়াতের

আরও পড়ুন: নিয়ম মেনে কি ফোনে আড়ি পাতা? বিজেপির দাবি সিবিআই, পাল্টা সিট গঠন গহলৌতের​

বিধায়ক কেনাবেচার অভিযোগের তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত ‘সিট’ গজেন্দ্রর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে বিজেপি ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী সঞ্জয় জৈন-সহ তিনজনকে। কংগ্রেস নেতা অজয় মাকেন এদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে গজেন্দ্রকে বরখাস্ত করার দাবি তোলেন। সচিন এবং তাঁর অনুগামী বিধায়কদের সদস্যপদ খারিজ সংক্রান্ত মামলা রাজস্থান হাইকোর্টে বিচারাধীন। কংগ্রেস আশাবাদী, মামলার রায় গহলৌতের পক্ষেই যাবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement