Advertisement
০২ মার্চ ২০২৪
Barack Obama

বিজেপিকে নিয়ে উদ্বেগ ওবামারও

ওবামার মতে, ভারতে রাজনীতি এখনও ধর্ম, গোষ্ঠী ও জাতপাতকে ঘিরেই আবর্তিত হয়। মনমোহন সিংহের প্রধানমন্ত্রী হওয়াকে গোষ্ঠীভেদের উপরে উঠে দেশের প্রগতির চিহ্ন হিসেবে তুলে ধরা হয়েছিল।

ছবি: সংগৃহীত।

ছবি: সংগৃহীত।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০২০ ০৪:৩৫
Share: Save:

প্রাক্তন আমেরিকান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার স্মৃতিকথায় রাহুল গাঁধী সম্পর্কে মন্তব্য নিয়ে কটাক্ষ করেছে বিজেপি। এ বার সামনে এল সেই বিজেপির ‘বিভেদকামী জাতীয়তাবাদ’ নিয়ে তাঁর উদ্বেগের কথাও।

ওবামা তাঁর স্মৃতিকথায় জানান, মনমোহন সিংহের জ্ঞান ও ভদ্রতা অসাধারণ। নিজের রাজনৈতিক ক্ষতি সত্ত্বেও তিনি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপের দাবি মানেননি। ওবামার কথায়, ‘‘মুসলিম-বিরোধী মত শক্তিশালী হওয়ায় হিন্দু জাতীয়তাবাদী বিজেপির প্রভাব বাড়ছে বলে আশঙ্কা ছিল মনমোহনের।’’ ওবামার বক্তব্য, মনমোহন তাঁকে বলেছিলেন অনিশ্চিত সময়ে ধর্ম ও গোষ্ঠীর নামে রাজনীতি করা সহজ। ভারত বা অন্য দেশে সহজেই রাজনীতিকেরা এর ফায়দা লুটতে পারেন। ওবামার কথায়, ‘‘কোনও গণতন্ত্র লোভ, জাতীয়তাবাদ, দুর্নীতি, ধর্মীয় অসহিষ্ণুতাকে স্থায়ী ভাবে ঠেকিয়ে রাখতে পারে কি না তা নিয়ে আমার মনে প্রশ্ন উঠেছিল। আর্থিক প্রগতির হার কমলে বা কোনও জনপ্রিয় নেতা মানুষের ভয় ও বিরক্তিকে হাতিয়ার করলেই এই বিষয়গুলি মাথাচাড়া দিতে পারে।’’

ওবামার মতে, ভারতে রাজনীতি এখনও ধর্ম, গোষ্ঠী ও জাতপাতকে ঘিরেই আবর্তিত হয়। মনমোহন সিংহের প্রধানমন্ত্রী হওয়াকে গোষ্ঠীভেদের উপরে উঠে দেশের প্রগতির চিহ্ন হিসেবে তুলে ধরা হয়েছিল। কিন্তু ওবামার মতে তা পুরোপুরি ঠিক নয়। তাঁর কথায়, ‘‘একাধিক রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মনে করতেন মনমোহন শিখ সম্প্রদায়ের প্রবীণ সদস্য বলেই তাঁকে বেছে নিয়েছিলেন সনিয়া। কারণ মনমোহনের কোনও জাতীয় রাজনৈতিক ভিত্তি নেই। ফলে তিনি রাহুলের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে
উঠতে পারবেন না বলে মনে করেছিলেন সনিয়া।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE