Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০১ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সরলেন বিচারপতি ললিত, অযোধ্যা মামলা ফের পিছোল, পরবর্তী শুনানি ২৯ জানুয়ারি

বর্তমান প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ যে সাংবিধানিক বেঞ্চ গড়েছেন, তার ৫ সদস্যই প্রবীণ বিচারপতি এবং তাঁরা প্রত্যেকেই প্রধান বিচারপতি হওয়ার তালিক

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ১০ জানুয়ারি ২০১৯ ১০:৩৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

Popup Close

ফের পিছিয়ে গেল রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ মামলার শুনানি। পরবর্তী ২৯ জানুয়ারি চূড়ান্ত শুনানির দিন ঠিক হবে, জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট

পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চে বিতর্কিত রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ মামলার শুনানি শুরু হওয়ার কথা ছিল আজ, বৃহস্পতিবার। সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ এই শুনানি শুরু হয়। কিন্তু শুরুতেই বিতর্ক বাধায় পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন বিচারপতি ললিত। তার পরই চূড়ান্ত শুনানির দিন ঠিক করার জন্য পরবর্তী ২৯ তারিখ বেছে নেয় বিচারপতিদের বেঞ্চ।

এ দিন মামলার শুনানির শুরুতেই সকাল ১০টা ৩৯ মিনিট নাগাদ মুসলিম পক্ষের আইনজীবী রাজীব ধওয়ন সওয়াল শুরু করার অনুমতি চান বেঞ্চের কাছে। তাঁকে থামিয়ে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন, ‘‘কী শুরু করবেন? আজকের দিনটা শুনানির জন্য নয়, মামলার চূড়ান্ত শুনানি কবে, সে দিনটা ঠিক করার জন্য।’’ সুপ্রিম কোর্ট কেন তিন সদস্যের বেঞ্চ থেকে পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ গঠন করল সুপ্রিম কোর্টের কাছে জানতে চান ওই মুসলিম পক্ষের আইনজীবী। আইনজীবী রাজীব ধওয়ন ওই বেঞ্চের সদস্য বিচারপতি উদয় ইউ ললিতকে নিয়েও প্রশ্ন তোলেন।

Advertisement

আরও পড়ুন: বিরোধীদের ঝাঁঝালো আক্রমণ সত্ত্বেও রাজ্যসভার সায় উচ্চবর্ণের সংরক্ষণে

১৯৯৭ সালে বিচারপতি ললিত নিজেও বিতর্কিত বাবরি মসজিদ মামলার আইনজীবী ছিলেন। ফলে সে সময় তিনি কোনও এক পক্ষের হয়ে মামলা লড়েছিলেন। তাই বিচারপতি ললিতের সাংবিধানিক বেঞ্চে থাকা উচিত হবে না, বেঞ্চকে বলেন আইনজীবী রাজীব ধওয়ন। তাঁর সঙ্গে সহমত হন অন্যান্য বিচারপতিরা। এর পরই পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন বিচারপতি ললিত।

আরও পড়ুন: অফিসের বাইরে আর ‘বস’-এর ফোন ধরতে হবে না! নয়া বিল সংসদে

প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানান, যেহেতু বিচারপতি ললিত আর পাঁচ সদস্যের বেঞ্চে নেই এবং বেঞ্চের পাঁচ সদস্য ছাড়া কোনও ভাবেই চূড়ান্ত শুনানির দিন স্থির করা সম্ভব নয়, তাই এই সিদ্ধান্ত। এই সময়ের মধ্যে বিচারপতি ললিতের পরিবর্তে অন্য বিচারপতিকে এই বেঞ্চের সদস্য করা হবে।

বিচারপতি ললিত ছাড়া প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে শীর্ষ স্তরের ওই বেঞ্চের বাকি সদস্যরা হলেন বিচারপতি এস এ ববদে, বিচারপতি এন ভি রামানা ও বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়। সুপ্রিম কোর্টে অযোধ্যা মামলার শুনানি শুরু হওয়ার পর এই প্রথম কোনও বেঞ্চ গঠিত হয়েছিল, যাতে কোনও সংখ্যালঘু বিচারপতি ছিলেন না।

রাম জন্মভূমি মামলায় ইলাহাবাদ হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আপিল হওয়ার সময়েই সাংবিধানিক বেঞ্চ গঠনের আর্জি জানানো হয়েছিল। পরে মসজিদ ইসলামের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ কি না, সেই প্রশ্নের মীমাংসার জন্য সাংবিধানিক বেঞ্চ গঠনের আর্জি পেশ হয় সুপ্রিম কোর্টে। কিন্তু সাংবিধানিক বেঞ্চ গঠনের সমস্ত আর্জি খারিজ করে প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র জানান, নেহাত জমি সংক্রান্ত বিবাদ হিসেবেই এই মামলার বিচার হবে শীর্ষ আদালতে। পরে রাম জন্মভূমি মামলায় প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের বিপরীতে হেঁটে পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ গঠন করেছিলেন প্রধান বিচারপতি গগৈ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement