×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

বালাকোটের আগেই ‘পূর্বাভাস’ অর্ণবের

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ০২:৩৮
ছবি: সংগৃহীত।

ছবি: সংগৃহীত।

পুলওয়ামা হামলার পরে ভারত যে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ‘বড় ধরনের’ সামরিক অভিযান চালাবে তা আগেই জানতেন রিপাবলিক টিভি-র প্রধান সম্পাদক অর্ণব গোস্বামী। অন্তত তেমনটাই জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমের একাংশ।

টিআরপি জালিয়াতি মামলায় ধৃত রেটিং সংস্থা ‘বিএআরসি’-এর প্রাক্তন সিইও পার্থ দাশগুপ্তের সঙ্গে অর্ণবের একটি হোয়াটসঅ্যাপ কথোপকথন সামনে এসেছে। তা ওই মামলায় মুম্বই পুলিশের পেশ করা চার্জশিটের অঙ্গ। ২০১৯ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে অভিযান চালিয়েছিল ভারতীয় বায়ুসেনা। চার্জশিট অনুযায়ী, ২৩ ফেব্রুয়ারি পার্থর সঙ্গে কথোপকথনের সময়ে অর্ণব পুলওয়ামা হামলার পরে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহের প্রথম সাক্ষাৎকার রিপাবলিক টিভি-তে সম্প্রচার নিয়ে ফলাও করে কথাবার্তা বলেন। তার পরেই তিনি বলেন, ‘‘বড় একটা কিছু হবে।’’ পার্থ জানতে চান, দাউদ প্রসঙ্গে কোনও পদক্ষেপ করবে সরকার? অর্ণব জবাবে জানান, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বড় অভিযান চালাবে ভারত। সেইসঙ্গে কাশ্মীরেও বড় পদক্ষেপ করবে সরকার। পার্থ জানান, এটা ‘বিগ ম্যান’-এর পক্ষে ভালই হবে। দেশবাসী খুশি হবেন। তিনি ভোটে বড় জয় পাবেন।

এ নিয়ে কংগ্রেস আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া এখনও জানায়নি। তবে কংগ্রেস নেতা ও আইনজীবী অভিযেক মনু সিঙ্ঘভির বক্তব্য, ‘‘২৩ ফেব্রুয়ারি অর্ণব যা বলেছেন তা থেকে বোঝা যাচ্ছে তিনি পাকিস্তান সম্পর্কে গোয়েন্দা তথ্য জানতেন। অর্থাৎ সরকারের কোনও শীর্ষ কর্তা গোপন তথ্য ফাঁস করেছিলেন। টিআরপি বাড়ানোর জন্য সেনাদের জীবনের ঝুঁকি বাড়ানো হয়েছে।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: সরকারি গোপন তথ্য কি আগেই জানতেন অর্ণব

আরও পড়ুন: আন্দোলন ভাঙতে এ বার এনআইএ অস্ত্র কেন্দ্রের

কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক জিতেন্দ্র সিংহের মতে, ‘‘দেখা যাচ্ছে অর্ণব কেবল সরকারের মুখপাত্র নন, তিনি সেনাপ্রধানের মতো প্রতিরক্ষা স‌ংক্রান্ত গোপন তথ্যও জানেন।’’ তাঁর আরও বক্তব্য, ‘‘দেশবাসী খুশি হবেন, এ কথা থেকে বোঝা যাচ্ছে কেন বিজেপি সরকার সামরিক অভিযান চালিয়েছিল।’’

অন্য দিকে এ দিন অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে টিআরপি জালিয়াতিতে গ্রেফতার রেটিং সংস্থা ‘ব্রডকাস্ট অডিয়েন্স পার্থ দাশগুপ্তকে। গত মাসে টিআরপি মামলায় বিএআরসি-র প্রাক্তন চিফ অপারেটিং অফিসার রোমিল রামগড়িয়াকে গ্রেফতার করেছিল মুম্বই পুলিশ। তার পর পরই গ্রেফতার হন পার্থ। অভিযোগ, তাঁরা দু’জন মিলে এমন ভাবে টিআরপি জালিয়াতি করেছিলেন যাতে রিপাবলিক টিভি টেলিভিশন রেটিংয়ে সেরা চ্যানেল হিসেবে উঠে আসে। পুলিশ জানিয়েছে, পার্থ নিয়মিত সুগারের ওষুধ খাননি। তাই সুগার বেড়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

তাঁকে জে জে হাসপাতালের আইসিইউ-তে ভর্তি করা হয়।

Advertisement